সাতকানিয়ায় বিদ্যুৎ স্পৃষ্ট হয়ে ২জনের মৃত্যু

এম এম রাজা মিয়া রাজু, ২০ মে ২০১৭, শনিবার: সাতকানিয়ার কেরানীহাট ও এওচিয়া দেউদীঘি এলাকায় সাহেব মিয়ার বাড়ীতে বিদ্যুৎ স্পৃষ্ট হয়ে দুই জ্যান্ত মানুষের  করুণ মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে একজন তৃতীয় শ্রেণী পড়–য়া ছাত্র সাইফুল আলম সানি(১০) কিশোর খোরশেদ আলম ইরফান (১৭)। ইরফান কেরানীহাট নিউমার্কেটের একটি দোকানের কর্মচারী। তার বাড়ী বাশঁখালী চাম্বল। সানির বাড়ীতে ১৫ মে দিবাগত রাত বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। গভীর রাতে ঘুমের মগ্নে আগুনের ধোয়াঁয় ঘর থেকে বের হতে না পেরে  অগ্নিদগ্ধ হয়ে সে মারা যায়। তার শরীর অঙ্গার হয়ে যায়। অপরদিকে ২৯ এপ্রিল সকাল ১০টায় মনির টাওয়ার ও তাজনোভা ওশান সিটি নির্মাধীন মার্কেটের ছাদে  ৩৩হাজার ভোল্টেজ লাইনের আর্কষনে কাকের মত বিকটশব্দে ইরফানের মৃত্যু ঘটে। অভিযোগ রয়েছে  বিদ্যুৎ বিভাগের  যোগসাজশে তাজনোভা ওশান সিটির মালিক মোহাম্মদ আলী ও  মনির টাওয়ারের মালিক মনু ড্রাইভার ৩৩ হাজার বিদ্যুৎ লাইনের খাম্বার তাদের মার্কেটের ভেতর ঢুকিয়ে রেখেছে। মার্কেটের ছাদের সাথে লাগোয়া বিদ্যুৎ লাইন। কেউ কোন কারণে ছাদে উঠলে মৃত্যু অনিবার্য হবে বলে জানা যায়। কারণ শক্তিশালী বিদ্যুৎ লাইনে উক্ত ব্যক্তিকে আকর্ষন করবে। সূত্রমতে ইতিপূর্বে ও কেরানীহাট গণি মার্কেটে  অনুরুপ মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। তাদের মৃত্যুর দায়িত্ব কেউ নেয়নি।  বরঞ্চ একটিমহল এসব মৃত্যু নিয়ে বানিজ্য করেছে বলে সূত্রেপ্রকাশ। এলাকার কতিপয় ব্যক্তি রাতারাতি কালো টাকার মালিক বনে সরকারী কিংবা নিরীহ লোকের জায়গা জমি  জবর দখলের প্রতিযোগিতায় নেমেছে। এসব চোরাকারবারীদের সহযোগিতা করে  সমাজের লুঠেরা ব্যক্তি। জানা যায়  বিদ্যুৎ বিভাগের দুর্নীতিবাজ  কর্মকর্তা কর্মচারী বিদ্যুৎ নিয়ে প্রতিনিয়ত দুর্নীতির লাগাম টানছে। এতেও  টাকার মোহ সামলাতে না পেরে মৃত্যুর ফাঁদ ৩৩হাজার  বিদ্যুৎ লাইনরে খাম্বা নিয়ে কালো টাকার মালিকদের সাথে ব্যবসায় নেমেছে। তাদের অবৈধ ব্যবসার কবলে পড়ে নিরীহ শিশু কিশোর বৃদ্ধ মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে। তাদের এই অনাকাঙ্খিত মৃত্যু স্বজনদের মেনে নেয়ার মত নয়। সাতকানিয়া পৌর সভা ও বিওসির মোড়  (দোহাজারী) বিদ্যুৎ অফিসে দুর্নীতির বাসা বেধেঁছে। এখানকার কতিপয় কর্মকর্তা ও লাইন দুর্নীতি করে  কোটি টাকার মালিক বনে যাওয়ার অভিযোগ রয়েছে। যাদের এক সময় নুন আনতে পানতা ফুরার অবস্থা ছিল। তারা সরকারী সম্পদ আতœসাৎ করে এখন এলাকায় যা ইচ্ছা তা করে যায় বলে অভিযোগ উঠেছে। এদিকে যারা টাকার জোরে যেখানে সেখানে শক্তিশালী বিদ্যুৎ লাইন টাঙ্গিয়ে মৃত্যু নিয়ে ছিনিমিনি খেলছে তাদের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা নেয়ার এলাকায় গণদাবি উঠেছে। সম্প্রতি কেরানীহাটে ঘটে যাওয়া ঘটনাস্থল চট্টগ্রাম আসনের সংসদসদস্য আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম চৌধুরী পরিদর্শন করেছেন। এসময় তিনি এই মর্মান্তিক ঘটনার জন্য দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য নির্দেশ দেন। এই ঘটনার জন্য উক্ত দুই মার্কেট মালিক  মোহাম্মদ আলী ও মনির আহমদ প্রকাশ মনু ড্রাইভারকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে। মনু ড্রাইভার জেলে থাকলে ও মোহাম্মদ আলী বের হয়ে এসেছেন বলে জানা গেছে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: