মাতৃভাষা দিবস উদযাপন উপলক্ষে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের সংবাদ সম্মেলন

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১৫ ফেব্র“য়ারী: আগামী বছর থেকে ঢাকার একুশে গ্রন্থমেলার আদলে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম নগর, বাণিজ্যিক রাজধানী চট্টগ্রামেও মাসব্যাপী একক বইমেলা আয়োজনের পরিকল্পনা রয়েছে জানিয়ে মেয়র বলেন, এ নগরীর হাজার বছরের সমৃদ্ধ প্রাচীন ইতিহাস রয়েছে। কিন্তু স্বাধীনতার পর থেকে এখানে বড় পরিসরে একক কোনো বইমেলার আয়োজন হয়নি। তিনি আজ ১৫ ফেব্র“য়ারী সকাল ১০ টায় সিটি কর্পোরেশন মিলনায়তনে সিটি মেয়র উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। ctg
তিনি বলেন, আমি মনে করি একটি কার্যকর সার্থক বইমেলা একটি নগরের নাগরিকদের মননশীলতার জায়গাকে আরও সমৃদ্ধ করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। সেই উপলব্ধি থেকে আমি প্রথমবারের মতো চসিকের উদ্যোগে নগরীতে বড় পরিসরে একক একটি বইমেলার আয়োজন করতে প্রয়াসী হয়েছি।
মেয়র বলেন, বিক্ষিপ্তভাবে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র বইমেলায় না গিয়ে একটি জায়গায় প্রকাশিত নতুন সব বই একসাথে পেতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করবে মানুষ। চট্টগ্রামে যারা বিক্ষিপ্তভাবে বইমেলা করেন তাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলতে চাই আসুন চসিকের উদ্যোগে একটি সার্থক বড় পরিসরের বইমেলা করি। এতে নগরের সম্মান বাড়বে। নগরবাসীও প্রশান্ত চিত্তে একটি জায়গা তেকে নতুন বই কিনতে পারবো।
এক প্রশ্নের উত্তরে মেয়র বলেন, এবারের অভিজ্ঞতা দিয়ে আগামী বছর একটি বড় পরিসরের বইমেলা করা হবে চট্টগ্রামে। আমরা জমজমাট বইমেলা চাই। নতুন পাঠক সৃষ্টি করতে চাই। যাতে অজ্ঞতা-কুসংস্কার দূরীভূত হয়।
গুরুত্বপূর্ণ নগরী হওয়া সত্ত্বেও চট্টগ্রামের মেহেদিবাগ থেকে বাংলা একাডেমির বিক্রয় কেন্দ্রটি গুটিয়ে নেওয়া হয়েছে। এটি ফেরত আনার উদ্যোগ নেওয়া হবে কিনা জানতে চাইলে মেয়র বলেন, আমি চেষ্টা করবো। এর জন্যে সাংবাদিকদের, সচেতন মানুষেরও সহযোগিতা দরকার।
সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ১৭-২৯ ফেব্রুয়ারি নগরীর মুসলিম ইনস্টিটিউ ও শহীদ মিনার এলাকায় বইমেলা হবে। প্রতিদিন বিকাল তিনটা থেকে রাত নয়টা পর্যন্ত মেলা চলবে। এবারের বইমেলায় চট্টগ্রাম সৃজনশীল প্রকাশক পরিষদের সদস্য প্রতিষ্ঠানের বাইরে ঢাকার ২০টি প্রকাশনা সংস্থা অংশ নেবে। মেলা চলাকালীন শহীদ মিনারের সামনের সড়কে যান চলাচল বন্ধ থাকবে।
বিশেষ ভূমিকা ও অবদানের জন্যে সাতজনকে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) একুশে পদক দেওয়া হবে এবার। এর মধ্যে শিক্ষায় অধ্যক্ষ রওশন আকতার হানিফ, ক্রীড়ায় ইঞ্জিনিয়ার মাহমুদুল ইসলাম, সাংবাদিকতায় আ জ ম ওমর, সমাজসেবায় ফজল করিম, বিদ্যোৎসাহী হিসেবে মোহাম্মদ জাকারিয়া, মুক্তিযুদ্ধে লেখক-গবেষক সিরু বাঙালি এবং সংস্কৃতিকে অরুণ চন্দ্র বণিক।
সোমবার সকালে চসিকের কেবি আবদুচ ছত্তার মিলনায়তনে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ও মহান একুশে উপলক্ষে আয়োজিত বইমেলার সংবাদ সম্মেলনে পদকের জন্যে মনোনিত ব্যক্তিদের নামের তালিকা ঘোষণা করেন।

Leave a Reply

%d bloggers like this: