মিথ্যা বলার জন্য ট্রাম্প প্রশাসনকে অভিযুক্ত করেন : কোমি

নিউজগার্ডেন ডেস্ক : ০৯ জুন ২০১৭
যুক্তরাষ্ট্রে সিনেট কমিটির শুনানিতে এসে এফবিআইয়ের বরখাস্ত হওয়া পরিচালক জেমস কোমি
তাকে ও এফবিআইকে নিয়ে মিথ্যাচারের অভিযোগ তুলেছেন ট্রাম্প প্রশাসনের বিরুদ্ধে।
মাস খানেক আগে মিস্টার কোমিকে বরখাস্ত করেছিলেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।
জেমস কোমি ট্রাম্পের নির্বাচনী প্রচারণা ও রাশিয়ার মধ্যে কোনো যোগসূত্র আছে কি-না তা
নিয়ে তদন্তের সময় তাকে বরখাস্ত করার পেছনে যেসব যুক্তি দেয়া হয়েছিলো সেগুলোকে
‘বিভ্রান্তিকর’ বলে উল্লেখ করেন।
তিনি তাকে বরখাস্ত করা এবং তার সাথে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সাক্ষাতের বিষয়ে মিথ্যা বলার
জন্য ট্রাম্প প্রশাসনকে অভিযুক্ত করেন।
শুনানিতে কোমি বর্ণনা করেন, কিভাবে তিনি অবাক ও বিরক্ত হয়েছিলেন কারণ তিনি অনুভব
করছিলেন যে ট্রাম্প চাপ সৃষ্টি করছিলেন তার সাবেক নিরাপত্তা উপদেষ্টা ও রাশিয়ার মধ্যকার
কোন যোগসূত্র আছে কি-না তা নিয়ে তদন্ত বাদ দেয়ার জন্য।

পরে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প অবশ্য বলেছেন তিনি ওই তদন্ত কখনোই বিলম্বিত বা বাধাগ্রস্ত করতে
বলেননি।
তার আইনজীবী এক বিবৃতিতে বলেছেন জেমস কোমির শুনানিতে প্রমাণিত হয়েছে, রাশিয়ার
হস্তক্ষেপের বিষয়ে তদন্তেরর অংশ হিসেবে প্রেসিডেন্ট সেই তদন্তের আওতায় ছিলেননা।
শুনানিতে জেমস কোমি বলেন হোয়াইট হাউজ তাকে এবং এফবিআইকে হেয় করতে চেয়েছে।
“এগুলো ছিলো মিথ্যা এবং আমি দুঃখিত যে এফবিআইকে সেগুলো শুনতে হয়েছে”।
তিনি বলেন, “এফবিআই সৎ। এফবিআই শক্তিশালী এবং এফবিআই স্বাধীন আছে ও থাকবে”।
ওয়াশিংটনে জেমস কোমির শুনানি ছিলো যুক্তরাষ্ট্রে ব্যাপক আগ্রহের বিষয়।
তবে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রাশিয়ার হস্তক্ষেপ নিয়ে তদন্ত প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বন্ধ করার চেষ্টা
করেছিলেন কি-না এমন প্রশ্নের জবাবে কোমি শুনানিতে বলেছেন তার জানামতে সেটি ট্রাম্প
করেননি।
সূত্র : বিবিসি

Leave a Reply

%d bloggers like this: