হাবিবের দ্বিতীয় সংসার ভাঙার কারণ হিসেবেও তানজিন তিশা : স্ত্রী রেহিান

নিউজগার্ডেন ডেস্ক : ০৯ জুলাই ২০১৭,রবিবার
মডেল ও অভিনেত্রী তানজিন তিশার সঙ্গে গায়ক ও সংগীত পরিচালক হাবিব ওয়াহিদের কয়েক মাস ধরে প্রেম চলছে বলে বিনোদন জগতে গুঞ্জন রয়েছে। হাবিবের দ্বিতীয় সংসার ভাঙার কারণ হিসেবেও তানজিন তিশার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক বেশি প্রভাব ফেলেছে বলেও অভিযোগ। এবার সেই গুঞ্জনে ঘি ঢাললেন সদ্য বিচ্ছেদ হওয়া হাবিবের দ্বিতীয় স্ত্রী রেহিান। নিজের ফেসবুকে একটি পোস্টে বিচ্ছেদের কারণ হিসেবে তানজিন তিশার দিকে অভিযোগের তির ছোড়েন তিনি।
ফেসবুকে দেওয়া পোস্টে তিনি তাঁর সংসার ভাঙার জন্য সরাসরি তানজিন তিশাকে দায়ী করেন।

সম্প্রতি এক ইয়াবা ব্যবসায়ীকে ঘিরে অভিনয় ও মডেলিং পেশার সঙ্গে যুক্ত কয়েকজনের নাম উচ্চারিত হচ্ছে। গণমাধ্যমে এ নিয়ে খবর প্রকাশিত হয়। প্রতিবেদনে বলা হয়, ওই ইয়াবা ব্যবসায়ীর সঙ্গে বিভিন্ন সময়ে যোগাযোগ ছিল মডেল পিয়া বিপাশা, পিয়াসা, সাবিনা ও মিথিলার। এ নিয়ে গত বৃহস্পতিবার রাতে হাবিবের সাবেক স্ত্রী রেহান ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেন। সেখানে তিনি লেখেন, ‘পিয়া বিপাশা আমাকে হার্ট করেছিল। দেখ, বছর হয়নি দুইবার তোমার নাম আসল। এখন তানজিন তিশা তোমার পালা। আসবে ভেরি সুন।’

রেহান বলেন, ‘আমার আর হাবিবের সংসার ভাঙার জন্য দায়ী পিয়া বিপাশা ও তানজিন তিশা দুজনই। তবে সবচেয়ে বেশি দায়ী তানজিন তিশা। পিয়া বিপাশা কিন্তু এরই মধ্যে ফল পাওয়া শুরু করেছে। এবার তিশার পালা। তবে এটাও ঠিক যে হাবিব যদি এদেরকে প্রশ্রয় না দিত, তাহলে তো তারাও সাহস পেত না।’ হাবিব ও তানজিন বিয়ে ছাড়া একসঙ্গে স্বামী-স্ত্রীর মতো জীবন যাপন করছেন বলেও দাবি রেহানের।

আপনাদের তো ছাড়াছাড়ি হয়ে গেছে। এখন কেন এসব বিষয় নিয়ে কথা বলছেন—এমন প্রশ্নের জবাবে রেহান বলেন, ‘আমাদের ছাড়াছাড়ি হয়ে গেছে ঠিক আছে, কিন্তু সন্তানের কারণে যোগাযোগ এখনো আছে। আমার সন্তানকে মাঝেমধ্যে যখন হাবিব দেখতে আসে, তখন তানজিন তিশার ফোনের অত্যাচারে বেশিক্ষণ থাকতে পারে না। আমি হাবিবকে এসব বিষয় নিয়ে প্রশ্ন করলে সে শুধু বলত, ঠিক হয়ে যাবে। আমি দেখছি।’

