ভ্যাট ফেসবুকেও

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ৮ মে ২০১৭, সোমবার: খবর: নতুন মূল্য সংযোজন কর (মূসক, যা ভ্যাট নামে অধিক পরিচিত) আইনে সাধারণ মানুষের কষ্ট বাড়বে। বেশ কিছু ক্ষেত্রেই আগের চেয়ে বেশি হারে ভ্যাট দিতে হবে। এই তালিকায় আছে দেশি ব্র্যান্ডের কাপড়চোপড়, ভোজ্যতেল, চিনি, সুপারশপ, নির্মাণসামগ্রীর রড, বিদ্যুৎ বিল, সোনার গয়না ইত্যাদি। (সূত্র: প্রথম আলো, ৪ মে ২০১৭)
প্রিয় যথাযথ কর্তৃপক্ষ,
পত্রিকা মারফত জানতে পারলাম, বেশ কিছু ক্ষেত্রে আগের চেয়ে বেশি হারে ভ্যাট গুনতে হবে। আমি অতি সাধারণ এক মানুষ। নতুন এই আইনের ফলে আমার কষ্ট বাড়বে, এতে কোনো সন্দেহ নেই। তবে কষ্টটা একটু লাঘব হবে যদি আপনারা একটা সিদ্ধান্ত নেন। আমার পরামর্শ হলো, এই দেশে ফেসবুক ব্যবহারের ওপরও ভ্যাট আরোপ করুন। আমার এই লেখায় অনেকেই ‘অ্যাংরি’ বা ‘হা–হা’ রিঅ্যাক্ট করবে, এটা জানি। তবে দয়া করে আপনারা এড়িয়ে যাবেন না!
এই দেশের অধিকাংশ লোক বিদ্যাবুদ্ধি অর্জনের আগেই ফেসবুকের মতো ভয়ংকর এক ‘অস্ত্র’ পেয়ে গেছে। অথচ তারা এই ‘অস্ত্রের’ ব্যবহারবিধিটাও পড়তে জানে না। তাই এর অপব্যবহারই বেশি।
অতএব আপনাদের কাছে আমার আকুল আবেদন, ফেসবুকের লাইক, কমেন্ট, শেয়ার আর পোস্টের ওপর ভ্যাট আরোপ করুন। প্রতি লাইকে ২০ টাকা, কমেন্টে ২৫ টাকা, শেয়ারে ৩০ টাকা আর পোস্টে ৫০ টাকা করে ভ্যাট বসান। এই জাতিকে বাঁচান!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*