মেক্সিকোর প্রেসিডেন্ট আন্দ্রেস ম্যানুয়েল লোপেজের কিছু নেই

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ০৬ জানুয়ারী ২০১৯ ইংরেজী, রবিবার: গরিবকে চ্যাম্পিয়ন বানানোর প্রতিশ্রুতি দিয়ে ক্ষমতায় আসা মেক্সিকোর প্রেসিডেন্ট আন্দ্রেস ম্যানুয়েল লোপেজ ওব্রাদরের গাড়ি, বাড়ি, ক্রেডিট কার্ড কিচ্ছু নেই। গত শুক্রবার সংবাদ সম্মেলনে প্রেসিডেন্ট নিজেই এ কথা বলেন। প্রমাণ হিসেবে নিজের ‘প্রায় খালি’ মানিব্যাগ সাংবাদিকদের দেখান তিনি।
লোপেজ ওব্রাদরের নির্বাচনী ওয়াদায় ছিল, ব্যয় কমানো, দুর্নীতির অবসান, সহিংসতা হ্রাস এবং দারিদ্র্য দূরীকরণ। ডিসেম্বরে ক্ষমতা গ্রহণের পরপরই কেন্দ্রীয় সরকারের অধীন থাকা সব উড়োজাহাজ ও হেলিকপ্টার নিলামে তোলা হবে জানিয়ে সে পথে হাঁটার ইঙ্গিত দেওয়া শুরু করেন তিনি।
শুক্রবার সংবাদ সম্মেলনে আন্দ্রেস ম্যানুয়েল লোপেজ ওব্রাদর বলেন, ‘অর্থ কখনোই আমাকে টানেনি। আমি আদর্শ ও মূল্যবোধের জন্য লড়ে গেছি। কেউ যাতে মনে কষ্ট না পায়, সে জন্য আমি এও বলতে চাই যে সব ধনী লোকেরা বদমাশ নন।’
গত ডিসেম্বরে দেশ পরিচালনার দায়িত্ব নেন বামপন্থী লোপেজ ওব্রাদর। সম্পদের ঘোষণায় কেবল তাঁর দুটি ব্যাংক অ্যাকাউন্টের তথ্য আছে। ওই দুই অ্যাকাউন্টে মোট তাঁর ৪ লাখ ৪৬ হাজার ৬৮ পেসো (২৩ হাজার মার্কিন ডলার) রয়েছে। তাঁর বাড়ি ও পারিবারিক কাজে ব্যবহার হওয়া গাড়িটি স্ত্রীর নামে রয়েছে। ওব্রাদর বলেছেন, সম্পদ বলতে মেক্সিকোর দক্ষিণাঞ্চলে একটি মাঝারি আকারের খামার আছে তাঁর। যেগুলো এখন ঠিক তাঁর নয়, কারণ দলিল করে তিনি সেগুলো তাঁর ছেলেদের দিয়ে দিয়েছেন।
‘দৈন্যদশা’ বোঝাতে নিজের ‘প্রায় খালি’ মানিব্যাগ দেখান ওব্রাদর। তাতে কেবল ২০০ পেসো (প্রায় ১০ মার্কিন ডলার) ছিল। আরেকটি ছিল ২ ডলারের বিল, যেটি যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসকারী এক মেক্সিকান তাঁকে দিয়েছিলেন ‘সৌভাগ্য কবচ’ হিসেবে।
লোপেজ ওব্রাদর জানান, সরকারে দায়িত্ব পালন বাবদ তাঁর মাসিক মোট আয় ১ লাখ ৮ হাজার ৭৪৪ পেসো (৫ হাজার ৬০০ মার্কিন ডলার)। প্রসঙ্গত, ওব্রাদর নিজের বেতনসহ সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতনের ওপর ছুরি চালিয়েছেন। শুক্রবার সংবাদ সম্মেলনে তিনি এও বলেন, তাঁর প্রশাসনের সবাইকে সম্পদের ঘোষণা দিতে হবে।
এদিকে ওব্রাদরের স্ত্রী, লেখক ও সাংবাদিক বিয়াত্রিজ গুতিয়ারেসের সম্পদ ঘোষণায় তিনটি ব্যাংক অ্যাকাউন্টের তথ্য দাখিল করা হয়েছে। ওই তিন অ্যাকাউন্টে মোট ১৪ লাখ পেসো (প্রায় ৭২ হাজার মার্কিন ডলার) রয়েছে। এ ছাড়া তিনটি গাড়ি, একটি বাড়ি, একটি অ্যাপার্টমেন্ট এবং দুটি বিশালাকৃতির জমি রয়েছে বিয়াত্রিজ গুতিয়ারেসের নামে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: