সুস্বাস্থ্য রক্ষায় পাঁচ রকমের চা

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১৪ অক্টোবর : প্রচলিত আছে, এক কাপ চা স্ট্রোক, বাত, দাঁতের ক্ষয় এমনকি ক্যান্সার থেকেও সুরক্ষা দেয়। বেশ কয়েকটি উপকারী বৈশিষ্ট্য বিদ্যমান থাকার কারlose weightণে চাকে প্রাকৃতিক ওষুধ হিসেবে গণ্য করা হয়। এর আরেকটি বড় গুণ হল, এটি ওজন কমানোর মাধ্যমে মানুষকে করে সুস্বাস্থ্যের অধিকারী। বিজ্ঞানীদের মতে, চায়ে আছে চর্বির বিরুদ্ধে লড়াই করার আশ্চর্য সব উপাদান। শরীরকে ফিট রাখে যে কয়েকটি চা.. মৌরি চা : হজম বৃদ্ধি, মৌরি হল একটি ছোট চিরহরিৎ বৃক্ষের ফল। যা ডায়েরিয়া, বমি বমি ভাব ইত্যাদি হজমপ্রক্রিয়াজনিত সমস্যা দূর করে। প্রয়োজন অনুযায়ী চিনি মিশিয়ে ধীরে ধীরে এই চা পান করলে পাকস্থলির সমস্যা থেকে রক্ষা পাওয়া যায়। মেনথল চা : খাবারের পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ, যদি আপনি মেনথল চা পছন্দ করেন, তাহলে গ্রিণ টি এর সঙ্গে এটি মিশিয়ে খেতে পারেন। হজমপ্রক্রিয়া উন্নত করার পাশাপাশি এই চা দেহের অপ্রয়োজনীয় ক্যালরি পুড়িয়ে দেয় এবং খাবার গ্রহণের পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ করে। গরম বা ঠান্ডা যে কোন পানি দিয়ে এই চা খাওয়া যায়। প্রয়োজন অনুযায়ী চায়ের মধ্যে মধু মিশিয়ে নেয়া যেতে পারে। উলোঙ চা : স্থূলতা হৃাস, গবেষণা অনুযায়ী, অর্ধেক গাঁজান প্রণালীর মাধ্যমে তৈরী এই চা গ্রীণ টি এর চেয়ে অধিক উপকারী। এটি দেহে চর্বি ও কোলেস্টেরলের মাত্রা কমায়। দিনে দুই কাপ উলোঙ চা পান করলেই স্থুলতা কমে। গ্রিণ টি : বিপাকীয় প্রক্রিয়ার উন্নয়ন, গবেষকদের মতে, গ্রিণ টি তে বিপাকীয় প্রক্রিয়া উন্নয়নের জন্য রাসায়নিক পদার্থ আছে। যা দিনে প্রায় ৭০ কিলো ক্যালরি পোড়ায়। গ্রিণ টি দেহের অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট এর পরিমাণও বাড়ায়। রোজ টি : কোষ্ঠকাঠিন্য দূর, চায়ের কুড়ির সঙ্গে তাজা গোলাপ মিশিয়ে এই চা তৈরী করা হয়। মানবদেহের জন্য এটি বেশ উপকারী। দেহের নানা বিষক্রিয়া দূর করার মাধ্যমে এটি ত্বককে সুন্দর করে। এই চায়ে আছে ভিটামিন এ, বি-৩, সি, ডি এবং ই যা সংক্রামক রোগের বিরুদ্ধে লড়াই করে। এটি কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে এবং ওজন কমায়। সূত্র : ঢাকাটাইমস

Leave a Reply