‘ভাড়া অর্ধেকে নামিয়ে আনার দাবি’

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ০৪ মে: ডিজেলের মূল্য প্রতি লিটারে আরো ২০ টাকা কমিয়ে হ্রাসকৃত জ্বালানী তেলের মূল্যের সাথে সমন্বয় করে বাস, লঞ্চ ও রেলের ভাড়া অর্ধেকে নামিয়ে আনার দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতি। আজ ৪ মে সংগঠনের পক্ষ থেকে গণমাধ্যমে প্রেরিত একbass বিবৃতিতে গতকাল সড়ক পরিবহণ ও সেতু মন্ত্রণালয় ঘোষিত বাসের ভাড়া প্রতি কিলোমিটারে যাত্রী প্রতি ৩ পয়সা কমানোর সিদ্ধান্ত প্রত্যাখ্যান করেছে সংগঠনটি। সংগঠনের পক্ষ থেকে বলা হয়, বিশ্ববাজারের সাথে সমন্বয় করে ডিজেলের মূল্য প্রতি লিটারে আরো ২০ টাকা কমানো হলে দেশে গণপরিবহণে ভাড়া অর্ধেকে নামিয়ে আনা যাবে, পাশাপাশি কৃষি, ক্ষুদ্র শিল্পসহ দেশের নিু আয়ের লোকজনের অর্থনীতিতে প্রাণচাঞ্চল্য ফিরে আসবে। দ্রব্যমূল্য কমবে, অর্থনীতির গতিপ্রবাহ বৃদ্ধি পাবে। মানুষের জীবনে স্বস্তি আসবে। এতে করে মধ্য আয়ের দেশে যাত্রা সুনিশ্চিত হবে।
সংগঠনের পক্ষ থেকে আরো বলা হয়, সরকার জ্বালানী তেলের মূল্য মাত্র ৩ টাকা কমিয়ে বাস ভাড়া প্রতি কিলোমিটারে মাত্র ৩ পয়সা কমানোর ঘোষণা দিয়েও দেশের যাত্রী সাধারণ এতে কোন উপকৃত হবে না। তবে প্রতি ট্রিপে দূর পাল্লায় বাস মালিকের ৩০০ থেকে ৫০০ টাকা পর্যন্ত জ্বালানী বাবদ লাভবান হবে। কিন্তু কমানো ভাড়া কোন গণপরিবহণে বাস্তবায়ন সম্ভব হবে না।
বিবৃতিতে আরো বলা হয়, জ্বালানীর মূল্য কমানো হলে পরিবহন মালিকগণ পরিবহন ভাড়া না কমানোর জন্য নানা অজুহাত উপস্থাপন করছে। বিগত ২৬ বছরে ৪ দফা জ্বালানী তেলের মূল্য কমলেও দেশের পরিবহন খাতে ভাড়া কমেনি। গত ২৫ অক্টোবর ২০০৮ সালে ৫৫ টাকার ডিজেল ৭ টাকা কমে ৪৮ টাকা হলে পরিবহন ভাড়া যাত্রী প্রতি কিলোমিটারে ০৭ পয়সা কমানো হয়। গত ১২ জানুয়ারী ২০০৯ সালে ৪৮ টাকার ডিজেলের মূল্য কমে ৪৪ টাকা নির্ধারণ করায় যাত্রী প্রতি বাস ভাড়া প্রতি কিলোমিটারে ০৪ পয়সা কমানো হয়। এরপর পরিবহন মালিকদের দাবীর প্রেক্ষিতে পরিবহন সেক্টর শিল্প খাত ঘোষনা ও জ্বালানীর মূল্য ৪৪ টাকা থেকে কমে ৪০ টাকা হলে মন্ত্রনালয়ের পক্ষ থেকে বাস ভাড়া যাত্রী প্রতি কিলোমিটারে ০৫ পয়সা কমানোর ঘোষনা দেয়া হয়। এই সকল ক্ষেত্রে বাস ভাড়া কমানোর ক্ষেত্রে কাগজে পত্রে এই ভাড়া কমানো হলেও প্রকৃত পক্ষে কোন বাস-মিনিবাস কমানো ভাড়া কার্যকর করা যায়নি বলে অভিযোগ করেন সংগঠনটি। উপরোক্ত ক্ষেত্রে কোন সময় একমাত্র ডিজেলে চালিত লঞ্চ ও রেলের ভাড়া কোন সময় কমানো হয়নি। সরকার জনস্বার্থে জ্বালানীর মূল্য কমালেও গুটি কয়েক পরিবহন মালিক এই সুবিধা ভোগ করছে, দেশে যাত্রী সাধারণসহ সকল ক্ষেত্রে আপামর জনগন এর সুফল থেকে বারবার বঞ্চিত হয়েছে বলে বিবৃতিতে অভিযোগ করা হয়।
এমতাবস্থায় অনতিবিলম্বে ডিজেলের মূল্য আরো ২০ টাকা কমিয়ে বাস, লঞ্চ ও ট্রেনের ভাড়া অর্ধেকে নামিয়ে আনার জন্য সরকারের প্রতি জোর দাবি জানানো হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*