মিয়ানমার যুদ্ধবিধ্বস্ত সীমান্তবর্তী প্রদেশে জরুরি অবস্থা

নিউজগার্ডেন ডেস্ক : মিয়ানমার যুদ্ধবিধ্বস্ত সীমান্তবর্তী প্রদেশে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছে। myanmarসেনাবাহিনীর সাথে আদিবাসী গেরিলা যোদ্ধাদের যুদ্ধবিগ্রহের ফলে সৃষ্ট পরিস্থিতি সামাল দিতে এ পদক্ষেপ নিয়েছে। উভয় পক্ষের লড়াই থেকে জীবন বাঁচাতে এলাকা ছেড়ে পালিয়ে গেছে কয়েক লাখ মানুষ। পালিয়ে আসা মানুষগুলো কিভাবে জীবন বাঁচিয়ে আসতে পেরেছে তার করুণ বর্ণনা দিয়েছে। মিয়ানমারের প্রেসিডেন্ট ঘোষনা দিয়েছে দেশের এক ইঞ্চি পরিমাণ ভূমিও ছাড়া হবে না। সেনাবাহিনী ও কোক্যাং গেরিলাদের মধ্যে সংঘটিত লড়াইয়ে শান স্টেট থেকে গত কয়েক সপ্তাহে পালিয়ে গেছে কয়েক লাখ মানুষ। অথচ বেজিং বলছে, ইউনান প্রদেশে ৩০ হাজার মানুষ পালিয়ে আসার পর তারা সীমান্তে কড়াকড়ি আরোপ করেছে। শান স্টেটের লাসিওতে খোলা হয়েছে অস্থায়ি ক্যাম্প।mayanmar যেখানে পালিয়ে আসা মানুষগুলো আশ্রয় নিয়েছে। লাসিও থেকে সহিংস এলাকার দূরত্ব ১৪০ কিমি। পালিয়ে আসা মানুষগুলোর সাথে ছিল মাত্র কয়েকটি প্লাস্টিক ব্যাগ। অনেক অস্থায়ি শ্রমিক যারা মিয়ানমারে কাজ করতো, তারা এখন ফিরতে চায় না। তাদের মতে সীমান্ত এলাকা এখন মৃতুপুরিতে পরিণত হয়েছে। সূত্র : নিউজ বিএনএ ডটকম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*