রাজনীতিরও কিছু নিয়ম কানুন থাকা দরকার : অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী

নিউজগার্ডেন ডেস্ক : অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান বলেছেন, রাজনীতিরও কিছু নিয়ম কানুন, সভ্যতা ও সংস্কৃতি অবশ্যই থাকা দরকার এবং তা মেনে চলাও প্রয়োজন। আইনকে ভীতির কারণ ভাবলে চলবে না। আইনের ভিতর জনকল্যাণ করা সম্ভব। গত শুক্রবার সকালে কুমিরাস্থ নিজস্ব ক্যাম্পাস মিলনায়তনে আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রাম (আইআইইউসি) দু’দিনব্যাপী সপ্তাম আন্তর্জাতিক সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী একথা বলেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. এ.কে.এম আজহারুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন নাইজেরিয়ার কানো ষ্টেটের গভর্নর ড. রাবিউ মুসা কনকোসো। স্টুডেন্ট এফেয়ার্স ডিভিশনের পরিচালক আ জ ম ওবায়দুল্লাহ, অতিরিক্ত পরিচালক মামুনুর রশিদ ও চৌধুরী গোলাম মওলার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সম্মেলনের আহবায়ক ও আইআইইউসি’র প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. আবু বকর রফীক, আইআইইউসির বোর্ড অব ট্্রাস্টীজ এর ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান অধ্যাপক আহসান উল্লাহ, সম্মেলনের সদস্য সচিব, ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. ফরিদ আহমদ সোবাহনী, যুক্তরাজ্যের মুসলিম এইড এর হেড অব প্রোগ্রাম ড. দেওয়ান আবু এহসান, ইউনিভার্সিটি সেইন্স মালায়েশিয়ার প্রো-ভিসি প্রফেসর ড. জুলফিকল এবং ইউনির্ভাসিটি টেকনোলজি মালয়েশিয়া প্রফেসর ড. নাও আল  করিম। মঞ্চে বিশিষ্টজনদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, আইআইইউসির বোর্ড অব ট্্রাস্টীজ এর ভাাইস চেয়ারম্যান ড. কাজী দ্বীন মোহাম্মদ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. মুহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন। প্রধান অতিথির বক্তব্যে অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান বলেন, সমগ্র মানবতার জন্য দারিদ্র্য ও ভিক্ষাবৃত্তি দূরিকরণ অনিবার্য হয়ে উঠেছে। দারিদ্র্য মানবতার জন্য একটি অভিশাপ। দারিদ্র্য বিশ্বের সব জায়গায় বিরাজমান। দীর্ঘ ইতিহাস বলে বছরের পর বছর বিদেশী শাসন ও লুণ্ঠন আমাদেরকে দারিদ্র্য উপহার দিয়ে গেছে। দারিদ্র্য দূরিকরণে সরকার কাজ করছে, যা যথেষ্ট নয়। এই দারিদ্র্য দূরিকরণে সবার সহযোগিতা প্রয়োজন। শ্রম, শিক্ষা ও প্রযুক্তির উপর গুরুত্ব দিলে দারিদ্র্য দূর করা সম্ভব। আমাদের শিক্ষা ও জীবন ধারায় পরিবর্তনের হাওয়া লেগেছে। এর পেছনে কারণ কায়িকশ্রম। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে নাইজেরিয়ার কানো ষ্টেটের গভর্নর ড. রাবিউ মুসা কনকোসো বলেছেন, শিশুকাল থেকে সংস্কৃতিবান ও সভ্য হওয়ার শিক্ষা পাওয়া উচিত। দেশ ও জাতিকে জানার জন্য শিশুকাল থেকে সুযোগ দেওয়া উচিত। একজন নাগরিককে তার দেশ, জাতি ও সংস্কৃতিকে সবার উর্ধ্বে স্থান দেওয়া প্রয়োজন। তিনি নাইজেরিয়ার রাষ্ট্্র ব্যবস্থা, শিক্ষা এবং ইতিহাসের উপর আলোকপাত করে বলেন, বাংলাদেশ নাইজেরিয়ার মানুষের হ্নদয়ের কাছাকাছি অবস্থান করছে। আইআইইউসি সার্বিক কার্যক্রমে প্রশংসা করে বলেন, এটি একটি প্রথম শ্রেণীর আন্তর্জাতিক মানের বিশ্ববিদ্যালয়। তিনি আইআইইউসির সার্বিক সাফল্য কামনা করেন। তিনি সম্মেলনের আলোচ্য বিষয় দারিদ্র্য ও ভিক্ষাবৃত্তি বিমোচনে সর্বস্তরের মানুষের সহযোগিতার উপর গুরুত্বারোপ করেন। সভাপতির বক্তব্যে আইআইইউসি’র ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. এ. কে. এম আজহারুল ইসলাম বলেন, দারিদ্র্য মানুষের শত্র“। এটি মানব সম্প্রদায়কে অমানিবকতার পথে নিয়ে যায়। এই সম্মেলন থেকে সুপারিশ আসা উচিত যে, কেবল সরকার নয় সামাজিক উদ্যোগও দারিদ্র্য-বিরোধী সংগ্রামকে বেগবান করতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*