রোহিঙ্গাদের অবস্থা জানতে কক্সবাজারের উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনে আনান কমিশন

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ২৯ জানুয়ারি ২০১৭, রবিবার: নতুন করে মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে আসা রোহিঙ্গাদের অবস্থা জানতে কক্সবাজারের উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন যাচ্ছেন আনান কমিশনের তিন সদস্য। কমিশনের তিন সদস্য উইন ম্রা, আই লুইন ও ঘাশান সালামে রবিবার সকালে ঢাকা থেকে কক্সবাজার পৌঁছে সরাসরি উখিয়ায় যাবেন। সেখানে রোহিঙ্গাদের সঙ্গে কথা বলবেন তারা।
আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা, কক্সবাজার অফিরে কর্মকর্তা সৈকত বিশ্বাস জানান, দুই দিনের কক্সবাজার সফরে কমিশনের সদস্যরা নতুন আসা রোহিঙ্গাদের পাশাপাশি স্থানীয় জেলা প্রশাসন এবং জাতিসংঘসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংগঠনের প্রতিনিধিদের সঙ্গে কথা বলবেন। মঙ্গলবার তারা ঢাকায় ফিরে এ নিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী এবং বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ইন্টারন্যাশনাল অ্যান্ড স্ট্র্যাটেজিক স্টাডিজ (বিআইআইএসএস-বিস) আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় যোগ দেয়ার কথা রয়েছে। গতকাল শনিবার আনান কমিশনের তিন সদস্যের এই প্রতিনিধি দল ঢাকায় আসে।
পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, আনান কমিশনের তিন সদস্য বাংলাদেশ ঘুরে রোহিঙ্গাদের সম্পর্কে যা দেখেছেন ও শুনেছেন তার ওপর ভিত্তি করে কফি আনানের নেতৃত্বাধীন কমিশনের দপ্তরে একটি মূল্যায়ন প্রতিবেদন দেবেন।
গত বছরের ডিসেম্বরের শুরুতে কফি আনান নিজেও মিয়ানমার সফর করেছেন। এতে কমিশনের তিন সদস্যের বাংলাদেশ সফরের পর রোহিঙ্গাদের পরিস্থিতি নিয়ে একটি সামগ্রিক মূল্যায়ন প্রতিবেদন তৈরির কাজটি সহজ হবে রাখাইন রাজ্য বিষয়ক পরামর্শক কমিশনের জন্য।
গত অক্টোবরে রাখাইন রাজ্যে সীমান্ত চৌকিতে সন্ত্রাসী হামলার জেরে মিয়ানমারের সশস্ত্র বাহিনী রোহিঙ্গাদের ওপর নিপীড়ন শুরু করলে ডিসেম্বরে কফি আনান মিয়ানমার সফর করেন। তিনি রাখাইন রাজ্যের ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা ঘুরে দেখার পাশাপাশি মিয়ানমারের প্রেসিডেন্ট থিন কিউ, সশস্ত্র বাহিনী প্রধান সিনিয়র জেনারেল মিন অং লায়েং ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী অং সান সু চির সঙ্গে বৈঠক করেন। ওই সফর নিয়ে আনান কমিশনের একটি প্রতিবেদন প্রকাশের কথা রয়েছে।
রাখাইন রাজ্যের জনগণের কল্যাণে সুনির্দিষ্ট পদক্ষেপ নিতে সুপারিশ তৈরির জন্য মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিলর ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী অং সান সু চি গত বছর জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব কফি আনানকে প্রধান করে ওই পরামর্শক কমিটি গঠন করেন।
কফি আনান ফাউন্ডেশনের সহযোগিতায় মিয়ানমারের ছয় নাগরিক ও তিন বিদেশি বিশেষজ্ঞকে নিয়ে গঠিত কমিশন এই বছরের দ্বিতীয়ার্ধে সুপারিশ জমা দেবে। রাখাইন রাজ্যের সব নাগরিকের মানবিক ও উন্নয়ন, নাগরিকত্ব, মৌলিক অধিকার ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করার উপাদানগুলোকে নিয়ে কমিশন সুপারিশ তৈরি করবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*