৯৬ ঘণ্টার ধর্মঘট স্থগিত পাটকল শ্রমিকদের

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১৬ এপ্রিল ২০১৯ ইংরেজী, মঙ্গলবার: রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল শ্রমিকদের ডাকা ৯৬ ঘণ্টার ধর্মঘট স্থগিত হয়েছে। সোমবার রাতে শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মন্নুজান সুফিয়ানের সঙ্গে বৈঠকের পর ধর্মঘট স্থগিতের সিদ্ধান্তের কথা জানান শ্রমিক নেতারা। শ্রম অধিদপ্তরের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত বৈঠকে প্রতিমন্ত্রীর আশ্বাসের পরিপ্রেক্ষিতে ধর্মঘটসহ সব ধরনের আন্দোলন কর্মসূচি স্থগিতের সিদ্ধান্ত নেন শ্রমিকরা। বকেয়া মজুরি প্রদান, মজুরি কমিশন বাস্তবায়ন, চাকরি স্থায়ী করা এবং পাওনা পরিশাধ হয়রানি বন্ধ করাসহ নয় দফা দাবিতে সারাদেশের ২৬টি পাটকলের শ্রমিকরা দুই দফা আন্দোলন করে। দুই দফা আন্দোলনের পরও বাংলাদেশ পাটকল করপোরেশনের (বিজেএমসি) পক্ষ থেকে দাবি মেনে নেওয়ার বিষয়ে কোনো সুরাহা হয়নি। বিজেএমসির চেয়ারম্যানসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার সঙ্গে দুই দফা বৈঠক করেও কোনো ধরণের আশ্বাস না পাওয়ায় গত শুক্রবার চার দিনের ধর্মঘটের ডাক দেন শ্রমিক নেতারা। কর্মসূচি অনুযায়ী ১৫-১৮ এপ্রিল ধর্মঘট পালন করার কথা ছিল তাদের। এই চার দিন সড়কপথ ও রেলপথ অবরোধ করারও ঘোষণা দেন। কর্মসূচি অনুযায়ী গতকাল সোমবার দ্বিতীয় দফায় ৯৬ ঘণ্টার টানা ধর্মঘটে নামেন শ্রমিকরা। সংকট নিরসনে গতকাল রাত সাড়ে সাতটার দিকে পাটকল শ্রমিক নেতাদের নিয়ে বৈঠকে বসেন শ্রম প্রতিমন্ত্রী। সাড়ে চার ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে চলে বৈঠক। বৈঠকে দাবি বাস্তবায়নে শ্রম প্রতিমন্ত্রী আশ্বাস দিলে শ্রমিক নেতারা ধর্মঘটসহ সব ধরনের আন্দোলন কর্মসূচি স্থগিতের সিদ্ধান্ত নেন। বৈঠক শেষে শ্রম অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এ কে এম মিজানুর রহমান সাংবাদিকদের ধর্মঘট স্থগিতের কথা জানান। বৈঠকের সিদ্ধান্ত তুলে ধরে তিনি বলেন, ১৭ মে’র মধ্যে শ্রমিকদের মজুরি ফিক্সেশন সম্পন্ন হবে এবং আগামী ১৮ মে খাতায় উঠবে অর্থাৎ শ্রমিকদের অনুকূলে মজুরি স্লিপ দেয়া হবে। এছাড়া ২৫ এপ্রিলের মধ্যে ১০ সপ্তাহের বকেয়া মজুরি আগের হারে এবং তিন মাসের বকেয়া বেতন পরিশোধ করা হবে। বৈঠকে বাংলাদেশ পাটকল কর্পোরেশনের (বিজেএমসি) চেয়ারম্যান শাহ্ মোহাম্মদ নাছিম, বাংলাদেশ পাটকল শ্রমিক লীগের সভাপতি সরদার মোতাহার উদ্দিন ও সাধারণ সম্পাদক এস এম কামরুজ্জামান চুন্নুসহ অন্যান্য নেতা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*