মেয়ে নিয়ে টয়লেটে ধরা খেল জাবি ছাত্রলীগ কর্মী

নিউজগার্ডেন ডেস্ক : জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রীদের টয়লেটে এক মেয়েকে নিয়ে ধরা খেয়েছে জাবি শাখা ছাত্রলীগের এক কর্মী। মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে জহিরjahgirnagar-university রায়হান মিলনায়তনের মেয়েদের টয়লেটে অপ্রীতিকর অবস্থায় একটি মেয়েসহ সাধারণ শিক্ষার্থী তাদের আটক করে। পরে তাদের বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টরিয়াল বডির সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করা হয়। আটক ছাত্রলীগ কর্মীর নাম প্রীতম আরিফ। তিনি মীর মশাররফ হোসেন হলের আবাসিক ছাত্র ও ইতিহাস বিভাগের ৪৩তম ব্যাচের শিক্ষার্থী। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বহিরাগত এক মেয়েকে নিয়ে ছাত্রলীগ কর্মী আরিফ বিশ্ববিদ্যালয় জহির রায়হান মিলনায়তনের মেয়েদের টয়লেটে প্রবেশ করে। বিষয়টি দেখতে পেয়ে কয়েকজন সাধারণ শিক্ষার্থী তাদের আপত্তিকর অবস্থায় আটক করে। পরে বিশ্ববিদ্যালয় সহকারী প্রক্টর ও প্রধান নিরাপত্তা কর্মকর্তা এসে তাদের উদ্ধার করে নিয়ে যান। প্রধান নিরাপত্তা কর্মকর্তা জেফরুল হাসান চৌধুরী সজল বলেন, ‘খবর পেয়ে দুইজনকে আটক করা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে সহকারী প্রক্টররা কথা বলেছেন।’ আরিফ ছাত্রলীগকর্মী দাবি করে মীর মশাররফ হোসেন হল শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আশফিক সরকার বলেন, ‘সে জুনিয়র কর্মী, এ জন্য তার সঙ্গে আমার সরাসরি পরিচয় নেই। আরিফ মেয়ে নিয়ে ধরা পড়েছে এমন কিছু জানেন কি না এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘বিষয়টি সম্পর্কে এখনো আমি কিছু জানি না।’ এ বিষয়ে সহকারী প্রক্টর সিকদার মো. জুলকার নাইন বলেন, ‘এটি একটি সাধারণ বিষয়। ছেলেটি তার বহিরাগত গার্ল ফ্রেন্ডকে নিয়ে টয়লেটে প্রবেশ করেছে। আমরা তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করেছি। বিষয়টি মেয়ের অভিভাবককে জানানো হয়েছে।’ এর আগেও একই জায়গায় দর্শন বিভাগের ৩৯তম ব্যাচের এক ছাত্র মেয়েকে নিয়ে ছাত্রীদের টয়লেটে প্রবেশ করেন। ‘এক’ টয়লেটে ছেলে-মেয়ে প্রবেশ করা দেখে সাধারণ শিক্ষার্থীদের সন্দেহ হয়। পরে সেখান থেকে বের হলে মেয়েদের টয়লেটে কি করছিলেন এমন প্রশ্ন করা হলে তিনি উত্তেজিত হয়ে নিজেকে জাতীয় দৈনিকের সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে দ্রুত স্থান ত্যাগ করেন। সূত্র : ঢাকাটাইমস

Leave a Reply

%d bloggers like this: