বেরোবিতে ভর্তি জালিয়াতি চক্রের সন্ধান

নিউজগার্ডেন ডেস্ক : রংপুরের বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে (বেরোবি) ২০১৪-১৫ সেশনের প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় বদলি পরীক্ষা দিয়ে গত মঙ্গলবার (২৬ মে) বিজনেজ brurস্টাডিজ অনুষদে ভর্তিচ্ছু আটক শিক্ষার্থীর সঙ্গে জড়িত জালিয়াতি চক্রের সন্ধান মিলেছে। আটক ওই শিক্ষার্থীর জবানবন্দিতে দেয়া মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে বিশ্ববিদ্যালয়ের এক কর্মচারীসহ দুই শিক্ষার্থী জড়িত থাকার তথ্য পাওয়া গেছে। পুলিশ প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানতে পেরেছে আটক শিক্ষার্থীর নাম জাকির হোসেন। সে লালমনিরহাট জেলার কালিগঞ্জ থানার আবু তাহেরের ছেলে। সে বিজনেজ স্টাডিজ অনুষদে ৬ষ্ঠ মেধাক্রমে উত্তীর্ণ হয়। আটক শিক্ষার্থী জবানবন্দিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীসহ একজন কর্মচারীর জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে। আটক শিক্ষার্থীর কাছ থেকে তার নিকট আত্মীয়ের মুঠোফোনের নাম্বার সংগ্রহ করে তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করলে জালিয়াতির সাথে বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস ও প্রতœতত্ত্ব বিভাগের কর্মচারী ও রসায়ন বিভাগের ২০১১-২০১২ শিক্ষাবর্ষের দুইজন শিক্ষার্থী জড়িত থাকার বিষয়টি প্রকাশ পায়। জানা যায়, বদলি পরীক্ষা দিয়ে ভর্তির প্রতিশ্রুতি দিয়ে এই জালিয়াতি চক্র তার অভিভাবকের কাছ থেকে তিন ধাপে (পরীক্ষার আগে নগদ ৩০ হাজার টাকা, মেধা তালিকায় উত্তীর্ণ হওয়ার পর ৩০ হাজার টাকা এবং সাক্ষাৎকার দেওয়ার পর ৭০ হাজার টাকা) মোট ১ লাখ ৩০ হাজার টাকার আর্থিক লেনদেন করে। অপরদিকে, ভর্তি জালিয়াতির সাথে সংশ্লিষ্ট যে সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীর নামে অভিযোগ উপস্থাপিত হয়েছে এবং গণমাধ্যমে এসেছে তার বস্তুনিষ্ঠতা যাচাইয়ে সোমবার (২৫ মে) কেন্দ্রীয় ভর্তি কমিটির সভায় গণিত বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. আর এম হাফিজুর রহমানকে আহ্বায়ক করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠিত হয়েছে। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে গণিত বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ও তদন্ত কমিটির আহ্বায়ক ড. আর এম হাফিজুর রহমান বলেন, জালিয়াতির সাথে যাদের সম্পৃক্ততা আছে তাদের সনাক্ত করে আইনের আওতায় এনে কঠোর শাস্তি প্রদানের ব্যবস্থা করা হবে। এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর শাহীনুর রহমান বলেন, ‘আমরাও জানতে চাই আসলে জালিয়াতি চক্রে কারা জড়িত আছে আর কারাই বা এর পেছনের শক্তি হিসাবে কাজ করছে।’ এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের পুলিশ ক্যাম্পের ইন-চার্জ শফিকুল ইসলাম জানান, ‘জড়িত থাকার ব্যাপারটি জানানো হয়েছে। জালিয়াতি চক্র সনাক্ত করতে তদন্ত প্রক্রিয়া চলছে। সূত্র : শীর্ষ নিউজ

Leave a Reply

%d bloggers like this: