হল খোলা রাখার দাবিতে প্রশাসন ভবন ঘেরাও

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ২৭ ডিসেম্বর: শীতকালীন ছুটিতে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলগুলো খোলা রাখার দাবিতে প্রশাসন ভবন ঘেরাও করে বিক্ষোভ করছেন শিক্ষার্থীরা। রোববার বেলা সাড়ে ১১টা থেকে প্রশাসন ভবনের মূল ফটক অবরুদ্ধ করে রাখা হয়েছে। আগামী ১ থেকে ১৪ জানুয়ারি পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে শীতকালীন ছুটি। এ সময় ক্লাস-পরীক্ষাসহ সব ধরনের একাডেমিক কার্যক্রম বন্ধ থাকবে।Hall
প্রশাসনিক কার্যক্রম বন্ধ থাকবে ২ থেকে ৭ জানুয়ারি পর্যন্ত। ৮ জানুয়ারি বিসিএস পরীক্ষা থাকায় শিক্ষার্থীরা এই ছুটিতে হল খোলা রাখার দাবিতে এ বিক্ষোভ করছেন। ক্যাম্পাস সূত্রে জানা যায়, আজ বেলা ১১টা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন হল থেকে মিছিল নিয়ে প্রশাসন ভবনের সামনে জড়ো হতে থাকেন শিক্ষার্থীরা। আন্দোলনে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে যোগ দেয় বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ। প্রশাসন ভবনের মূল ফটকের সামনে বক্তব্য দেন ছাত্রলীগের নেতা কর্মীরা।
মাইকে বলা হচ্ছে, হল খুলে রাখার দাবি মেনে না নেয়া পর্যন্ত আন্দোলন অব্যাহত থাকবে। এদিকে প্রশাসন ভবনের ফটক বন্ধ থাকায় বিপাকে পড়েছেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। জরুরি প্রয়োজনেও প্রশাসন ভবনে কেউ ঢুকতে বা বের হতে পারছেন না। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাধ্যক্ষ পরিষদের আহ্বায়ক শিউলি শামিম শান্তা জানান, প্রাধ্যক্ষ পরিষদের পক্ষ থেকে আবাসিক হলগুলো ৩১ ডিসেম্বর থেকে ৯ জানুয়ারি পর্যন্ত বন্ধ রাখার সুপারিশ করা হয়েছিল।
কিন্তু আগামী ৮ জানুয়ারি বিসিএস পরীক্ষা থাকায় পরীক্ষার্থীদের কথা চিন্তা করে প্রশাসনের পক্ষ থেকে ৭ জানুয়ারি হল খুলে দেয়ার জন্য আহ্বান জানানো হয়। সে অনুযায়ী আগামী ৩১ ডিসেম্বর বেলা ১২টার মধ্যে শিক্ষার্থীদের হল ছাড়তে হবে এবং ৭ জানুয়ারি সকাল ৯টায় হলগুলো খুলে দেয়া হবে। এর আগে গতকাল শনিবার বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা যাতে বিসিএসসহ অন্যান্য প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় ভালো করতে পারে, সে বিষয়ে কর্তৃপক্ষ কোনোরকম সহযোগিতার পরিবর্তে শীতকালীন ছুটির অজুহাতে হল খালি করে পরীক্ষার্থীদের বিপাকে ফেলে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।’ ছুটি চলাকালে ছাত্রলীগের নেতা কর্মীরা সাধারণ শিক্ষার্থীদের নিয়ে হলে অবস্থান করবেন বলে ওই বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়।
এ ছাড়া হল খোলা রাখার দাবিতে প্রত্যেক হলের সাধারণ শিক্ষার্থীদের গণস্বাক্ষরও গ্রহণ করেছেন ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা। হল বন্ধ রাখার সিদ্ধান্তের নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে প্রগতিশীল ছাত্রজোট গতকাল শনিবার সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে, ১ থেকে ৮ জানুয়ারি পর্যন্ত হল বন্ধ রাখার যে সিদ্ধান্ত প্রভোস্ট কাউন্সিলের মিটিং-এ নেয়া হয়েছে তার প্রতিবাদ জানানো হয়। একই দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি সোহেল রানা স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় সাংস্কৃতিক জোট প্রশাসনের এ সিদ্ধান্ত ছাত্র বান্ধব হিসেবে মনে করছে না।’ তারা প্রশাসনের এ ধরনের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করার জোর দাবি জানায়।
আন্দোলনের বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মুহম্মদ মিজানউদ্দিন বলেন, ‘রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রেক্ষাপটে সার্বিক পরিস্থিতির কারণে ছুটির সময় আবাসিক হলগুলো বন্ধ রাখা হয়। বিসিএস পরীক্ষার্থীদের কথা বিবেচনা করে এবার হল বন্ধের সময় কমানো হয়েছে। তারপরও যে আন্দোলন চলছে তা অযৌক্তিক।’ সূত্র: শীর্ষ নিউজ

Leave a Reply

%d bloggers like this: