লালমোহনে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের ওপর হামলা : পুলিশ আহত

নিউজগার্ডেন ডেস্ক : ভোলার লালমোহনে দাখিল পরীক্ষায় কড়াকড়ি আরোপ lalmohan picকরায় এক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের ওপর হামলা চালিয়েছে পরিক্ষার্থীরা। এসময় এক পুলিশ কনস্টেবল গুরুতর আহত হয়েছেন। শনিবার দাখিল গণিত পরীক্ষা শেষে উপজেলার গজারিয়া মাদ্রাসা কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় গজারিয়া মাদ্রাসা পরীক্ষা কেন্দ্র বাতিল করে লালমোহন উপজেলা সদরে আনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইউএনও। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, শনিবার মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের দাখিলের গণিত পরীক্ষা ছিল। উপজেলার গজারিয়া ইসলামীয়া ফাযিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে পরীক্ষা দিচ্ছিল শিক্ষার্থীরা। এসময় ওই কেন্দ্রে দায়িত্ব পালন করেন ম্যাজিস্ট্রেট অজিত দেব। তিনি পরীক্ষায় কড়াকরি আরোপ করায় পরিক্ষার্থীরা তার ওপর ক্ষিপ্ত হয়। পরীক্ষা শেষে ওই কেন্দ্রের পরিক্ষার্থীরা উত্তেজিত হয়ে লাঠিসোটা নিয়ে ম্যাজিষ্ট্রেট অজিত দেবের ওপর হামলার চেষ্টা করে। এসময় শিক্ষকরা ম্যাজিস্ট্রেটকে উদ্ধার করে লাইব্রেরি কক্ষে নিয়ে যায়। পরে চরফ্যাশন উপজেলায় দায়িত্বরত নির্বাহী ম্যাজেষ্ট্রট অতিরিক্ত পুলিশ নিয়ে এসে গজারিয়ায় আটকে পড়া ম্যাজিষ্ট্রেটকে উদ্ধার করতে আসেন। তখন ওই এলাকায় আরো উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। পরিক্ষার্থীরা ম্যাজিস্ট্রেটের গাড়ি লক্ষ্য করে ইট পাটকেল নিক্ষেপ করে। এতে ম্যাজিস্ট্রেটের গাড়ির গ্লাস ভেঙ্গে যায়। এসময় ম্যাজিস্ট্রেটের নিরাপত্তায় থাকা এক পুলিশ কনস্টেবল গুরুতর আহত হন। আহত পুলিশ কনস্টেবলের নাম আলাল। খবর পেয়ে লালমোহন থানার অফিসার ইনচার্জ আকতারুজ্জামান ফোর্স নিয়ে গজারিয়া যান। পুলিশ গিয়ে আহত পুলিশ কনস্টেবলসহ ম্যাজিস্ট্রেটদের লালমোহন নিয়ে আসেন। আহত কনষ্টেবলকে লালমোহন হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। ঘটনার পর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. জাকির হোসেন জানান, ম্যাজিস্ট্রেটের গাড়িতে হামলা ও পুলিশ কনষ্টেবলকে আহত করার ঘটনায় লালমোহন থানায় নিয়মিত মামলা দায়ের হবে। এছাড়া গজারিয়া মাদ্রাসা কেন্দ্র বাতিল করে লালমোহনে স্থানান্তরিত করা হবে। সূত্র : শীর্ষ নিউজ ডটকম

Leave a Reply