বিস্মিত ফুটবল বিশ্ব

নিউজগার্ডেন ডেস্ক : মেসি ও বার্সেলোনার মিত্ররা তো বটেই, ‘শত্র“’রাও হতভম্ব হয়ে গেছেন পুরো ঘটনায়। রিয়াল মাদ্রিদের কোচ কার্লো আনচেলোত্তি পর্যন্ত বলেছেন, বার্সেলোনার এই ভয়ঙ্কর গৃহবিবাদে আনন্দ করার কিছু দেখছেন না তিনি; এটা ফুটবলের জন্যই দুঃখজনক। আর স্প্যানিশ মিডিয়া এই দুঃখজনক ঘটনার naimarসমাপ্তি দেখছে লিওনেল মেসির চেলসিতে চলে যাওয়ার সম্ভাবনায়! পুরো ব্যাপারটা শুরু হয়েছিল বার্সেলোনার নতুন কোচ লুই এনরিকের সঙ্গে মেসিসহ গার্দিওলা যুগের তারকা খেলোয়াড়দের বিবাদে। এই বিবাদে এর মাঝে জাভি ট্রেনিং সেশন বয়কট করার পর রিয়াল সোসিয়াদাদের বিপক্ষে ম্যাচের আগে ট্রেনিং সেশনে অনুপস্থিত থাকেন মেসিও। বার্সেলোনা অবশ্য ব্যাখ্যা দেয় মেসির পেটে ব্যথা! এই ব্যাখ্যা কেউ বিশ্বাস করেনি। কারণ একদিকে কোচ-মেসির গণ্ডগোলের খবরের মধ্যেই ক্লাবের অন্তর্বর্তীকালীন সভাপতি বার্তেমিউ বরখাস্ত করেন মেসিদের প্রিয় মানুষ, ক্লাবটির ক্রীড়া পরিচালক জুবিজারেত্তাকে। এই ঘটনার আধা ঘণ্টার মধ্যে জুবিজারেত্তার সহকারী হিসেবে এ বছরই কাজ শুরু করা বার্সেলোনার কিংবদন্তি অধিনায়ক কার্লোস পুওলও পদত্যাগ করেন। এ ঘটনাগুলোই যথেষ্ট ছিল গুঞ্জন তৈরি করার জন্য। 2এর মধ্যে লিওনেল মেসি নিজে চেলসি এবং চেলসির এক ঝাঁক তারকাকে ইনস্ট্রাগামে ফলো করা শুরু করেছেন। উল্লেখ্য, মেসি কখনোই বার্সেলোনা বা আর্জেন্টিনার সতীর্থদের ছাড়া ইনস্ট্রাগামে ফলো করেন না। ফলে এমন একটা ধারণা তৈরি হয়েছে যে, মেসি চেলসিতেই যাচ্ছেন। মেসিকে কিনতে এদিকে ব্যাংক খালি করার ঘোষণাও দিয়ে রেখেছেন চেলসি মালিক রোমান আবামোভিচ। যদিও চেলসির এত দামি খেলোয়াড় কেনায় উয়েফার নীতিতে কিছু সমস্যা হবে। সেটাও ম্যানেজ করতে রাজি চেলসি কর্তৃপক্ষ। মাঠ অবশ্য চেলসি ফাঁকা পাচ্ছে না। বার্সেলোনার গৃহদাহের খবরে মাঠে নেমে পড়তে যাচ্ছে পিএসজি ও ম্যানচেস্টার সিটিও। তবে বার্সেলোনা কর্তৃপক্ষও নাকি দ্রুত সমস্যা সমাধানে পদক্ষেপ নিতে শুরু করেছে। মেসিদের প্রিয় লোকজনকে বরখাস্ত করার পর বিপরীত পক্ষের এনরিকেকেও নাকি দু দিনের নোটিস ধরিয়ে দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে সব সমস্যা সমাধান করতে না পারলে পথ মাপতে হবে তাকেও!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*