মাদক ও ভেজাল খাবার রোধে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে: জেলা প্রশাসক

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ইংরেজী, সোমবার: চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক (ডিসি) ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেন বলেছেন, জেলার আইন শৃংখলা পরিস্থিতি অন্যান্য মাসের চেয়ে অনেক ভালো রয়েছে। কিন্তু মাদক একটি সামাজিক ব্যাধি। মাদক ব্যবসায়ীরা বিভিন্ন কৌশল অবলম্বনের মাধ্যমে সড়ক ও নৌ-পথে মাদক পাচার করার কারনে আমাদের যুব সমাজ মাদকাসক্ত হচ্ছে। নগরীর বরিশাল কলোনীসহ মাদকের আস্তানাগুলো গুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। আসামীদের দেখা সাক্ষাতে কেন্দ্রীয় কারাগারে কোন কায়দায় যাতে মাদক না ঢুকে সে ব্যাপারে সতর্ক দৃষ্টি রাখতে হবে। আদালতের হাজতখানায় ও একই পন্থা অবলম্বন করতে হবে। প্রয়োজনে আরো সিসি ক্যামেরা সংযোজন করতে হবে। পাশাপাশি ভেজাল খাবার রোধসহ বিভিন্ন অপরাধ নিয়ন্ত্রণে সংশ্লিষ্ট প্রশাসন কাজ করে যাচ্ছে। সুস্থ জাতি গঠনে মাদক ও ভেজাল খাবার রোধে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে। জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত জেলা আইন- শৃঙ্খলা কমিটির সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।


ডিসি বলেন, । গরু চুরি রোধ, অবৈধ বালি উত্তোলন ও ব্যাটারী চালিত রিক্সা বন্ধের পাশাপাশি সড়কে যত্রতত্র গাড়ী পার্কিং, রাস্তা দখল করে দোকান নির্মানসহ বিভিন্ন অবৈধ স্থাপনা করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।
জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) নুরেআলম মিনা বলেন, জেলার সকল উপজেলায় আইন-শৃংখলা পরিস্থতি নিয়ন্ত্রনে রাখতে পুলিশ বাহিনী কাজ করে যাচ্ছে। আদালতের হাজতখানায় প্রয়োজনীয় সংখ্যক আইপি ক্যামেরা বসানো হয়েছে যাতে আসামীদের সাথে আত্মীয়-স্বজনের দেখা সাক্ষাতে ইয়াবা ও অন্যান্য মাদকদ্রব্য দিতে না পারে। সন্ত্রাসী-জঙ্গি গ্রেপ্তার, মাদক, চুরি, ডাকাতি, ও ছিনতাই রোধে পুলিশের প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।
জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত জেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভায় মাল্টিমিডয়ার মাধ্যমে গত আগস্ট মাসের খাতওয়ারী অপরাধ চিত্র, সভার সিদ্ধান্ত ও অগ্রগতি তুলে ধরেন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ সাইফুল ইসলাম।
সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) নুরেআলম মিনা, জেলা সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ আজিজুর রহমান সিদ্দিকী, মহানগর মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ইউনিট কমান্ডার মোজাফফর আহমদ, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ইউনিট কমান্ডার মো. সাহাবউদ্দিন, কোস্টগার্ড প্রতিনিধি লেফটেন্যান্ট মোঃ নাঈমুল হক, জেলা পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) এডভোকেট একেএম সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, উপজেলা চেয়ারম্যান এহছানুল হায়দার চৌধুরী বাবুল (রাউজান), তৌহিদুল হক চৌধুরী (আনোয়ারা), হোসাইন মো: আবু তৈয়ব (ফটিকছড়ি), মোহাং জসিম উদ্দিন (মীরসরাই), আলহাজ্ব মো: খলিলুর রহমান (রাঙ্গুনিয়া), চৌধুরী মো: গালিব (বাঁশখালী), ফারুক আহমদ (কর্ণফুলী), উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোমেনা আক্তার (বাঁশখালী), আছিয়া খাতুন (বোয়ালখালী), শেখ জোবায়ের আহমদ (আনোয়ারা), মোহাম্মদ মোবারক হোসেন (সাতকানিয়া), মিল্টন রায় (সীতাকু-), মো:রুহুল আমিন (মীরসরাই), মো: জোনায়েদ কবীর সোহাগ (রাউজান), মো: সায়েদুল আরেফিন (ফটিকছড়ি), সৈয়দ শামসুল তাবরীজ (কর্ণফুলী), মোঃ নুরুল হুদা (সন্ধীপ), হাবিবুল হাসান (পটিয়া), মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম মেট্রো অঞ্চলের উপ-পরিচালক শামীম আহমেদ, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর চট্টগ্রামের উপ-পরিচালক একেএম শওকত ইসলাম, পটিয়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জসিম উদ্দিন খান,সীতাকুন্ড সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শম্পা রানী সাহা, হাটহাজারী সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবদুল্লাহ আল মাসুম, সাতকানিয়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হাসানুজ্জামান মোল্লা, রাঙ্গুনিয়া সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার মো: আবুল কালাম চৌধুরী, সিনিয়র জেল সুপার মো: কামাল হোসেন, সিএমপির এসি (প্রসিকিউশন) কাজী শাহাবুদ্দিন আহমদ, হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট নিতাই প্রসাদ ঘোষ, পৌর মেয়র মো: গিয়াস উদ্দিন (মিরশ্বরাই), হাজী আবুল কালাম আবু (বোয়ালখালী) প্রমুখ। সভায় সরকারের বিভিন্নস্তরে কর্মরত কর্মকর্তাসহ আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*