মার্চে পিডিবির সেবার মান নিয়ে গণশুনানি করবে দুদক

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১৮ জানুয়ারী ২০১৭, বুধবার: দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) উদ্যোগে আগামী মার্চ মাসের শেষ সপ্তাহে বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (পিডিবি), চট্টগ্রামের সেবার মান নিয়ে গণশুনানি অনুষ্ঠিত হবে। বুধবার (১৮ জানুয়ারি) সকালে আগ্রাবাদে বিদ্যুৎ ভবনে পিডিবি চট্টগ্রামের কর্মকর্তাদের সঙ্গে এক মতবিনিময়কালে এ কথা বলেন দুদকের কমিশনার ড. নাসিরউদ্দীন আহমেদ। মহানগর দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি মনোয়ারা হাকিম আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এই সভায় পিডিবি, চট্টগ্রামের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
মতবিনিময় সভায় ড. নাসিরউদ্দীন আহমেদ বলেন, বিদ্যুৎ বিভাগে গ্রাহকের সেবা পাওয়ার ক্ষেত্রে কিছু সীমাবদ্ধতা আছে। কিছু সমস্যা আছে। তাই আমরা দেখতে চাই, মানুষ সেবা পাচ্ছে কিনা। আমরা সার্টিফিকেট যদিও দিই ‘বিদ্যুৎ বিভাগ খুব ভালো করেছে’ তবুও হবে না। মানুষ যে সার্টিফিকেট দিবে সেটিই আসল। কারণ দেশটাতো তাদের। তাই আমরা মার্চ মাসের শেষ সপ্তাহে বিদ্যুৎ বিভাগ নিয়ে একটি গণশুনানি করবো। পরবর্তীতে তারিখ জানিয়ে দেওয়া হবে।
তিনি বিদ্যুৎ বিভাগের কর্মকর্তাদের উদ্দেশে বলেন, আমাদের কাছে আপনাদের বিষয়ে অনেক অভিযোগ আসে। সেই শুনানিতে আমরা তা দেখবো। মানুষ তাদের অভিযোগ জানাবে। সেখানে আপনারা অভিযোগের তথ্যভিত্তিক জবাব দেবেন। আমরা থাকবো সেখানে, দেখবো আপনারা কি জবাব দিচ্ছেন। সেখানে যদি কোনো বড় অভিযোগ পাওয়া যায় তাহলে আমরা তার তদন্ত করবো, আইনগত ব্যবস্থা নেব। আমরা কাউকে ছাড় দেব না। দুর্নীতির বিরুদ্ধে আমরা সবসময় জিরো টলারেন্সে থাকবো।
দুদক কমিশনার বলেন, আমরা হঠাৎ করে শুনানি করে আপনাদের বিব্রতকর পরিস্থিতিতে ফেলতে চাই না। তাই আমরা আপনাদের মতবিনিময় সভা করে জানিয়ে দিয়েছি। এসব শুনানিতে আমাদের মতো প্যান্ট শার্ট পরা মানুষরা আসবে না, লুঙ্গি পড়া সাধারণ বঞ্চিত মানুষরাও আসবে। আমরা এদের উৎসাহিত করি।

তিনি বলেন, ‘প্রতিটি সরকারি প্রতিষ্ঠান দুর্নীতিগ্রস্থ। এটি নিয়মতান্ত্রিকভাবে হয়ে আসছে। এটা থামাতে হবে।’
সভায় মহানগর দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির প্রতিনিধিরা অভিযোগ করেন মিটার রিডাররা ঘটনাস্থলে না গিয়েই রিডিং করে, ফলে বিদ্যুৎ বিলে তারতম্য দেখা যায়। পাশাপাশি ট্রান্সফরমার পাল্টানোর ক্ষেত্রে ফি নেওয়া হয়। তবে এসব অভিযোগ অস্বীকার করেন সভায় উপস্থিত পিডিবির কর্মকর্তারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*