২০১১ সালে ১২ অক্টোবর চট্টগ্রামের মেয়ে রেহান চৌধুরীর সঙ্গে পারিবারিকভাবে বিয়ে হয় গায়ক ও সংগীত পরিচালক হাবিব ওয়াহিদের। পাঁচ বছরের দাম্পত্য জীবনে ২০১২ সালে ২৪ ডিসেম্বর তাঁদের ঘর আলোকিত করে আসে একমাত্র সন্তান আলিম। এ বছরের ১৯ জানুয়ারি তাঁদের আনুষ্ঠানিক বিচ্ছেদ হয়ে যায়। পুরোনো দিনের কথা মনে করে রেহান বলেন, ‘ভাবতে অবাক লাগে, এই হাবিবই একটা সময় আমাকে বলত, মিস ওয়ার্ল্ডকে পেলেও আমাকে ছাড়বে না। সেই হাবিবই কিনা এখন অন্যের কথায় ওঠবস করছে। ভাগ্যের কী নির্মম পরিহাস! আমাকে উল্টাপাল্টা মেসেজ পাঠিয়ে বলা হয়, আমি নাকি আলিমকে (হাবিব-রেহানের সন্তান) দিয়ে হাবিবকে মানসিকভাবে ব্ল্যাকমেল করছি!’

 

হাবিব ওয়াহিদ ও রেহান চৌধুরী
সাবেক স্ত্রী রেহান যখন তানজিন তিশা ও পিয়া বিপাশাকে নিয়ে মুখ খুললেন, তখন হাবিব অস্ট্রেলিয়া থেকে তাঁর ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে নিজের অবস্থান পরিষ্কার করে একটি পোস্ট দেন। তাতে তিনি বলেন, ‘ডিভোর্সের কয়েক মাস পর এসব কথা রেহানই বলল, এটাও আমার কাছে আশ্চর্যজনক। বলার হলে আরও আগেই বলত। কারণ যা-ই হোক না কেন, আমি তো জোর করে ডিভোর্স করতে বলিনি তাঁকে। সমঝোতার মাধ্যমেই তা হয়। তাহলে এখন এত কাদা ছোড়াছুড়ি কেন? এসব করে কারওই তো কোনো লাভ আমি দেখি না।’

হাবিবের সাবেক স্ত্রীর রেহানের অভিযোগের তির যাঁর দিকে, সেই তানজিন তিশার সঙ্গে আজ রোববার সকালে কথা হয়। তিনি বলেন, ‘হাবিবের স্ট্যাটাসের পর অনেকে যা বোঝার বুঝে যাওয়ার কথা। হাবিবের সাবেক স্ত্রীকে নিয়ে বলতে গেলে অনেক কিছু বলা যায়। কিন্তু আমি তা বলব না। তার প্রতি শ্রদ্ধা রেখেই বলছি, তার যদি হাবিবের সঙ্গে এতই সমস্যা থাকে, তাহলে ডিভোর্সের সময় বা তার আগে কেন বলল না। আর সমস্যা থাকলে তো মিউচুয়ালি ডিভোর্স হওয়ার কথা নয়। এখন যদি হঠাৎ করে এসব কথা ওঠানো হয়, এটা কাদা ছোড়াছুড়ি ছাড়া আর কিছু নয়। আর হাবিবের সঙ্গে ডিভোর্স হওয়ার পর আমি কেন রেহানকে ভয়ভীতি দেখাব।’

এদিকে তানজিন তিশা বলেন, একটা সময় কিন্তু রেহানের সঙ্গে আমার খুব ভালো সম্পর্ক ছিল। সেটা আস্তে আস্তে খারাপের দিকে চলে যায়।’ কী কারণে আপনাদের সম্পর্ক খারাপ হয়—এ প্রশ্নের জবাবে তানজিন তিশা বলেন, ‘তা আমি জানি না।’

হাবিবের সঙ্গে আপনার প্রেমের সম্পর্কের কারণেই কি এমনটা হয়েছে?—তানজিন তিশা বলেন, ‘আমি এসব নিয়ে কথা বলব না। আমি বলতে চাইও না। তবে আমি এটা বলতে চাই, রেহানের সঙ্গে যদি আমার কিছু হয়েই থাকে, তাহলে সে তাঁর স্বামীকে (সাবেক স্বামী) বলবে। আমার সঙ্গে কেন খারাপ ব্যবহার করবে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*