সেনাপ্রধানকে নিয়ন্ত্রণে নিচ্ছেন এরদোগান

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ৩১ জুলাই, রবিবার: তুরস্কের সামরিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ করে দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান। একই সঙ্গে গোয়েন্দা সংস্থা ও সেনাপ্রধানকে নিজের নিয়ন্ত্রণে নিচ্ছেন বলে জানিয়েছেন তিনি। আজ রোববার এরদোগান বিবিসিকে বলেন, তাঁর এ প্রস্তাবগুলো পার্লামেন্টে উত্থাপন করা হবে।a
গত ১৫ জুলাই সেনা অভ্যুত্থান চেষ্টার পরিপ্রেক্ষিতে বিরোধীপক্ষকে দমনের প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে এ উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। অভ্যুত্থানচেষ্টায় অন্তত ২৪৬ জন নিহত হন। তুরস্ক বলছে, অভ্যুত্থান চেষ্টার পেছনে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত মুসলিম পণ্ডিত ফেতুল্লাহ গুলেনের হাত রয়েছে। তবে গুলেন তা অস্বীকার করেছেন।
প্রেসিডেন্ট এরদোগান বলেন, ‘আমরা একটি নতুন সাংবিধানিক প্যাকেজ নিয়ে আসতে যাচ্ছি। এটা পার্লামেন্টে অনুমোদন হলে জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থা (এমআইটি) ও সেনাপ্রধান রাষ্ট্রপতির নিয়ন্ত্রণে আসবে, সামরিক বিদ্যালয়গুলো বন্ধ হয়ে যাবে। আমরা একটি জাতীয় প্রতিরক্ষা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করব।’
অভ্যুত্থানচেষ্টার ঘটনায় এ পর্যন্ত ৬৬ হাজার চাকরিজীবীকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে এবং ৫০ হাজার পাসপোর্ট বাতিল করা হয়েছে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ১৪২টি সংবাদমাধ্যম বন্ধ করে দিয়েছে এবং বেশ কয়েকজন সাংবাদিককে গ্রেপ্তার করেছে। তিন মাসের জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে সারাদেশে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: