‘সকল প্রকার তামাক ও নেশাজাত দ্রব্য উৎপাদন ক্রয় বিক্রয় সেবন নিষিদ্ধ করা হোক’

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ০১ জুন ২০১৭, বৃহস্পতিবার: সকল প্রকার তামাক জাত দ্রব্য মাদক ও নেশাজাত দ্রব্য উৎপাদন ও ক্রয় বিক্রয় নিষিদ্ধ করার দাবিতে এবং ফসলী জমিতে তামাক চাষ বন্ধ করে অর্থকরী ও পুষ্টিকর ফসল ফলানোর আহ্বান জানিয়ে বিশ্ব তামাক বিরোধী দিবস উদযাপন করলো আমরা কৃষকের সন্তান পরিষদ। এ উপলক্ষে গত ৩১ মে চট্টগ্রাম নগরীর ৪০ মোমিন রোড, কদম মোবারক এতিম খানা মার্কেটস্থ কার্যালয়ে সংগঠনের সহ-সভাপতি আবু মনছুরের সভাপতিত্বে এবং প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক মোঃ কামাল হোসেনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত হয়। সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতালের ভাইস প্রেসিডেন্ট সৈয়দ মোঃ মোরশেদ হোসেন, প্রধান আলোচক ছিলেন বিশিষ্ট কলামিষ্ট অধ্যাপক মাসুম চৌধুরী, বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ কৃষক লীগ চট্টগ্রাম মহানগর শাখার যুগ্ম আহ্বায়ক সাবেক ছাত্রনেতা এডভোকেট মোস্তফা আনোয়ারুল ইসলাম, সংগঠনের উপদেষ্টা মুক্তিযোদ্ধা এস.এম. লেয়াকত হোসেন, সংগঠনের সহ-সভাপতি সাংবাদিক কাঞ্চন মহাজন ও সুভাষ চৌধুরী টাংকু, অধ্যক্ষ সুমন দত্ত, জসিম উদ্দিন চৌধুরী, সংগঠক স ম জিয়াউর রহমান। বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সদস্য রাঙ্গুনিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ নাসির উদ্দিন,  ইফতেখারুল করিম চৌধুরী, মোঃ রাশেদ মাওলা, আজিম উদ্দিন, সুমন চৌধুরী, সাংবাদিক আরেফিন আরিফ, সাংবাদিক সমীর পাল প্রমুখ। সভায় বক্তারা ফসলী জমিতে তামাক চাষ বন্ধ করে অর্থকরী ও পুষ্টিকর ফসল ফলানোর আহ্বান জানিয়ে বলেন তামাক চাষ করে কৃষকেরা সাময়িক লাভবান হলেও এর ক্ষতি ব্যাপক। তামাকের উৎপাদিত আয় দিয়ে ক্ষতি পোষানো কখনো সম্ভব হবে না। বিশ্বব্যাপী আজ তামাকের আগ্রাসন বেড়ে চলেছে। আজ এই আগ্রাসন মহামারী আকারে রূপপধারণ করেছে। ধূমপায়ী মাদকসেবী ও তামাকসেবীদের আগ্রাসন থেকে কেউ রক্ষা পাচ্ছে না। তাই ধূমপায়ী, তামাকসেবী, মাদকসেবী ও এই সব উৎপাদক ক্রেতা বিক্রেতাদের রাষ্ট্রীয়ভাবে অনুৎসাহিত ও বয়কট করতে হবে। ধূমপানের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রের যে আইন রয়েছে তাও কার্যকর করার জন্য বক্তারা সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়ে আরো বলেন ধূমপান মানে যদি বিষপান হয়ে থাকে তবে সেই বিষ কারো মুখে তুলে দেওয়ার অধিকার কারো নেই। এক্ষেত্রে সরকার প্রশাসনের দায়িত্ব আরো কঠোর হতে হবে। অনতিবিলম্বে সকল প্রকার তামাক নেশাজাত দ্রব্য উৎপাদন ক্রয় বিক্রয়ের লাইসেন্স বাতিল করার জন্য সরকারের প্রতি আমরা কৃষকের সন্তান পরিষদের পক্ষ থেকে বক্তারা জোর দাবি জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*