১০ ফেব্র“য়ারী শহীদ মহসিন দিবস

নিউজগার্ডেন ডেস্ক : বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী যুবদল দক্ষিণ জেলার অন্যতম নেতা শহীদ মুসলেহ উদ্দিন মহসিন-এর ১৮তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে দিনব্যাপী সংগঠন, পরিবার ও Raju2বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে কর্মসূচী হাতে নিয়েছে। কর্মসূচীর মধ্যে রয়েছে ভোর ৬টায় মরহুমের কবরে পুষ্পমাল্য অর্পণ ও ফাতেহা পাঠ। বিকাল ৩ টায় চন্দনাইশ উপজেলা বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদল, শ্রমিকদল, কৃষকদল ও ওলামা দলের যৌথ উদ্যোগে মরহুমের স্মরণে আলোচনা সভায় ও দোয়া মাহফিল দলের অস্থায়ী কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হবে। মরহুমের পরিবারের পক্ষ থেকে গ্রামের বাড়ী উত্তর হাসিমপুর সৈয়দাবাদে বাদ জুহুর গরীব ও মিস্কিনদের মাঝে খিচড়ী বিতরণ করা হবে। ১১ ফেব্র“য়ারী বাদে আছর মরহুমের চট্টগ্রাম শহরস্থ ৯৩, চট্টেশ্বরী রোড বাসভবনে মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হবে। উক্ত অনুষ্ঠানে মরহুমের সহকর্মী, শুভাঙ্খাকী এবং আত্মীয়-স্বজনসহ সকলকে উপস্থিত থাকার বিনীতভাবে আহ্বান করা হয়েছে। উল্লেখ্য ১৯৯৭ সালে ১০ ফেব্র“য়ারী গাছবাড়িয়া সরকারী ডিগ্রী কলেজের সামনে আবুল হোসেন সওদাগর দোকানে রাত ৮টায় নাস্তা করার সময় হাসিমপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক খুনি আবদুর রশিদ, আবদুল মুজিদ, আবদুর রহমানের নেতৃত্বে জরুরী কথা আছে বলে ডেকে নিয়ে যায়। পরের দিন সকালে ১১ ফেব্র“য়ারী অধক্ষ মাওলানা আবদুল ছবুরের বাড়ীর পিছনে পুকুর পাড়ে গলায় তৈয়েল পেছানো লাশ পাওয়া যায। দীর্ঘ ১৮ বছর পেরিয়ে গেলেও খুনিদের বিচার এখানো হয়নি। খুনিরা প্রশাসনের নাগের ডগায় ঘুরে বেড়াচ্ছে। শহীদ মুসলেহ উদ্দিন মহসিন, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের সাবেক সহ-সভাপতি ও বিএনপি নেতা এম.এ হাশেম রাজুর একমাত্র ভাই। মরহুমের মাতা আলহাজ্ব সৈয়দা সবুরা খাতুন প্রধানমন্ত্রী, আইনমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে বিনীত আরেজ করেছেন যে, তাঁর জিবদ্দর্শায় প্রিয় পুত্রের হত্যারকারীদের গ্রেপ্তার পূর্বক ন্যায়-বিচার যাতে দেখে যেতে পারে সে জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের যথাযথ হস্তক্ষেপ কামানা করেছেন।

Leave a Reply

%d bloggers like this: