শেরে বাংলায় দর্শকের ঢল

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ইংরেজী, শুক্রবার: একে তো টেস্টে আফগানিস্তানের কাছে ওমন লজ্জাজনক হার, তারপর বৃষ্টি ভেজা দিনে তিন জাতি টি-টোয়েন্টি আসরে জিম্বাবুয়ের সাথে প্রথম ম্যাচ- সব মিলে মনে হচ্ছিল আজ শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটির দিনেও বুঝি তেমন দর্শক হবে না। কিন্তু সে ধারণা ভুল।
টেস্টে প্রিয় জাতীয় দলের ব্যর্থতার পরও টি-টোয়েন্টি আসরের প্রথম দিন সাকিব বাহিনীকে উৎসাহ জোগাতে, অনুপ্রাণিত করতে শেরে বাংলায় দর্শকের ঢল। ২৫ হাজার আসন বিশিষ্ট স্টেডিয়ামে প্রায় হাজার পনেরো ক্রিকেট অন্তঃপ্রাণ বাংলাদেশ সমর্থক এসেছেন প্রিয় জাতীয় দলকে সমর্থন জোগাতে।

দুপুরের পর ভারি বৃষ্টি হয়নি। তাই ঘড়ির কাটা বিকেল ৪টা স্পর্শ করার পর থেকেই দর্শকের উপস্থিতি শেরে বাংলায়। ৬টার মধ্যেই স্টেডিয়ামের ঠিক বাইরে অন্তত ১০ হাজার দর্শকের সরব উপস্থিতি। অনেকেরই হাতে লাল সবুজ জাতীয় পতাকা। বিভিন্ন গেটে লম্বা লাইন।

সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার ম্যাচ দু দফা পিছিয়ে রাত ৮ টায় শুরু হলেও দর্শক কমেনি একটুও। বরং সময় গড়ানোর সাথে সাথে দর্শক সংখ্যা বেড়েছে। কেউ মাঠে এসে আর ঘরে ফিরে যাননি। বার বার খেলা শুরুতে দেরি হলেও দর্শকদের ধৈর্য্যচ্যুতি ঘটেনি। কোন চেঁচামেচি শোরগোলও শোনা যায়নি। সবাই স্থির হয়ে বসে ছিলেন।

অবশ্য কারণ একটাই, দু দলই বিকেল সাড়ে পাঁচটা থেকে মাঠে গা গরম এবং ফিল্ডিং, ক্যাচিংয়ে ব্যস্ত ছিল। আর এর মধ্যে টিপ টিপ বৃষ্টিতে দু বার পিচে চট দিয়ে ঢেকে দেয়া হলেও একবারের জন্য প্লাস্টিকের ভারি কভার বসানো হয়নি।

তাই দর্শকরা ধরেই নিয়েছিলেন, খেলা হবেই। মাাচ পণ্ড হবে না। তবে দেরিতে শুরুর কারণে হয়তো দৈর্ঘ্য ২০ ওভার থেকে কমে যেতে পারে। শেষ পর্যন্ত হয়েছেও তাই। ২০ ওভারের ম্যাচ রূপ নিয়েছে ১৮ ওভারে।

দীর্ঘ অপেক্ষার পর খেলা শুরুর দ্বিতীয় ওভারে বাঁহাতি স্পিনার তাইজুল ইসলাম জিম্বাবুয়ান ওপেনার ব্রেন্ডন টেলরকে ফিরিয়ে দিলে উল্লাসে ফেটে পড়ে শেরে বাংলা। প্রাণের ছোঁয়া লাগে পুরো মাঠে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*