লামায় ‘মোরা’য় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মাঝে প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুরের ত্রাণ বিতরণ

বেলাল আহমদ, লামা, ০৪ জুন ২০১৭, রবিবার: আওয়ামী লীগ জনগণ নিয়ে কাজ করে। কেউ ফেইসবুকে দুই লাইন লিখে কখনও জনতার কাছে হিরো হতে পারবেনা। লামা উপজেলা ২ লাখ মানুষ সকলে বাংলাদেশের নাগরিক। সরকার প্রদত্ত সকল সুবিধা পাওয়ার অধিকার সবার রয়েছে। ঘূর্ণিঝড়ে যারা ক্ষতির শিকার হয়েছে তারা সকলে ত্রাণ পাবে। আমরা কাউকে আওয়ামীলীগ বা বিএনপি বলে বিচার করিনা।
প্রাকৃতিক দূর্যোগের সময় অসচেতনতা কারণে আমরা বেশী ক্ষতির শিকার হই। প্রাকৃতিক দূর্যোগ রোধ করা যাবেনা। তবে সতর্ক থাকলে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ অনেকাংশে কমে যায়। সরকারের একার পক্ষে সকল দূর্যোগের মোকাবেলা করা সম্ভব নয়। সমাজে আমরা যারা বিত্তবান আছি তারা যদি কিছু মানুষের দায়িত্ব নেই তাহলে দূর্যোগ মোকাবেলা করা আমাদের জন্য আরো সহজ হবে। ত্রাণ বিতরণ শুরু হয়েছে মাত্র এই কার্যক্রম চলমান থাকবে।     ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’য় আঘাতে ক্ষতিগ্রস্থ লামা পৌরসভার দুস্থ মানুষের মাঝে রবিবার ত্রাণ বিতরণকালে এক আলোচনা সভায় এইসব কথা বলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এম.পি।
৪ জুন রবিবার বেলা ৩টায় লামা উপজেলা পরিষদ চত্বরে ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’য় ক্ষতিগ্রস্থ ১ হাজার ৩ শত দুস্থ পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেন প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এম.পি। এসময় তিনি ৩০ মে লামায় ‘মোরা’র আঘাতে নিতহ রুপসীপাড়া ইউনিয়নের দৈধ্যভিটা এলাকার ক্যাসিংথোয়াই মার্মার পরিবার কে নগদ ২৫ হাজার টাকা সহায়তা প্রদান করেন।  
লামা পৌরসভার মেয়র জহিরুল ইসলাম এর সভাপতিেেত্ব ত্রাণ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এম.পি। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, বান্দরবান জেলা প্রশাসক দিলীপ কুমার বণিক, পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায়, বান্দরবান পৌরসভার মেয়র ইসলাম বেবী, সহকারী পুলিশ সুপার লামা সার্কেল আবু সালাম চৌধুরী, লামা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মোহাম্মদ ইসমাইল, লামা উপজেলা নির্বাহী অফিসার খিন ওয়ান নু, আলীকদম উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ আবুল কালাম, জেলা পরিষদ সদস্য মোজাম্মেল হক বাহাদুর, মোস্তফা জামাল সহ প্রমূখ।

Leave a Reply

%d bloggers like this: