রাজনৈতিক অস্থিরতায় ধ্বসের মুখে বান্দরবানের পর্যটন শিল্প

বান্দরবান প্রতিনিধি : রাজনৈতিক অস্থিরতায় ধ্বসের মুখে বান্দরবানের পর্যটন শিল্প। রাজনৈতিক দলগুলোর টানা হরতাল অবরোধের মত বিভিন্ন কমসূচীর কারণে Bandarban Porjoton pic-1বান্দরবানের আবাসিক হোটেল-মোটেল ও রেস্তোরাঁর মালিকরা প্রতিদিন লাখ লাখ টাকার লোকসান গুনছে। পর্যটনের সাথে সংশ্লিষ্ট সবাই এই নাজুক পরিস্থিতির শিকার হচ্ছেন। এসময় দেশের বিভিন্ন প্রান্ত এবং বিদেশ থেকে পর্যটকরা আসতে শুরু করে। পর্যটন শিল্প সংশি¬ষ্টরা বিগত দুই বছর লোকসান গুনে এই বছর লাভের স্বপ্ন দেখছিলেন। চিম্বুক, নীলগিরি, কেউক্রাডং, বগালেক, মেঘলা, প্রান্তিকলেক, স্বর্ণ মন্দির ও নীলাচলের বিস্তির্ণ পাহাড়, আকাশ ও মেঘের মিতালী, ঝিড়িঝর্ণা-রিজুক-শৈলপ্রপাত, বড় পাথর, ঝুলন্ত সেতু, ক্যাবলকার, নাফাকুমসহ অসংখ্য ঝর্ণাধারার সমারোহ নজরকাড়া-মনোমুগ্ধকর পর্যটন স্পটের কারণে প্রতিবছর পর্যটন মৌসুমে বান্দরবানে প্রচুর পর্যটকের আগমন ঘটে। কিন্তু রাজনৈতিক দলগুলোর হরতাল-অবরোধের কারণে এই বছর কোন পর্যটক না আসায় সেই স্বপ্ন পূরণে বাঁধা হয়ে দাঁড়িয়েছে। এই বিষয়ে বান্দরবান হোটেল মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোঃ সিরাজুল ইসলাম বলেন, বান্দরবান একটি পর্যটন এলাকা। এখন পর্যটন মৌসুম হওয়া সত্ত্বেও বান্দরবানে কোন পর্যটক নাই। আমরা পর্যটনের সাথে সম্পৃক্ত সবাই প্রচুর আর্থিক ক্ষতির সম্মূখীন হচ্ছি। প্রতিদিন লক্ষ লক্ষ টাকা আমাদের Bandarban porjoton pic-2ক্ষতি হয়ে যাচ্ছে। সরকারও প্রচুর রাজস্ব আয় থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। বান্দরবানের ব্যবসায়ী সংগঠন চেম্বার অব কমার্সের সহ-সভাপতি লক্ষীপদ দাস বলেন, রাজনৈতিক অস্থিরতায় পর্যটন শিল্পে কিছুটা প্রভাব পড়েছে। বান্দরবানে রাজনৈতিক কর্মসূচীর কোনো ধরনের ছোয়াঁ না লাগলেও দুরদুরান্ত থেকে পর্যটক আসা সম্ভব হচ্ছে না। রাজনৈতিক পরিস্থিতি ভালো হওয়ার সাথে সাথে সমস্যা কেটে যাবে। বাহির থেকে যেই পর্যটকরা আসে তাদের আসা-যাওয়ায় কিছুটা সমস্যা হচ্ছে। যার কারণে অনেক গুলো হোটেল-মোটেল এখন পর্যটক শূন্য। স্থানীয়রা আশা করছেন রাজনৈতিক অস্থিরতা কেটে গেলে পর্যটন শিল্প আলোর মুখ দেখবে। নতুবা পর্যটন শিল্প বিকাশে পর্যটন শহর বান্দরবান হরতালের আওতামুক্ত থাকবে ।

Leave a Reply

%d bloggers like this: