সমাজ সমীক্ষা সংঘের লোকসংস্কৃতি উৎসব’র সংবাদ সম্মেলন

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১ ফেব্র“য়ারী: সম্প্রীতির অক্ষয় আধার আমাদের লোকসংস্কৃতি। শত বৈচিত্র্যের মাঝেও আমরা লোকসংস্কৃতিতে ঐক্যের সুর খুঁজে পাই। মানুষের আনন্দ-বেদনা, স্বপ্ন-সাধনা, প্রতিবাদী চেতনা, শিল্প-সাহিত্যকে হাজার বছর ধরে আঁকড়ে আছে আমাদেরDSC_0366 লোকসংস্কৃতি। তবুও আমরা মাঝে মাঝে বিভ্রান্ত হই, থমকে দাঁড়াই কিন্তু লোকসংস্কৃতির অন্তর্নিহিত শক্তি ও মানুষের ঐক্যের বন্ধনে আবার পথ খুঁজে পাই। সমাজ, রাজনীতি, অর্থনীতি ও সংস্কৃতি বিষয়ক গবেষনাধর্মী সংগঠন সমাজ সমীক্ষা সংঘ আয়োজন করতে যাচ্ছে ৫ম লোকসংস্কৃতি উৎসব ২০১৬। জ্বালাও আলো, আপন আলো শ্লোগানে অনুষ্ঠিতব্য লোক সংস্কৃতি উৎসবের প্রথম দিনে সকাল ৯টায় ডিসি হিল চত্বরে অনুষ্ঠিত হবে উন্মুক্ত শিশু চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা। উদ্বোধন করবেন অধ্যাপক শিল্পী মনসুর উল করিম । বিকাল ৩টায় বর্ণাঢ্য উদ্বোধনী র‌্যালি শহীদ মিনার থেকে শুরু হয়ে ডিসি হিলে এসে শেষ হবে এবং সাড়ে ৩টায় সমাজ সমীক্ষা সংঘের সাংস্কৃতিক দলের পরিবেশনার মধ্য দিয়ে শুরু হবে ফরটিস গ্র“প লোক সংস্কৃতি উৎসব ২০১৬ এর বর্ণাঢ্য উদ্বোধন। ৫ ফেব্র“য়ারি বিকাল ৩:৪৫টায় উৎসবের উদ্বোধন ঘোষণা করবেন মাননীয় জেলা প্রশাসক মেজবাহ্ উদ্দিন। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক বিশিষ্ট লোক গবেষক সৈয়দ আজিজুল হক।
এই উপলক্ষে আজ সকাল ১১টায় চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। সমাজ সমীক্ষা সংঘের সভাপতি কাজী মাহমুদ ইমাম বিলুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত সংবাদ সম্মেলনে অনুষ্ঠানের সার্বিক কর্মসূচী ও আঙ্গিক তুলে ধরেন উৎসব কমিটির চেয়ারম্যান আবু তাহের মাসুদ। সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যর মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের নির্বাহী পরিচালক আহমেদ খসরু, নির্বাহী সভাপতি আমিনুল ইসলাম, লালখানবাজার ওয়ার্ড কাউন্সিলর জনাব এফ. কবির মানিক, উৎসব কমিটির আহবায়ক আবুল হাসনাত মোঃ বেলাল, পরিচালক দেবাশীষ রায়, শিহাব চৌধুরী বিপ্লব, আব্দুল্লাহ হাসান পিকু, নূর নাহার কুমকুম, তাপস রায় প্রমুখ। সংবাদ সম্মেলন পরিচালনা করেন উৎসব কমিটির সদস্য সচিব কল্লোল দাশ।DSC_0369
বক্তারা বলেন, সমাজ সমীক্ষা সংঘ তার কাজের ধারাবাহিকতায় এবারও আয়োজন করেছে লোকসংস্কৃতি উৎসব ২০১৬। এর পূর্বে ২০১০ থেকে ১৩ পর্যন্ত অত্যন্ত সফলতার সাথে আমরা ৪টি লোকসংস্কৃতি উৎসব আয়োজন করেছি। আকাশ সংস্কৃতির আগ্রাসন আর প্রলোভনের যুগে আমাদের সংস্কৃতির মূল প্রাণ লোক সংস্কৃতি আজ হুমকির মুখে। আমরা বিদেশের সাথে সংস্কৃতি আদান প্রদানের বিরুদ্ধে নই, কিন্তু আমাদের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যকে সমুন্নত রেখে তা করার পক্ষে। আমাদের মাটিবর্তী মানুষের শত শত বছর ধরে ধারণ করে আসা এই লোকায়ত সংস্কৃতিকে আমাদেরকেই রক্ষা করতে হবে, কারণ সেইসব চিরায়ত ঐতিহ্য ছাড়া আমাদের সংস্কৃতি, আমাদের অস্তিত্ব চরম সংকটের মুখে পড়বে। আমাদের নতুন প্রজন্মসহ সকল স্তরের মানুষকে