সেই দুর্নীতিবাজ প্রকৌশলী আবার সাতকানিয়ায়!

দক্ষিণ চট্টগ্রাম প্রতিনিধি, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৯ ইংরেজী, মঙ্গলবার: সেই দুর্নীতিবাজ উপজেলা প্রকৌশলী আবার সাতকানিয়ায় সম্প্রতি যোগদান করেছেন। তার বিরুদ্ধে অনিয়ম দুনীতির পাহাড় সমান অভিযোগ থাকায় সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ তাকে রাঙ্গামাটির কাউখালীতে বদলী করেন। তার নাম পারভেজ সরওয়ার। সূত্রমতে অভিযোগ ছিল খোদ জনৈক সংসদ সদস্যের। তিনি ওই সময় তিন বছরে অধিককাল অফিস ঝেকে বসে অফিসকে হোটেল বানিয়ে হ য ব র ল পরিণত করেছিল। তার এসব কর্মকান্ড জনৈক এমপি’র কানে গেলে তিনি তার উপর অসন্তোষ্ট হন। এরপরক্ষণে তিনি বদলী হন। ইত্যবসরে এই অফিসে রাঙ্গামাটি থেকে সোলায়মান নামে এক প্রকৌশলী সাতকানিয়ায় যোগদান করেন। তিনি দায়িত্ব পালনের সময় দালাল চক্রের শিকার হয়। জানা যায় ১৪ আসনের সংসদ সদস্যের একটি নির্দ্দিষ্ট প্রকল্পের কাজ সঠিক জায়গায় না করে দালালের কথা মোতাবেক অন্য স্থানে সম্পন্ন করে। এই বদনাম নিয়ে তিনি এখানে বেশী স্থায়ী হতে পারেনি। এরপর এখানে পোষ্টিং দেয়া হয় সদ্য লেখাপড়া সম্পন্ন প্রকৌশলী নাশিত হাসান সিরাজীকে। তিনি যোগদান করার পর অফিসে পুরোদমে প্রাণচাঞ্চল্য ফিরে আসে। কিন্তু কে যেন কাল হয়ে দাড়াঁয়। তিনি এখানে বেশী দিন ঠিকতে পারেনি। ছয় মাসের মাথায় তিনি পার্বত্য জেলা রাঙ্গামাটিতে বদলী হন। দক্ষ ও অভিজ্ঞতা সম্পন্ন প্রকৌশলী থাকার পরও বার বার উক্ত প্রকৌশলী পারভেজ একই কর্মস্থলে পোষ্টিং দেয়ায় যেমন রাষ্ট্রীয় সম্পদ তছরুপ হচ্ছে তেমনি ক্ষতি হচ্ছে এলাকার উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ড। সরকার গ্রামীণ অবকাঠামোর জন্য প্রতি বছর কোটি কোটি বরাদ্দ দিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তা কর্মচারীর কারণে সরকারের উদ্দেশ্য বাধাগ্রস্থ হতে চলেছে। সূত্রমতে এই প্রকৌশলী জামায়াত শুভাকাঙ্খী। তিনি পূর্বে এখানে দায়িত্ব পালনকালীন নতুন অর্থবছরে টাকা ভাগবাটোয়ারার পায়তারার সময় জনৈক ছাত্রলীগ নেতা অফিসে হাকা বকা করেছিলেন। এছাড়া তিনি এমপি নজরুল ইসলাম চৌধুরী সুপারিশকৃত একটি দরখাস্তের কাজ করেননি। কাজ করা তো দূরের কথা আবেদনের জবাব পর্যন্ত দাখিল করেনি। অথচ আবেদনটি ছিল এলাকাবাসীর মঙ্গলার্থে। তার সাথে জামায়াতের উপজেলা চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিনের সাথে সখ্যতা থাকার কারণে কাজটি করেনি বলে তাদের দাবি। তিনি জনসাধারণের কাছে সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: