শৈত্যপ্রবাহের চাদরে সারা দেশ

1111নিউজগার্ডেন ডেস্ক : বাংলাদেশের দক্ষিণ, দক্ষিণ-পশ্চিম ও উত্তারঞ্চল দিয়ে বয়ে যাওয়া মৃদু শৈত্যপ্রবাহ অব্যাহত থাকবে। আবহওয়া দপ্তরের আজ শনিবার সকালের পূর্বাভাসে এ তথ্য জানানো হয়েছে। এদিকে আজ শনিবার দেশের  সর্বোচ্চ তামমাত্রা রেকর্ড করা হয় সিলেটে ২৮.১ ডিগ্রি সেলসিয়েস। সর্বানিম্ন তামাতাত্রা ঈশ্বরদীতে ৭.২ ডিগ্রি সেলসিয়েস। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা সিলেট, সর্বনিম্ন ঈশ্বরদীতে। আবহাওয়া দপ্তরের সকাল ৯টার পূর্বাভাসে বলা হয়, রংপুর ও রাজশাহী বিভাগসহ যশোর, কুষ্টিয়া, সাতক্ষিরা ও টাঙ্গাইল অঞ্চলসমূহের ওপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারী ধরনের শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা 2222 অব্যাহত থাকতে পারে। সারাদেশে রাত থেকে সকাল পর্যন্ত মাঝারী থেকে ঘন কুয়াশা পড়তে পারে। রাত এবং দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে। আকাশ অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলাসহ সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে। এতে বলা হয়, স্বাভাবিক লঘুচাপটি দক্ষিণ-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। এর প্রভাবে দক্ষিণাংশে বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। আগামী ৭২ ঘন্টায় তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেতে পারে। এর আগে জানুয়ারিতে কয়েক দফা মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে বলে জানানো হয়েছিল আবহাওয়ার পূর্বাভাসে। ঘন কুয়াশার চাদরে ঢাকা পড়েছে রাজধানীসহ সারাদেশ। পাশাপাশি বইছে ঠান্ডা হওয়া। আর এতে তীব্র ঠাণ্ডায় নানা ভোগান্তিতে পড়েছে সাধারণ মানুষ। আবহাওয়া অধিদপ্তর বলছে, 3333তাপমাত্রা স্বাভাবিক থাকলেও ঘন কুয়াশায় সূর্যের আলো না থাকায় ঠাণ্ডা অনুভূত হচ্ছে। এ অবস্থা আরো দুই থেকে তিনদিন থাকতে পারে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে তারা। শুক্রবার সকাল থেকে রাজধানীসহ সারাদেশে দেখা মেলেনি সূর্যের। সেই সঙ্গে ঘন কুয়াশায় ছেয়ে যায় পুরো নগরী। শুধু কুয়াশাই নয় এর সাথে মৃদু বাতাস যেন শহরে বয়ে এনেছে তীব্র শীতের প্রবাহ। এতে দুর্ভোগে পড়েন নিম্ন আয়ের মানুষসহ ছিন্নমূলরা। হঠাৎ করেই নগরীতে শীতের তীব্রতা বাড়ায় বাড়ি থেকে বেরিয়েই বিপাকে পড়েছেন অনেকেই। এমন পরিস্থিতি আরো দুই থেকে তিন দিন থাকতে পারে বলে জানালেন আবহাওয়া অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ ছানাউল হক মন্ডল। শুক্রবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল যশোর ও চুয়াডাঙায়। যশোরে ৯ দশমিক ৪ ডিগ্রী সেলসিয়াস ও চুয়াডাঙায় ৯ দশমিক ৫ ডিগ্রী সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে। আগামী বছরের শুরুতে মৃদু থেকে মাঝারি শৈত্যপ্রবাহ রাজধানীসহ সারাদেশে বয়ে যেতে পারে বলেও পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

Leave a Reply

%d bloggers like this: