ভারতের নয়া পলিসির নাম প্রতিবেশী প্রথম

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ০৮ জুন ২০১৯, শনিবার: দ্বিতীয়বার ক্ষমতায় আসার পর একগুচ্ছ উপহার নিয়ে বিদেশ সফর শুরু করছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। চলতি সপ্তাহের শেষেই উপহারের ঝুলি নিয়ে তিনি সফর করবেন প্রতিবেশী দেশ শ্রীলঙ্কা ও মলদ্বীপে। উপহারের ঝুলিতে থাকছে ক্রিকেট স্টেডিয়াম থেকে শুরু করে পোর্ট টার্মিনাল। ভারত মহাসাগরের বিভিন্ন দেশে ক্রমশ আধিপত্য বিস্তার করছে চীন। আর চীনের সেই বাড়বাড়ন্ত ঠেকানোই হবে মোদির এই বিদেশ সফরের মূল লক্ষ্য।
শ্রীলঙ্কা ও মালদ্বীপ- দুই দেশেই সাম্প্রতিককালে বিশেষ ক্ষমতা বিস্তার করছে চীন। যা ভারত সরকারকে চিন্তায় ফেলে দিয়েছে। একাধিক প্রজেক্ট তৈরি করছিল চীন। এইসব দেশের সঙ্গে সেনাবাহিনীর সংযোগ বাড়ানোর চেষ্টাও চলছিল। তাই এবার বিশেষ উদ্যোগ নিচ্ছে মোদি সরকার।
ভারতের এই নয়া পলিসির নাম ‘প্রতিবেশী প্রথম’। এই পলিসিতে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলির সঙ্গে বিশেষ সংযোগ তৈরির চেষ্টা করবে নয়াদিল্লি। যদিও পাকিস্তানের সঙ্গে সুসম্পর্ক তৈরির আশা ক্ষীণ।
সম্প্রতি দক্ষিণ এশিয়ার পরিস্থিতি নিয়ে দেশটির নতুন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জয়শঙ্কর বলেন, ‘গোটা বিশ্বে এই অংশেই সংযোগ সবথেকে কম। অন্যান্য প্রতিবেশীদের তুলনায় ভারতের সম্পদ অনেক বেশি।’
শনিবার মালদ্বীপে যাচ্ছেন মোদি। দেশটির পার্লামেন্টে বক্তব্য রাখবেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী। এছাড়া ভারতের অনুদানে তৈরি দুটি প্রজেক্টেরও উদ্বোধন করবেন তিনি। একটি কোস্টাল রাডার সিস্টেমের উদ্বোধন করবেন, সেইসঙ্গে সেনাবাহিনীর জন্য একটি বিশেষ ট্রেনিং সেন্টারও খোলা হবে সেখানে।
ভারতের পররাষ্ট্র সচিব বিজয় গোখলে জানিয়েছেন, একটি ক্রিকেট স্টেডিয়াম উদ্বোধন করার ব্যাপারে ও মালদ্বীপ থেকে ভারতে নৌপথে যোগাযোগ তৈরি করার জন্য সেদেশের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে কথা বলবেন প্রধানমন্ত্রী মোদি।
রবিবার তিনি শ্রীলঙ্কা সফর করবেন। কিছুদিন আগেই এক ভয়াবহ জঙ্গি হামলার শিকার হয়েছে সেই দেশ। তাই নিরাপত্তাই হবে আলোচনার প্রধান বিষয়বস্তু।
শুধু এই দুই দেশ নয়, আরও কয়েকটি দেশের ও ভারত এই ধরনের বিভিন্ন প্রজেক্ট করবে বলে জানা গিয়েছে। যেমন কলম্বোতে একটি পোর্ট টার্মিনাল তৈরি করা হবে জাপানের সঙ্গে চুক্তি করে। এইভাবে অন্যান্য দেশের সঙ্গে চুক্তিতে বিভিন্ন প্রতিবেশী দেশে একাধিক প্রকল্প গড়ে দেবে নয়াদিল্লি। আর এভাবেই সংযোগ বাড়ানোর পরিকল্পনা করেছে মোদি সরকার।

Leave a Reply

%d bloggers like this: