ভোটারদের সংগঠিত করে ভোট জালিয়াতির প্রচেষ্টা রুখে দিতে হবে: জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ২৭ ডিসেম্বর ২০১৮ ইংরেজী, বৃহস্পতিবার: জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট বাকলিয়া থানা শাখার উদ্যোগে আজ ২৭ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টা থেকে সারাদিনব্যাপি চট্টগ্রাম-৯ আসনের বিএনপি ও ঐক্যফ্রন্টের মনোনীত সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি কারানির্যাতি মজলুম জননেতা ডা. শাহাদাত হোসেনের পক্ষে গণসংযোগ ও লিপলেট বিতরণ করা হয়। বাকলিয়া থানার কালামিয়া বাজার, ইছহাকের পোল, মাস্টারপোল, মিয়াখান নগর, চর চাক্তাই, রাজাখালী, কর্ণফুলী ব্রীজ এলাকা, নয়া মসজিদ এলাকা, নুতুন চাক্তাই প্রভৃতি এলাকায় ডা. শাহাদাত হোসেনের পক্ষে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের পক্ষে গণসংযোগে অংশ নেন বাকলিয়া থানা জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতৃবৃন্দ যথাক্রমে বাকলিয়া থানার আহবায়ক কাজী মোহাম্মদ আলী হ্সাান, সদস্যসচিব এডভোকেট মো. আনিস, অধ্যাপক মো. রেজাউল করিম, ডা. গোলাম মোস্তফা, ডা. মোজাম্মেল হক সিকদার, কাজী আবদুল মান্নান, সুধীর চন্দ্র রায়, সৌরভ, বিপ্লব গাঙ্গুলী, টিটু বড়–য়া, আবদুল হালিম, মো. সরওয়ার প্রমুখ। নেতৃবৃন্দ বলেন, এবার খালি মাঠে গোল দিতে দেয়া হবে না। বিরোধী প্রার্থীদের প্রচারণায় বাধা, চাপ, হুমকী দেয়া হচ্ছে। গায়েবী মামলা দিয়ে মাঠে প্রচারণা করতে দেয়া হচ্ছে না, এটা কোন ধরনের গণতন্ত্র। চাপ, হুমকী ও সন্ত্রাস মোকাবেলা করে ভোট জাগরণ করাতে হবে। ভোটদের সংগঠিত ও সতর্ক উপস্থিতিই কেবল ভোট জালিয়াতির যে কোন প্রচেষ্টা রুখে দিতে পারে। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারীর মত এবার আর খালি মাঠে গোল দেয়ার সুযোগ দেয়া হবে না। সরকারের চালাকী জনগণ এরই মধ্যে বুঝে ফেলেছেন। সরকার পরিবর্তনের জন্য ধানের শীষের বিকল্প নেই। ঘরে ঘরে চাকুরী দেবে বলে আওয়ামীলীগ ঘরে ঘরে মামলা, হামলা করে বিরোধী রাজনৈতিক নেতা, কর্মী সমর্থকদের গায়েবীমামলা দিয়ে বাড়ী ঘর ছাড়া করেছে। তাই সরকারের পরিবর্তনের কোন বিকল্প নেই। বর্তমানে চট্টগ্রামে নারকীয় পরিবেশ বিরাজ করছে। এটা কোন নির্বাচনী পরিবেশ নয়। প্রধান নির্বাচন কমিশনার সরকারের নীল নকশা বাস্তবায়ন করে চলেছেন। জনগণ ভোটের মধ্য দিয়ে কারা নির্যাতিত মজলুম জননেতা ডা. শাহাদাত হোসেনকে মুক্ত করে আনবে ইনশাআল্লাহ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*