মেডিকেল এ্যাসিস্ট্যান্টদের গণঅনশনের হুমকি

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ০৫ মে: : বাংলাদেশ মেডিকেল এডুকেশন বোর্ড নামে স্বতন্ত্র স্বাস্থ্য শিক্ষা বোর্ড গঠনসহ ৫ দফা দাবি মেনে না নিলে আগামী ১৬ মে থেকে রাজপথ অবরোধ ও গণঅনশনে যাওয়া হবে বলে সরকারের প্রতি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছে মেডিকেল এ্যাসিস্ট্যান্ট ট্রেনিং কোর্সের শিক্ষার্থীরা।dhaka
বৃহস্পতিবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে এক সাংবাদিক সম্মেলনে এ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন স্টুডেন্টস এসোসিয়েশনের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. মুরাদ হোসেন। মেডিকেলে এ্যাসিস্ট্যান্ট ট্রেনিং কোর্সের শিক্ষার্থী ও পেশাজীবী ডিপ্লোমা চিকিৎসক শিক্ষার্থীরা যৌথভাবে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে। এসময় সংগঠনের পক্ষ থেকে মুরাদ হোসেন ৫ দফা দাবি তুলে ধরেন।
দাবিগুলো হলো- উচ্চ শিক্ষা ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে হবে, কমিউনিটি ক্লিনিকসহ বিভিন্ন অধিদপ্তরে নতুন পদের সৃষ্টি, চাকরিজীবীদের বেতনভাতা ১১ তম গ্রেড থেকে ১০ গ্রেডে উন্নীতি করুন, ডিএমএফ শিক্ষার্থীদের জন্য স্বাস্থ্য শিক্ষা বোর্ড নামে সতন্ত্র শিক্ষা বোর্ড গঠন, ইন্টার্ন শিক্ষার্থীদের নীতিমালা প্রণয়ন এবং ইন্টার্নি ভাতা প্রদান করতে হবে।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে মুরাদ জানান, বর্তমানে মেডিকেলে এ্যাসিস্ট্যান্ট ট্রেনিং স্কুলের ‘ম্যাটস’ নামে ২০৩ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। প্রতি বছর প্রায় ৪ হাজার ছাত্র-ছাত্রী পাশ করে বের হলেও কর্মসংস্থানের অভাবে অধিকাংশ শিক্ষার্থী বেকার রয়েছে।
তিনি বলেন, বাংলাদেশের প্রথম ৫ বার্ষিক পরিকল্পনায় আমাদের এই কোর্সের জন্য উচ্চ শিক্ষা, কর্মক্ষেত্রে প্রমোশন, বেতন স্কেল উন্নীতি করার বিষয়ে সুস্পষ্ট নির্দেশনা থাকলেও নানান অবহেলার কারণে আজো তা বাস্তবায়ন হয়নি।
সংগঠনের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘২০১৪’ সালে ২৭ ডিসেম্বর বাংলাদেশ ডিপ্লোমা মেডিকেলে এসোসিয়েশন ‘বিডিএমএ’ এর এক সমাবেশে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসারদের ৩ মাসের মধ্যে তৎকালীন বেতন স্কেল অনুযায়ি ২য় শ্রেণিতে উন্নীত করার ঘোষণা দিলেও দীর্ঘ ১৭ মাস অতিবাহিত হলেও তা আজো বাস্তাবায়ন হয়নি।
সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনের অন্যান্য নেতারা যথাক্রমে মো. নাজমুল হোসেন, মো. মিঠুন সরকার, শফিকুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

%d bloggers like this: