মানবেতর জীবন যাপন করছেন সাতকানিয়র নেয়ামত আলী পাড়ার বাসিন্দারা

ছৈয়দ মোহাম্মদ বেলাল, ২৬ জুলাই ২০১৭, বুধবার: নেয়ামত আলী পাড়া, মিয়াজি পাড়া, মেহেদী পাড়া, মোনার বাপের বাড়ী, আলীর বাপের বাড়ী নিয়ে চট্টগ্রাম জেলার সাতকানিয়া থানার ৬ নং এউচিয়া ইউনিয়নের ৯ ওয়ার্ড গঠিত। কয়েক হাজার বাসিন্দার বসবাস উক্ত ওয়ার্ডে। সাতকানিয়া থানার সবচেয়ে অবহেলিত এই জনপদের বাসিন্দারা। ডলু খালের ভাঙ্গনের অজানা আতঙ্ক নিয়ে যেমন তাদের রাতে ঘুমাতে যেতে হয় তেমনি জনপ্রতিনিধিসহ সরকারের সুদৃষ্টিও নেই সাতকানিয়া থানার ৬ নং এওচিয়া ইউনিয়নের ৯ ওয়ার্ডের বাসিন্দাদের প্রতি। ভাঙ্গা কপাল নিয়ে যেন তাদের জন্ম। বাংলাদেশের স্বাধীনতা ৪৫ পেরিয়ে গেলেও কার্যত বলার মত তেমন কোন উন্নয়ন হয়নি এই এলাকার। এই ওয়ার্ডে একটি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, ২টি নূরানি মাদ্রাসা, ১টি কেজি স্কুল ও ৩টি ফোরকানিয়া মাদ্রাসা আছে। শিক্ষায় এই ওয়ার্ড দিন দিন অগ্রসরমান হলেও সাতকানিয়া থানার মধ্যে যোগাযোগ ব্যবস্থায় অত্যন্ত পিছিয়ে আছে এই ওয়ার্ড, এমনকি ৬ নং এওচিয়া ইউনিয়নের অন্যান্ন ওয়ার্ড থেকেও পিছিয়ে। দুইটি প্রধানতম সমস্যার মুখোমুখি এখানকার বাসিন্দারা। একটি হচ্ছে ডলু খালের ভাঙ্গনের অজানা আতঙ্ক আরেকটি কাঞ্চনা ইউনিয়নের সাথে সংযোগ সড়কের বেহাল দশা। যেকোন সময় নেয়ামত আলী পাড়ার বিলীন হয়ে যেতে পারে ডলু খালের সাথে।
ডলু খালের ভাঙ্গনের আজানা আতঙ্ক নিয়ে সবচাইতে মানবেতর জীবন যাপন করছেন নেয়ামত আলী পাড়ার বাসিন্দারা। বর্ষা মওসুমে হয় রাত জেগে পাহাড়া দিতে হয় নতুবা ঘরবাড়ীসহ নিজেরা পানির স্রোতে ভেসে যাওয়ার আতঙ্ক নিয়ে রাতে ঘুমাতে হয়। তাই সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের নিকট এলাকাবাসীর প্রানের দাবী ডলু খালের নেয়ামত আলী পাড়া অংশে ভাঙ্গন রোদ কল্পে জরুরী ব্যবস্থা নেয়ার। এই ওয়ার্ডের যোগাযোগের প্রধান সড়ক হচ্ছে ডলু ব্রিজ থেকে আমিলাইষ ইউনিয়ন সড়ক যা সাতকানিয়া থেকে আমিলাইষ ইউনিয়নেরও প্রধান সড়ক। অথচ যুগের পর যুগ এই সড়কটির বলতে গেলে তেমন কোন উন্নয়ন হয়নি ৯ নং ওয়ার্ড অংশে। উন্নয়ন বলতে যদি ১০০/২০০ মিটার রাস্তায় ইট দেয়াকে বোঝায়, তাহলে এই ওয়ার্ডের বাসিন্দারা চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী মেজবানির মাধ্যমে আনন্দ প্রকাশ করতে পারে। শুষ্ক মওসুমে যেনতেন ভাবে চলাচল করা গেলেও বর্ষা মওসুমে এই ওয়ার্ডের রাস্তাগুলো দিয়ে চলা দায়। কয়েক মিটার ইটের রাস্তা থাকলেও বাকী রাস্তায় হাটু পরিমান কাদা থাকে, বিশেষ করে মোনার বাপের বাড়ী আর আলীর বাপের বাড়ির রাস্তায়। বর্ষা মওসুমে তাদের ঘর থেকে বের হতে গেলে হাটু পরিমান কাদার সাথে যুদ্ধ্ব করে কোথাও যেথে হবে।
ডলু খাল ভাঙ্গন থেকে রেহাই পেতে প্রাণপণ চেষ্টা করছে নেয়ামত আলী পাড়াবাসী
আগে ডলু খাল দিয়ে নিয়মিত নৌকা চলাচল করলেও বর্তমান তা একেবারে নেই বললেই চলে। কোন মূমর্ষ রোগী বা কোন প্রসুতি মায়ের জরুরি সেবার প্রয়োজন হলে ডাক্তারের কাছে নিতে নিতেই অনেক সময় রোগীর মৃত্যুর মত অনাকাংকিত বড় কোন দূর্ঘটনা ঘটে যায়। তাই ফজুমুহুরী জামে মসজিদ সড়ক থেকে কাঞ্চনা লতা পীরের বাজার সড়কটিও জরুরী ভিত্তিতে মেরামত করা প্রয়োজন। শহর কিংবা সাতকানিয়া থানার অন্য কোন এলাকা থেকে আগত মেহমানের নিকট প্রশ্নের সম্মুখিন হতে হয় যে, এই এলাকায় চেয়ারম্যান, মেম্বার আছে কি নাই তার। যদিও এই এলাকার বাসিন্দারাই অনেক সময় চেয়ারম্যান নির্বাচিত করার নিয়ামক শক্তি হিসাবে কাজ করে। কিন্তু স্বাধীনতার ৪৫ বছরেও এই ওয়ার্ডে এমন কোন উন্নয়ন হয়নাই যা তারা আনন্দের সহিত বলতে পারে। তাই এলাকাবাসীর প্রত্যাশা বর্তমান নবনির্বাচিত মেম্বার শহিদুল ইসলাম ৬নং এওচিয়া ইউনিয়নের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান মহোদয়ের মাধ্যমে উক্ত ওয়ার্ডের সমস্যা সমাধান কল্পে আন্তরিক চেষ্টা করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*