সরকার সর্বনাশা নির্মূল যুদ্ধে নেমেছে : রিজভী

নিউজগার্ডেন ডেস্ক : বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ বলেছেন, ভোটার বিহীন সরকার বর্তমানে দেশকে জাহান্নামের দ্বারপ্রান্তে টেনে নিয়ে এসেছেন।Ruhul সুদৃঢ় রাষ্ট্রের বন্ধনগুলোকে ছিঁড়ে ফেলে বাংলাদেশকে একটি ভঙ্গুর রাষ্ট্রে পরিণত করার জন্য যা যা করা প্রয়োজন এ সরকার তা সবই করছে। আজ (বুধবার) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, ২০০৯ সালে ক্ষমতায় এসে জ্যেষ্ঠতা ও দক্ষতাকে ডিঙ্গিয়ে আওয়ামী পন্থী পুলিশ ও অন্যান্য আইন প্রয়োগকারী সংস্থার কর্মকর্তাদের স্ব-স্ব^ বিভাগের প্রধান পদে অথবা অন্যকোনো গুরুত্বপূর্ণ পদে আসীন করেছেন। দেশের বিরোধী দলের আন্দোলন দমাতে এরা সর্বনাশা নির্মূল যুদ্ধে নেমে পড়েছে। দেশব্যাপী ক্রসফায়ার আর বন্দুক যুদ্ধের মনগড়া কাহিনী তৈরি করে আন্দোলনরত তরুণ নেতাকর্মীদের মায়ের কোল থেকে ছিনিয়ে নিয়ে হত্যা করা হচ্ছে। রিজভী বলেন, আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলো নিজেদের স্বার্থেই এ অবৈধ সরকারের স্বার্থ রক্ষা করছে। যেখানে আইনে সুস্পষ্টভাবে বলা আছে রাষ্ট্রের কর্মচারীরা নিরপেক্ষভাবে দায়িত্ব পালন করবে। কিন্তু এখন দেখা যাচ্ছে সরকারের বেআইনি রাজনৈতিক এজেন্ডা সফল করার কাজে তারা উঠেপড়ে লেগেছে। আর সেজন্যই দেখা যাচ্ছে আওয়ামী লীগের উচ্চ পর্যায়ের নেতাদের হুমকি-ধামকির সঙ্গে সুর মিলিয়ে আইন প্রয়োগকারী সংস্থার প্রধান কর্তারা কথা বলছেন। আইন প্রয়োগকারী সংস্থার কেউ কেউ ক্ষমতাসীনদের হুমকির প্রতিধ্বনি করে প্রকাশ্যে গুলি করার কথা বলছেন, আবার কেউ বেগম খালেদা জিয়াকে রাজনীতির সবক দিচ্ছেন। ঔদ্ধত্য ও ধৃষ্টতা কত চরম সীমায় গিয়ে পৌঁছলে তিন তিন বারের প্রধানমন্ত্রী সম্পর্কে এখতিয়ার বহির্ভুত কথা বলতে পারেন কোন আইন প্রয়োগকারী সংস্থার কর্তা ব্যক্তিরা? তিনি বলেন, বাংলাদেশে বিরোধী দল ও জোটের আন্দোলন রাষ্ট্রের দমনমূলক শক্তি দিয়ে সমাধানহীন রক্তঝরা হানাহানির দিকে ঠেলে দেয়া হয়েছে। রাজপথে মানুষের ধেয়ে আসা স্্েরাতকে আটকাতে না পেরে পেট্রল বোমা ছুঁড়ে মানুষকে পুড়িয়ে মারার এক অমানবীয় নাশকতার মরণখেলায় তারা মেতে উঠেছে। আর এর দায় বিরোধী দলের ওপর চাপানো হচ্ছে। বিগত ছয় বছর ধরে দলীয় চেতনার মালিকানায় বেশ কয়েকটি গণমাধ্যম গড়ে তোলা হয়েছে একদলীয় দু:শাসনের সাফাই গাওয়ানোর জন্য। রিজভী আরো বলেন, তথ্যমন্ত্রী হুমকি দিয়ে বলেছেন, বেগম জিয়ার জন্য কাশিমপুর কারাগারে জায়গা করে রাখা হয়েছে। বেগম জিয়াকে গ্রেফতার ও বিচারের হুমকি দিয়ে হাসানুল হক ইনুরা দেশকে নিয়ে যেতে চাচ্ছেন চরম সংঘাতের দিকে। যদি বেগম জিয়ার বিরুদ্ধে মামলা ও তাকে গ্রেফতারের ষড়যন্ত্র করা হয়, চলমান গণতন্ত্র পুণ:রুদ্ধারের আন্দোলনের ওপর আক্রমণ বন্ধ না করা হয়, মত প্রকাশের স্বাধীনতাকে যদি প্রসারিত না করা হয়, গুলি করে হত্যা করা না থামান তাহলে বিরোধী দল লড়াই থেকে সরে দাঁড়াবে না।

Leave a Reply

%d bloggers like this: