সীতাকুণ্ড প্রেসক্লাবে বিদ্রোহী প্রার্থীর সংবাদ সম্মেলনে ছাত্রলীগ-যুবলীগের হামলা

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ২৮ ডিসেম্বর: চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে পৌরসভা নির্বাচনে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী বদিউল আলম ও বিদ্রোহী প্রার্থী নায়েক (অব.) সফির বিরোধকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগ-যুবলীগের কর্মীরা সীতাকুণ্ড প্রেসক্লাবে ককটেল হামলা ও ভাঙচুর চালিয়েছে। এসময় ককটেল বিস্ফোরণে ৫ সাংবাদিক আহত হয়েছেন।ctg
আহত সাংবাদিকা হলেন, দৈনিক যুগান্তর প্রতিনিধি সৈয়দ ফোরকান আবু, প্রেসক্লাব আহ্বায়ক এম হেদায়েত, দৈনিক ইত্তেফাকের দিদারুল ইসলাম টুটুল, মানবজমিন প্রতিনিধি আব্দুল্লাহ আল ফারুক, দৈনিক দিনকালের জাহাঙ্গীর আলম।
আজ রোববার রাত সোয়া ৮টার দিকে এ হামলা ঘটনা ঘটেছে। এসময় হামলাকারীরা প্রেসক্লাব লক্ষ্য করে পরপর ৫টি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটনায়। এসময় তারা একটি রকেট লাঞ্চার নিক্ষেপ করলেও তা বিস্ফোরণ ঘটেনি।
হামলার পর যুব ও ছাত্রলীগের লোকেরা প্রেসক্লাব বেশ কিছুক্ষণ অবরুদ্ধ করে রাখে। ফলে প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করতে আসা আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী নায়েক (অব.) সফিউল আলমসহ ২০/২৫ জন সাংবাদিক এসময় প্রেসক্লাবে প্রায় এক ঘণ্টা অবরুদ্ধ হয়ে পড়েন। পরে পুলিশ গিয়ে হামলাকারীদের সরিয়ে দেয় এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।
ঘটনার পরপরই রিটার্নিং অফিসার ও সীতাকুণ্ড ইউএনও নাজমুল ইসলাম ভূঁইয়া, ওসি ইফতেখার হাসান ঘটনাস্থলে যান। নাজমুল ইসলাম ভূঁইয়া জানান, হামলা খবর পেয়ে আমি প্রেসক্লাবে এসেছি। সাংবাদিকদের সাথে কথা বলেছি, আমরা দেখছি এব্যাপারে কি পদক্ষেপ নেয়া যায়।
এদিকে সীতাকুণ্ড থানার ওসি ইফতেখার হাসানকে মোবাইলে বার বার ফোন দেয়ার তিনি ফোন রিসিভ করে সাংবাদিক পরিচয় দেয়ার পর সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেন।
সাংবাদিকরা জানান, পুলিশ এসে প্রেসক্লাব থেকে অবিস্ফোরিত ২টি ককটেল উদ্ধার করেছে। সুষ্ঠু নির্বাচনে সাংবাদিকদের সহযোগিতা চেয়ে আওয়ামী লীগ প্রার্থী বদিউল আলম সংবাদ সম্মেলন করে চলে যাওয়ার কিছুক্ষণ পর বিদ্রোহী প্রার্থী নায়েক (অব.) সফি সংবাদ সম্মেলন করতে এলে তিনি প্রেসক্লাবে প্রবেশ করার সাথে সাথে বদিউল আলমের সমর্থিত শতাধিক ছাত্রলীগ যুবলীগ জয়বাংলা শ্লোগান দিয়ে প্রেসক্লাবে হামলা চালায় বলে জানান প্রেসক্লাবের আহ্বায়ক এম হেদায়েত। অভিযোগের ব্যাপারে জানতে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী বদিউল আলমের মোবাইল ফোনে চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি। সূত্র: শীর্ষ নিউজ

Leave a Reply

%d bloggers like this: