ফিলিপাইনে মিলেছে কঙ্কালসহ নিখোঁজ মালয়েশীয় বিমানের ধ্বংসাবশেষ

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১৩ অক্টোবর : ফিলিপাইনের সাগবে দ্বীপে মিলেছে নিখোঁজ মালয়েশীয় বিমানের ধ্বংসাবশেষ। এরইমধ্যে মালয়েশিয়া কর্তৃপক্ষের কাছে এMalaysia সংক্রান্ত প্রমাণাদি পৌঁচেছে বলে বিজনেস ইনসাইডারের এক প্রতিবেদনে দাবি করা হয়। প্রতিবেদনে বলা হয়, দ্বীপের স্থানীয় বাসিন্দারা দাবি করেছে মালয়েশীয় একটি বিমানের কাঠামো সেখানে পড়ে রয়েছে। এমনকী খুবই দুর্বল অবস্থায় যাত্রী এবং ক্রুদের দেহাবশেষও রয়েছে বিমানের ধ্বংসস্তূপে। জানা যায়, একদল স্থানীয় কিশোর পাখি শিকারের জন্য জঙ্গলের ভেতরে প্রবেশ করলে তারা প্রথমে সেই ধ্বংসাবশেষ দেখতে পায়। কিন্তু এর আগের প্রতিবেদনগুলো মতে, ফিলিপাইনের কোনো নির্জন দ্বীপে নিখোঁজ মালয়েশীয় বিমানের খোঁজ পাওয়ার সম্ভাবনা খুবই ক্ষীণ। কারণ তথ্যানুযায়ী, কুয়ালালামপুর থেকে যাত্রা শুরু করে এটি উত্তরপূর্বাঞ্চলে অর্থাৎ চীনের দিকে যাচ্ছিল। হঠাৎই এটি পশ্চিমে মালয় উপদ্বীপ অভিমুখে রওয়ানা হয়। বিশ্লেষকদের ধারণা, জ্বালানি ফুরিয়ে যাওয়ার কারণে বিমানটি দুর্ঘটনার কবলে পড়ে। ফিলিপাইনে মিলেছে কঙ্কালসহ নিখোঁজ মালয়েশীয় বিমানের ধ্বংসাবশেষ জানা যায়, বিমানটি দক্ষিণে সরে গিয়ে ভারত মহাসাগরের উপর দিয়ে যাওয়ার কোনো এক সময় বিধ্বস্ত হয়। ভারত মহাসাগরের সাত দশমিক তিন মিলিয়ন বর্গফুট এলাকা জুড়ে নিখোঁজ মালয়েশীয় বিমানের তল্লাশি চালিয়েও কোনো কূলকিনারা পাওয়া যায়নি। জুলাইতে ফ্রান্সের এক প্রত্যন্ত দ্বীপে বিমানের একটি পাখার অংশ মিলেছে। যা এমএইচ৩৭০ বোয়িংয়ের বলেই নিশ্চিত করা জয়। কিন্তু ভারত মহাসাগরের পশ্চিমাঞ্চলের ওই দ্বীপ থেকে ফিলিপাইনের সাগবে দ্বীপের দুরত্ব চার হাজার ৮শ’ মাইল। এদিকে অস্ট্রেলিয়ান নিউজ জানায়, সাম্প্রতিক সময়ে ফিলিপাইনে কোনো বিমান বিধ্বস্তের খবর সেই দেশের পুলিশের কাছে নেই। উল্লেখ্য, গতবছর ৮ মার্চ মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুর থেকে চীনের বেইজিংয়ের উদ্দেশে যাত্রা করে নিখোঁজ হয় এমএইচ৩৭০ বোয়িং বিমান। ফিলিপাইনের দ্বীপে যদি সত্যি নিখোঁজ মালয়েশীয় বিমানের ধ্বংসাবশেষ মিলে, তাহলে বিমান নিখোঁজ বিমান সন্ধানের অনেক তথ্যাদিই মিথ্যা প্রমাণিত হবে। সূত্র : ঢাকাটাইমস

Leave a Reply