‘ভারতীয় বিমানবাহিনীর মিসাইলই ধ্বংস করে ছিল ভারতীয় হেলিকপ্টার’

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ৪ অক্টোবর ২০১৯ ইংরেজী, শুক্রবার: শুক্রবার ভারতীয় বিমানবাহিনী (বায়ুসেনা) প্রধান রাকেশ কুমার সিং ভাদরিয়া ভুল স্বীকার করে বলেছেন, কাশ্মিরের শ্রীনগরে গত ২৭ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানি চপার (হেলিকপ্টার) মনে করে যে চপারটিকে গুলি নামানো হয়েছিল তা আসলে ছিল ভারতীয় হেলিকপ্টার। যা বড় ভুল ছিল ভারতীয় বিমানবাহিনীর।


গত ২৬ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানের আজাদ কাশ্মিরের বালাকোটে ভারতের তথাকথিত বিমান হামলার পরদিন ২৭ ফেব্রুয়ারি কাশ্মিরের শ্রীনগরে একটি এমআই-১৭ ভি৫ হেলিকপ্টারকে গুলি করে নামিয়েছিল ভারতীয় বিমানবাহিনীর সদস্যরা। সেই সময় এই হেলিকপ্টারকে পাকিস্তানের হেলিকপ্টার বলে মনে করেছিল ভারত। যদিও এই ঘটনার পর প্রায় ৯ মাস পর শুক্রবার (৪ অক্টোবর) ভারতীয় বিমানবাহিনী প্রধান রাকেশ কুমার সিং ভাদরিয়া ভুল স্বীকার করে বলেন, ওই দিন পাকিস্তানি হেলিকপ্টার মনে করে যে হেলিকপ্টারকে গুলি নামানো হয়েছিল তা আসলে ছিল ভারতীয় হেলিকপ্টার। যা বড় ভুল ছিল ভারতীয় বিমানবাহিনীর। যাতে প্রাণ হারিয়েছিলেন ভারতীয় বিমানবাহিনীর ৬ কর্মকর্তা ও এক জন ভারতীয় বেসামরিক নাগরিক।
তদন্তে ভারতীয় বিমানবাহিনীর প্রধান বলেন, ওই দিনের ঘটনা বড় ভুল ছিল। ভারতীয় বিমানবাহিনীর মিসাইলই ধ্বংস করে ছিল ভারতীয় হেলিকপ্টার। এই ঘটনায় ইতোমধ্যে অপরাধীদের বিরুদ্ধে যথোপযুক্ত পদক্ষেপ নিয়েছে ভারতীয় বিমানবাহিনী।
তদন্তে দেখা যায় হেলিকপ্টারটিকে সাধারণ ভাবে গুলি চালিয়ে ও স্পাইডার এয়ার ডিফেন্স মিসাইলের সাহায্যে ভূপাতিত করে ভারতীয় বিমানবাহিনী। পরে জানা যায়, হেলিকপ্টারটি ওড়ার ১০ মিনিটের মাথাতেই তাকে গুলি করে নামানো হয়। যাতে কপ্টারটি সরাসরি জমিতে আছড়ে পড়ে ও তাতে আগুন লেগে যায়। যার জেরে প্রাণ যায় ভারতীয় বিমানবাহিনীর ৬ কর্মকর্তা ও বেসামরিক এক ভারতীয় নাগরিকের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*