মেয়র হজ্ব কাফেলার প্রাণপুরুষ এ.বি.এম মহিউদ্দীন চৌধুরী স্মরণে

এম. ইসলাম আলকাদেরী, ২৭ ডিসেম্বর ২০১৭, বুধবার: ইহা ঐতিহাসিক সত্য এবং উদীয়মান সূর্য থেকে স্পষ্ট যে, আল্লাহ রাব্বুল আলামীন আহকামুল হাকেমীন, রাহ্মাতুল্লীল আলামীন (দ.) এর উম্মতের সেবায় যুগে যুগে বিভিন্ন ব্যক্তিকে সুযোগ দিয়ে তাঁর সৃষ্টির উদ্দেশ্য লক্ষ্য বাস্তবায়ন করেছেন তাদের মধ্যে মেয়র হজ্ব কাফেলার প্রাণপুরুষ সাবেক মেয়র এ.বি.এম মহিউদ্দীন চৌধুরীও একজন। হাজ্বী সাহেবানদের সেবাই ছিল তাঁর হজ্ব কাফেলার মহান উদ্দেশ্য ও লক্ষ্য। পবিত্র মক্কায়ে মুয়াজ্জমা ও মদীনায়ে মুনাওয়ারায় ২০০৪ সালে তাঁর হজ্ব কাফেলার সাথী হয়েছিলাম। অনুভব করলাম দেশে যিনি দেশপ্রেমিক বীর মক্কা মদীনায় ভক্ত অনুরক্তদের জন্য তিনি পীর। অর্থাৎ পীর বুযুর্গদের যেভাবে ভক্তরা শ্রদ্ধাভরে সেবা করে পীর মহিউদ্দীনকে সন্তুষ্ট করার জন্য তাঁর ভক্তরা হাজী সাহেবানদের সেবায় এক পায়ে দাঁড়ানো ছিল।
দেশ ও জাতির সেবায় দুঃস্থ মানবতার সাহায্যে ধর্মে কর্মে তিনি প্রথম কাতারে ছিলেন। মসজিদে গিয়ে তিনি যেমন প্রথম কাতারে ইকামাত দিতেন মৃত ব্যক্তির দাফন কাফনেও পাশে থাকতেন। দু:খে সু:খে তিনি যেভাবে অসহায়দের বিবাহ মজলিশে আসতেন সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিতেন তেমনিভাবে অন্যায় অত্যাচারের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতেন। চট্টগ্রাম মহানগরে বিশেষ দুটি মসজিদ সংস্কার ও সম্প্রসারণে তাঁর অগ্রণী ভূমিকা ছিল। ১টি খাজা গরীবুল্লাহ শাহ্ মাজার জামে মসজিদ অন্যটি চকবাজার অলি খাঁ জামে মসজিদ। এছাড়া আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের খতিব নির্ধারণে জাতীয় মসজিদ জমিয়তুল ফালাহ মুসল্লি পরিষদের সভাপতি হিসাবে তাঁর ভূমিকা চির স্মরণীয় হয়ে থাকবে। জশনে জুলুছ ঈদে মিলাদুন্নবীতে অংশগ্রহকারীদের পানি সরবরাহে এবং রমজানুল মোবারকে নগর সড়কের মোড়ে মোড়ে মাইকিং এর মাধ্যমে কোরআনখানী ও ইফতার সরবরাহ ইত্যাদি তার ধর্মীয় মূল্যবোধকে মূল্যায়ন করা যায়। হাদীস শরীফে উল্লেখ আছে তোমরা মৃত ব্যক্তির গুণাবলী স্মরণ কর। ইহা একটি শিক্ষামূলক হাদীস। উল্লেখ্য যে, দোষে গুনে মানুষ কিন্তু যার শেষ ভালো তার সব ভালো। অতএব মরহুম মেয়র এ.বি.এম. মহিউদ্দীন চৌধুরী জুমা রাত্রিতে ইন্তেকাল এবং জুমা দিবসে লক্ষাধিক সর্ব দলীয় ভক্তের উপস্থিতিতে শত শত আলেমের মাগফেরাত কামনার মাধ্যমে তাঁর নামাজে জানাযা অনুষ্ঠিত হয়। আমরা তাঁর পরকালে কবরের সুখ শান্তি ও হাশরের মাঠে রাসূলুল্লাহ (দ.) সুপারিশ কামনা করছি। লেখক: খতিব, পাহাড়তলী বাজার জামে মসজিদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*