সরকারকে মৃত্যুদণ্ড বন্ধ চেয়ে লিগ্যাল নোটিশ

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১২ মে: মৃত্যুদণ্ড রহিত চেয়ে সরকারের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের প্রতি লিগ্যাল নোটিশ পাঠিয়েছেন সুপ্রিমকোর্টের এক আইনজীবী। বৃহস্পতিবার সকালে ডাক ও রেজিস্ট্রিযোগে সরকারের কেবিনেট সচিব, আইন সচিব ও স্বরাষ্ট্র সচিবের প্রতি এই নোটিশ পাঠায় বলে জানান আইনজীবী ইউনুছ আলী আকন্দ।
নোটিশ পাঠানোর বিষয়টি নিশ্চত করেন আইনজীবী নিজেই। নোটিশে আইন রহিত করার জন্য ২৪ ঘন্টার সময় বেঁধে দেয়া হয়েছে অন্যথায় হাই কোর্টে রিট আবেদন করা হবে বলে জানান আইনজীবী ইউনুছ আলী আকন্দ।law
তিনি বলেন, পৃথিবীর প্রায় একশত ৪০টি দেশে মৃত্যুদণ্ডের সাজা নেই। ইউরোপের রাশিয়া ব্যতীত সকল দেশেই মৃত্যুদণ্ডের সাজা নেই। তাই দেশের সকল আইন থেকে মৃত্যুদণ্ড বন্ধ করার জন্য বলা হয়েছে।
ইউনুছ আলী আরও বলেন, এমনকি আমাদের পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতের ইন্ডিয়ান সুপ্রিমকোর্টের আইনেও মৃত্যুদণ্ড নেই। তিনি বলেন, আমাদের সংবিধানের ধারায় স্পষ্ট করে উল্লেখ নেই কোন ধরনের অপরাধের জন্য মৃত্যুদণ্ড সাজা কার্যকর করা হবে।
নোটিশে বলা হয়,বিশ্বের ১৪০ টি দেশের আইন থেকে মৃত্যুদণ্ড উঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। তাই সাজা হিসেবে মৃত্যুদণ্ডকে নিষ্ঠুর, অমানবিক উল্লেখ করে তা বাতিল চাওয়া হয়েছে। অ্যামনেস্টির তথ্য মতে, এখন পর্যন্ত ১৪০টি দেশ মৃত্যুদন্ড আইনগতভাবে বা প্রথা হিসেবে বাতিল করেছে।
২০০৪-২০১৩ পর্যন্ত দশ বছরে মৃত্যুদন্ড বিলোপকারী দেশের সংখ্যা বেড়েছে। ২০১৩-র শেষে বিশ্বের মোট ৯৮টি দেশ মৃত্যুদন্ড দেওয়ার আইন তুলে দিয়েছে। ২০০৪-তে মৃত্যুদন্ড নিষিদ্ধ ছিল ৮৫টি দেশে। অবশ্য কিছু দেশে আইনত মৃত্যুদন্ড চালু থাকলেও তা কার্যকর করা হয় না। এই ধরনের দেশের সংখ্যা ৫২। অর্থাৎ মোট (৯৮+৫২) ১৪০টি দেশে এখন মৃত্যুদন্ড হয় আইনত নিষিদ্ধ অথবা নিষিদ্ধ না হলেও মৃত্যুদন্ড কার্যকর করা হয় না। ৫৮টি দেশে এখনো মৃত্যুদন্ডের বিধান আছে। এ পরিসংখ্যানে আছে বাংলাদেশের নাম। বাংলাদেশের আশপাশের দেশগুলোর মধ্যে ভুটান, নেপাল, মিয়ানমার ও মরিশাস মৃত্যুদন্ড বিলোপ করেছে। শ্রীলংকা, মালদ্বীপে মৃত্যুদন্ডের বিধান থাকলেও কোনো মৃত্যুদন্ড কার্যকর করা হচ্ছে না।
গত ৫ মে বৃহস্পতিবার আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক মৃত্যুদণ্ড নিয়ে ইউরোপীয়দের সঙ্গে কথা বলার এক সপ্তাহ পরে এমন নোটিশ দেন এই আইনজীবী। ওই দিন আইনমন্ত্রী বলেছিলেন ভবিষ্যতে নতুন আইন করলে তাতে সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড রাখা হবে না। তবে বর্তমানে যে সকল আইনে মৃত্যুদণ্ডের বিধান রয়েছে তা প্রত্যাহার হবে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*