ভলান্টিয়ার ফর বাংলাদেশ চট্টগ্রাম জেলার রাউজান বৃদ্ধাশ্রমে স্কুল সারভাইবাল প্রোগ্রাম-২ সম্পন্ন

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ডিসেম্বর ২০, ২০১৬, মঙ্গলবার: পরিবারকে সামনে থেকে একসময় যারা পরিচালনা করেছেন যারা পরিবারের ভরন পোষণ চালিয়েছেন তারা আজ পরিবার নামক বন্দন থেকে অনেক দূরে, তাদেরই আপন জনরা এই বৃদ্ধাশ্রম এ রেখে গিয়েছে কারণ তারা নাকি এখন ব্যাক ডেটেট।
ভলান্টিয়ার ফর বাংলাদেশ চট্টগ্রাম জেলার একটি টিম তাদের জন্য ১টি দিন বরাদ্দ করে গিয়ে ছিলেন আমেনা বশর বৃদ্ধাশ্রম এ, হাসি আনন্দে তাদের সাথে ভাগ করে নেয় দিনটি।
৩টি সেশনে ভাগ করা প্রোগ্রাম টি তে প্রথম এ ভলান্টিয়ার ফর বাংলাদেশ এর সাথে যাওয়া নিউট্রিশিনিস্ট মোরশেদা রহমান মুক্তা পুষ্টিগুণ সম্পর্কিত সকল তথ্য তুলে ধরেন, এর পর জুমার নামাজের বিরতি।
দুপুরের খাবারের পর শুরু হয় ডাঃ মিনহাজুল আলম এর রোগী দেখা, আপনজনের মত তাদের সকল সুবিধা অসুবিধা জেনে নেওয়া। স্কুল সারভাইবাল-২তে যারা ছিলো ভাইস প্রেসিডেন্ট শওকত আরাফাত, সেক্রেটারি জিয়াউল হক সোহেল, প্রোগ্রাম প্রোজেক্ট অফিসার ইমরান বিন কায়েস, ডাঃ মিনহাজুল আলম, নিউট্রিশনিষ্ট মোরশেদা রহমান মুক্তা, ওসমান গনি, মৌসুমী হোসাইন মিতু, আব্দুল্লাহ আল মামুন, কাউসার, হাসবি, আদনান, রাশেদুল কবির ফরহাদ, সাজ্জাদ কোরেশী, হাসিবুর রহমান। পুরো প্রোগ্রাম কো-অরডিনেট করেন পাবলিক রিলেশন অফিসার আতিকুস সামাদ।
এরপর চলে তাদের জীবনের সুখ দুঃখের ঘটনা শোনা পরিবার এর আপনজন রা কিভাবে কখন দিয়ে গেলো এই আশ্রম এ। চলে আসার সময় সকলের চোখ ছলছল হয়ে উঠে। কথা দিয়ে আসি আমরা আবার আসবো।

Leave a Reply

%d bloggers like this: