রাজশাহীতে আ’লীগ নেতা টুকু হত্যা মামলার প্রধান আসামির আত্মসমর্পণ

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ০৪ মে: রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের অর্থ বিষয়ক সম্পাদক জিয়াউল হক টুকু হত্যা মামলার প্রধান আসামি এম এ নয়ন আত্মসমর্পণ করেছেন। বুধবার দুপুরে রাজশাহী মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেটের আদালত (১) এ আত্মসমর্পণ করেন তিনি।raj
পরে আদালতের বিচারক মোকসেদা আজগর তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। জামিন চেয়ে এর আগে আদালতে আত্মসমর্পণ করেন ঢাকা মতিঝিল এলাকার বাসিন্দা নয়ন।
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও নগরীর বোয়ালিয়া মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সেলিম বাদশা বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, তারা নয়নকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ডে নেয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা গেলে ঘটনার রহস্যজট খুলবে।
এর আগে গত ৩০ এপ্রিল তিন দিনের রিমান্ড শেষে ওই মামলার ৩ নম্বর আসামি নগরীর সুলতানাবাদ এলাকা কাপড় ব্যবসায়ী জসিম উদ্দিন (৪৮) ও ৪ নম্বর আসামি মহিষবাথান এলাকার ব্যবসায়ী রবিউল হাসানাতকে (৪০) কারাগারে পাঠানো হয়। তারা জিজ্ঞাসাবাদে যেসব তথ্য দিয়েছেন তা যাচাই-বাছাই করে আইনত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে বলে জানান তদন্তকারী কর্মকর্তা।
উল্লেখ্য, ২৪ এপ্রিল নিজ ব্যবসায়িক চেম্বারে গুলিবিদ্ধ হয়ে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে মারা যান আওয়ামী লীগ নেতা ও রাজশাহী চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সাবেক প্রশাসক জিয়াউল হক টুকু। এনিয়ে ওই দিনই বিকেলে নিহত টুকুর স্ত্রী নূরুন্নাহার বাদি হয়ে বোয়ালিয়া মডেল থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।
ওই তিন আসামি ছাড়াও ওই মামলায় নগরীর বোসপাড়া এলাকার সালাউদ্দিনের ছেলে ও কানাডা প্রবাসী তরিকুল ইসলাম (৪৮) এবং অজ্ঞাত আরো এক জনকে আসামি করা হয়। ঘটনার পর থেকে জসিম উদ্দিন ও রবিউল হাসানাত গ্রেফতার হলেও বাকিরা ছিলেন পলাতক। ওই মামলায় তরিকুলসহ অজ্ঞাত ওই আসামি এখনো ধরা ছোঁয়ার বাইরে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: