মিয়ানমার বাহিনীর মর্টার সেল হামলা বান্দরবানে

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১২ মে: বান্দরবানের থানছিতে বিজিবি ক্যাম্পে ৩টি মর্টার সেল নিক্ষেপ করেছে মিয়ানমারের সীমান্তরক্ষী বাহিনী। এ সময় বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ বিজিবি সদস্যরাও পাল্টা মর্টার সেল নিক্ষেপ করে। এঘটনার পর থেকে সীমান্ত জুড়ে সতর্ক অবস্থায় রয়েছে বিজিবি। বুধবার রাতে জেলার থানছি উপজেলার সীমান্তবর্তী বড়মদকে এ ঘটনা ঘটে।thanchi-map
আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও স্থানীয়রা জানায়, বুধবার রাতে জেলার থানছি উপজেলার সীমান্তবর্তী দূর্গম বড় মদক বিজিবি ক্যাম্প লক্ষ করে ৩টি মর্টারসেল নিক্ষেপ করে মিয়ানমারের সীমান্তরক্ষীরা। মর্টারসেলগুলো ক্যাম্প থেকে প্রায় একশ গজ দূরত্বে বিজিবি হেলিপ্যাডে পড়েছে। তবে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। এ সময় বিজিবি সদস্যরাও পাল্টা ২টি মর্টারসেল নিক্ষেপ করে মিয়ানমার সীমান্তরক্ষীর ক্যাম্পে।
হঠাৎ মিয়ানমার সীমান্তরক্ষীরা বিজিবি ক্যাম্পে মর্টারসেল নিক্ষেপের কারণ জানা যায়নি। তবে থানছিতে মিয়ানমার সীমান্তের ওপারে মিয়ানমারের আর্মীর একটি দল কয়েকদিন ধরে অবস্থান করছে বলে খবর পাওয়া গেছে।
এদিকে ঘটনার পর থেকে মিয়ানমার সীমান্ত জুড়ে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ বিজিবি সদস্যরা সতর্ক অবস্থায় রয়েছে। তবে বিজিবি এবং নিরাপত্তার বাহিনীর দায়িত্বশীল সূত্রগুলো ঘটনা সর্ম্পকে কোনো ধরনের কথা বলতে রাজি হয়নি।
প্রসঙ্গত, ২০১৫ সালের জুলাই মাসে থানছি উপজেলার বড় মদক এ বিজিবি ক্যাম্পে হামলা চালিয়েছিল মিয়ানমার। বিচ্ছিন্নতাবাদী সন্ত্রাসীদের গুলিতে কয়েকজন বিজিবি সদস্যও আহত হয়েছিল। আমাদের বান্দরবান সংবাদদাতা মো: নজরুল ইসলাম (টিটু) জানান বান্দরবানের আলীকদমের বিজিবি’র ৫৭ ব্যাটালিয়নে মিয়ানমার সেনাবাহিনী মর্টারসেল হামলা চালিয়েছে। বুধবার রাত ১১টার দিকে আলীকদম উপজেলার থানচি-আলীকদম সড়কের বুলুপাড়া এলাকায় বিজিবি’র নির্মানাধীন ৫৭ ব্যাটালিয়নে মিয়ানমার সেনাবাহিনী এই মর্টারসেল হামলা চালায়। পাশাপাশি আত্মরক্ষার্থে বিজিবিও পাল্টা হামলা চালায়। এব্যাপারে বিজিবি’র বান্দরবান সেক্টর কমান্ডার কর্ণেল হাবিবুর রহমান জানান, মিয়ানমার আরকান আর্মি ও মিয়ানমার সেনাবাহিনী এ দু গ্র“পে সংঘর্ষ চলাকালে কয়েকটি মর্টারসেল আলীকদমের বিজিবি’র নির্মাণাধীন ৫৭ ব্যাটালিয়নের উপর দিয়ে যায় এবং বর্তমানে মিয়ানমার সিমান্ত এলাকায় নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। এতে ভয়ের কোন কারণ নেই।  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*