৪২ কোটি মোবাইল নম্বর ফাঁস ফেসবুকে!

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ইংরেজী, শনিবার: তথ্য ফাঁস নিয়ে বেশ বেকায়দায় রয়েছে বিশ্বের সর্বাধিক ব্যবহৃত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক। এমন অসস্তিকর অবস্থার মধ্যেই আবারও একই অভিযোগ উঠেছে ফেসবুকের বিরুদ্ধে। এবার ৪২ কোটি ফেসবুক ব্যবহারকারীর মোবাইল নম্বর ফাঁস হয়েছে বলে দাবি করেছে মার্কিন প্রযুক্তিবিষয়ক সংবাদমাধ্যম ‘টেক ক্রাঞ্চ’। বিপুল সংখ্যক গ্রাহকের মোবাইল নম্বর ফাঁস হওয়ার ঘটনা পুরোপুরি স্বীকার না করলেও বিষয়টি অস্বীকারও করেনি মার্ক জুকারবার্গের সংস্থাটি।
টেক ক্রাঞ্চের দাবি, এই ৪২ কোটির মধ্যে প্রায় সাড়ে ১৩ কোটি অ্যাকাউন্ট যুক্তরাষ্ট্রের, ভিয়েতনামের ৫ কোটি এবং ব্রিটেনের প্রায় ২ কোটি। বাকি অ্যাকাউন্ট বিশ্বের বিভিন্ন দেশের।


গেল? এর একটা ব্যাখ্যাও দিয়েছে ‘টেক ক্রাঞ্চ’। তাদের দাবি, ফেসবুক তাদের গ্রাহকদের ফোন নম্বর যে সার্ভারে মজুত রাখে, তা একেবারেই সুরক্ষিত নয়। ফলে সেই সার্ভারের পাসওয়ার্ড খুব সহজেই হ্যাক করা যায় এবং এক্ষেত্রে সেটাই হয়েছে।
এই ফাঁক থাকার কথা ফেসবুক কর্তৃপক্ষ মেনে নিলেও সংস্থার এক মুখপাত্র জানান, ওই ডেটাবেসে একই নম্বর একাধিক বার ছিল। তাই সংখ্যাটা এত বিপুল মনে হচ্ছে। আদতে তা ২০ কোটির বেশি নয় বলেই দাবি তাদের।
কিন্তু তাই বা হবে কেন? কেমব্রিজ অ্যানালাইটিকা কাণ্ডের সময় থেকেই ফেসবুকের বিরুদ্ধে তথ্য ফাঁসের অভিযোগ উঠছে। অভিযোগ, ফেসবুক থেকে তথ্য হাতিয়েই মার্কিন ভোটে হস্তক্ষেপ করছিল মস্কো। এই ফোন নম্বর ফাঁসের ঘটনাটিও অনেক আগেকার বলে দাবি ফেসবুকের। যখন ফোন নম্বর গিয়ে আইডি খোঁজার ফিচার ছিল ফেসবুকে। ২০১৮ সালে ওই তথ্য ফাঁসের ঘটনা সামনে আসার পরই এই ফিচার বন্ধ করে দেয় ফেসবুক।
ফেসবুকের দাবি, এই ফিচার কাজে লাগিয়েই ডেটাবেস থেকে ফোন নম্বর সরানো হয়েছিল। সেই সব নম্বরের বেশির ভাগের এখন অস্তিত্ব নেই।
এক জনের ফোন নম্বর বেহাত হয়ে গেলে কী ভাবে তার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টসহ নানাবিধ অ্যাকাউন্ট বেহাত হয়ে যেতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন বিশেষজ্ঞরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*