বেকারত্ব বেসরকারি বিনিয়োগে স্থবিরতা না কাটায় কমেনি

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ২৮ মে: অর্থবছরের শুরুতে কতই না স্বপ্ন দেখিয়েছিলেন অর্থমন্ত্রী। কাটবে বেসরকারি ও বিনিয়োগের স্থবিরতা, কাজের সুযোগ হবে অন্তত সাড়ে ১৩ লাখ মানুষের। সেসব আশাতেই বালি।baker
বেসরকারি বিনিয়োগের খরায় আরো একটি বছর পার করল বাংলাদেশ। যেটুকু হয়েছে তাতেও হয়নি পর্যাপ্ত কর্মসংস্থান। গেল দেড় দশকে সবচেয়ে বেশি বেকার এখন দেশে।
জিডিপির অনুপাতে যা কমেছে বছর ব্যাবধানে।
বিশ্লেষকরা বলছেন, এর জন্য দেশের অবকাঠামো দুর্বলতা বড় কারণ। তবে ব্যবসায়িদের আস্থা ফেরাতে তারচেয়েও বেশি দরকার সুষ্ঠু গণতান্ত্রিক-রাজনৈতিক পরিবেশ।
বেসরকারি বিনিয়োগে স্থবিরতা ও কর্মসংস্থান হচ্ছে না, তবে মোট দেশজ আয়ে প্রবৃদ্ধির অঙ্ক ছাড়িয়েছে ৭ এর অঙ্ক। এমনই এক অদ্ভুত অর্থনৈতিক অবস্থায় এখন বাংলাদেশ।
কিছু মানুষের ভোগ বিলাসে সম্ভাব্য প্রবৃদ্ধির অঙ্কটা ৭ ছাড়াচ্ছে ঠিকই, তবে জিডিপির অনুপাতে বেসরকারি বিনিয়োগ কমেছে গেল বছরের চেয়েও। ২২ দশমিক ০৭ শতাংশ থেকে নেমে এসেছে ২১ দশমিক ৭৮ শতাংশে। কর্মসংস্থানের পরিস্থিতি আরো ভয়াবহ। পরিসংখ্যান ব্যুরোর সাম্প্রতিক হিসাবে বছরে সাড়ে ১৩ লাখ তো দূরের কথা, গেল ২ বছর মিলিয়েই কাজের সুযোগ মিলেছে মাত্র ৬ লাখ লোকের।
সরকারি বিনিয়োগই যা কিছুটা ভরসা। গেল বছরের চেয়ে যা বেড়েছে আরো। বলা হয়ে থাকে যার প্রভাব বেসরকারি বিনিয়োগেও। তবে বাস্তবতা বরাবরের মতই ভিন্ন। অথচ বছর জুড়েই রাজনীতির মাঠও ছিল আপাতত শান্ত। প্রশ্ন হল তারপরেও উদ্যোক্তাদের কেন এত অনাস্থা।
কেন্দ্রীয় ব্যাংকের হিসাবে দেশে এ বছর বেসরকারি খাতে ঋণ প্রবাহের হার বেশি। তবে তথ্য উপাত্ত বলছে, এ টাকা মূলধনী যন্ত্রপাতি কিংবা শিল্পের কাঁচামাল আমদানিতে ব্যবহার হয়েছে সামান্যই। সূত্র: চ্যানেল ২৪ টিভি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*