নিজের কৃষ্টি-সংস্কৃতি, ঐতিহ্য সম্বন্ধে জানতে হবে, লালন করতে শিখতে হবে, অপরকে জানাতে ও শেখাতে হবে। পৃথিবীর খুব কম দেশেই আমাদের মতো সমৃদ্ধ সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য রয়েছে। সুতরাং দেশীয় সংস্কৃতির এই নির্যাসকে রক্ষার জন্য প্রয়োজন এর ব্যাপক প্রচার ও প্রসার। আমাদের সকলের উচিত প্রজন্ম থেকে প্রজন্মে এ নির্যাসকে ছড়িয়ে দেয়া। বিগত আয়োজনগুলোর মত এ আয়োজনেরও উদ্দেশ্য হচ্ছে আরো একবার নিজের মাটির দিকে ফিরে তাকানো ও আত্মপরিচয়ের সংকট দূর করা। পাশাপাশি ভোগবাদী নগর সংস্কৃতির প্রবনতা ও প্রতিক্রিয়াশীল গোষ্ঠীর আগ্রাসী চ্যালেঞ্জকে মোকাবেলা করতে লোকসংস্কৃতিকে মোক্ষম হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করা। আমরা বিশ্বাস করি শুধু ঐতিহ্যলগ্ন হয়েই নয়, ঐতিহ্যের শেকড় থেকে পুষ্টি সংগ্রহের মধ্য দিয়ে জাতিগত বিকাশের পথ খুঁজে বের করতে হবে এবং সকল অশুভ শক্তিকে মোকাবিলা করতে হবে।
অনুষ্ঠানে প্রমা অবন্তীর পরিচালনায় লোকনৃত্য পরিবেশন করবেন ওডিসি এন্ড টেগর ডান্স মুভমেন্ট এর শিল্পীরা। অনুষ্ঠানে থাকছে বন্দর এর পরিবেশনায় কীর্ত্তনীয়া আঙ্গিকের গান, রবীন্দ্রনাথের বাউল গান পরিবেশন করবেন ড. অনুপম পাল ও বর্ণালী বিশ্বাস শান্তা, রাধারমনের গান পরিবেশন করবেন সুনামগঞ্জ থেকে আগত বিশিষ্ট সঙ্গীতশিল্পী বিশ্বজিত রায়, পল্লীগীতি পরিবেশন করবেন পল্লীগীতি সম্রাট আব্দুল আলীম এর পুত্র জহির আলীম, জারি ও সারি গান পরিবেশন করবেন মানিকগঞ্জ থেকে আগত সাইদুর রহমান বয়াতী, ড. মাহবুব পিয়ালের পরিচালনায় লোকগান পরিবেশন করবেন ঢাকা থেকে আগত গানের দল লোকরঙ।
অনুষ্ঠানের ২য় দিন ৬ ফেব্র“য়ারি শনিবার বিকাল ৩টায় অনুষ্ঠানের শুরুতে শিল্পী সৈয়দ মানিক ও তার দলের পরিবেশনায় অনুষ্ঠিত হবে মাইজভান্ডারী গান। বিকাল ৩:৩০টায় অনুষ্ঠিত হবে আলোচনা অনুষ্ঠান। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মাননীয় মেয়র জনাব আ.জ.ম নাছির উদ্দিন, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন কবি ও সাংবাদিক আবুল মোমেন, ফরটিস গ্র“পের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন। আলোচনা সভা শেষে শিশু চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার প্রদান। বিকাল ৫:০০টায় খাগড়াছড়ি থেকে আগত ইয়ামুক শিল্পী গোষ্ঠীর পরিবেশনায় অনুষ্ঠিত হবে আদিবাসী নৃত্য, নেত্রকোণা থেকে আগত মিলন বয়াতী ও তার দলের পরিবেশনায় কমলা রানীর পালা, চট্টগ্রামের আঞ্চলিক গান পরিবেশন করবেন বিশিষ্ট আঞ্চলিক গানের শিল্পী কল্যাণী ঘোষ, শাহ আব্দুল করিমের গান পরিবেশন করবেন সিলেট থেকে আগত বাউল সম্রাট শাহ আব্দুল করিমের শিষ্য আব্দুর রহমান, ধামাইল নৃত্য পরিবেশন করবেন সুনামগঞ্জ থেকে আগত লোকদল শিল্পী গোষ্ঠী, বাউল গান পরিবেশন করবেন কুষ্টিয়া থেকে আগত বিশিষ্ট বাউল শিল্পী শফি মন্ডল।
রাত ১০টায় রয়েছে উৎসবের বর্ণিল সমাপনী। বাঙালীর প্রাণের এ উৎসব চট্টগ্রামবাসীর মিলনমেলায় পরিণত হবে এবং সবার যোগে বাঙালী সংস্কৃতি অক্ষয় আধার জয়যুক্ত হবে এই প্রত্যাশা ব্যক্ত করেছেন লোক সংস্কৃতি উৎসব ২০১৬ এর নেতৃবৃন্দ।

Leave a Reply

%d bloggers like this: