ভুল মেকআপ ত্বকের জন্য ক্ষতিকর

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১২ জুলাই: ভুল মেকআপ যেমন ত্বকের জন্য ক্ষতিকর তেমনি এর জন্য বয়স বেশি লাগতে পারে। তাই প্রয়োজন মেকআপের সঠিক ধারণা। মেকআপের ভুলগুলো ধরিয়ে দিচ্ছে ঢাকাটাইমস।make
অতিরিক্ত কনসিলার: যারা কনট্যুরিং করতে পছন্দ করেন, তাঁরা কনসিলার শুধু দাগছোপ লুকোতেই ব্যবহার করেন না। কনট্যুরিংয়েই কনসিলার কাজে লাগে। কিন্তু অনেকে বেশি পরিমাণে কনসিলার লাগিয়ে ফেলেন। যতই ভাল করে ফাউন্ডেশনের সঙ্গে মিলিয়ে দিন, কয়েক ঘণ্টা পর পার্থক্য ফুটে উঠবেই। এতে চোখের তলার সূক্ষ দাগগুলো আরও পরিষ্কারভাবে ফুটে ওঠে।
ভুল ফাউন্ডেশন: অনেকেই মনে করেন, ফাউন্ডেশন যত কম লাগানো যায়, তত ভাল। কিন্তু সেটা ভুল ধারণা। সবচেয়ে নিখুঁত স্কিনটোনেও গোটা মুখ একই রকম হতে পারে না। পিগমেন্টেশনের সমস্যা খুবই স্বাভাবিক। তার ঝটতি সমাধান ফাউন্ডেশন। তবে প্রত্যেক দিন খুব গাঢ় শেডের ফাউন্ডেশন না লাগানোই ভাল। কেকের মতো টেক্সচার হয়ে গেলে চেহারায় বয়সের ছাপ বোঝা যায়। তাই সারা দিনের জন্য টিন্টেড ময়েশ্চারাইজার, বিবি বা সিসি ক্রিম অথবা হালকা কোনও ফাউন্ডেশন ব্যবহার করতে পারেন। আরেকটা মারাত্মক ভুল, ফাউন্ডেশনের ভুল শেড। গায়ের রঙের সঙ্গে মিলিয়ে ফাউন্ডেশন কেনাটা খুব জরুরি। ভারতীয় স্কিনটোনের মধ্যে অনেক রকম গায়ের রং দেখা যায়। তাই কোনও প্রডাক্ট ভারতীয়দের জন্য বলে ‘লেবেল’ করা থাকলেই সেটা কিনে ফেলবেন না! ভাল দোকানে গিয়ে পেশাদারদের সাহায্য নিয়েই ফাউন্ডেশন কিনুন।
গ্রাফিক আইলাইনার: মোটা করে কাজল পরা বা আইলাইনারের সাহায্যে বেশ বড় করে চোখ আঁকা র‌্যাম্পের ‘হট’ মেকআপ ট্রেন্ড। কিন্তু নিজের চেহারায় সেটা কতটা মানাবে, যাচাই না করে গ্রাফিক আইলাইনার ব্যবহার না করাই ভাল। অনেকের চোখের আকার এমন হয়, যে মোটা করে আইলাইনার পরলে বয়স িেবশ লাগে। তাঁদের সরু রেখা টানাই ভাল। শুধু চোখের নীচের পাতায় কাজল পরলেই হবে না। উপরের পাতার ভিতর দিকেও যদি কাজল পরতে পারেন, তাহলে চেহারা অনেক ঝকঝকে লাগবে।
ব্লাশের ভুল ব্যবহার: গালের যে অংশটাকে অ্যাপ্ল বলে, ব্লাশ শুধু সেই অংশেই লাগানো উচিত। কিন্তু অনেকেই না জেনে আরও নীচের দিকে ব্লাশ লাগিয়ে ফেলেন। প্রায় পুরো গালেই! এতে দেখতে বিদ্ঘুটে তো লাগেই, বয়সও এক ঝটকায় যেন বেড়ে যায়। তাই সঠিক মেকআপ ব্রাশের সাহায্যে গালের ঠিক জায়গায় ব্লাশ লাগান। কোনও রকম বিভ্রান্তি থাকলে ইউটিউবে কোনও মেকআপ টিউটোরিয়াল দেখতে পারেন। অনেক বিউটি ব্লগারই এই ধরনের টিউটোরিয়াল করে থাকেন।
ভ্রুর দিকে নজর না দেওয়া: বয়সের সঙ্গে মানুষের ভ্রু পাতলা হয়ে আসে। সেগুলো ভাল করে গ্রুম করে আইব্রো পেনসিলের সাহায্যে এঁকে নেওয়া প্রয়োজন। নয়তো তারুণ্যের ছাপ চোখে পড়বে না। মনে রাখবেন, মানুষের দু’টো ভ্রু দু’রকম হওয়াই স্বাভাবিক। তাই দু’টো একই রকম আঁকা না হলে, সেটা নিয়ে অযথা চিন্তা করবে না।
ভুল রঙের লিপলাইনার: লিপস্টিক লাগানোর আগে লিপকালার দিয়ে ঠোঁটের আউটলাইন এঁকে নিলে লিপস্টিক লাগাতে সুবিধে হয় আর ঠোঁটও বেশি ভরাট দেখায়। কিন্তু লিপকালারের চেয়ে লিপলাইনারের শেড যদি বেশি গাঢ় হয়ে যায়, তাহলে আবার মুশকিল। এক নিমেষে বয়সটা অনেক বেড়ে যায়। তাই লিপকালারের সঙ্গে লাইনারের রং ভাল করে মিলিয়ে নিন। যদি একই রঙের লাইনার না পাওয়া যায়, তাহলে ঠোঁটের রঙের একটা লাইনার লাগাতে পারেন। তাতেও দিব্যি কাজ দেবে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: