বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির নির্বাচন চলছে

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ৭ ডিসেম্বর, বুধবার: বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি (ডুটা) নির্বাচন ২০১৭। বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা থেকে শুরু হওয়া এই ভোটগ্রহণ কার্যক্রম চলবে দুপুর দুইটা পর্যন্ত।1
দীর্ঘ বিরতির পর এবারের নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে বামদল সমর্থিত গোলাপী দলের শিক্ষকরা। এছাড়া বরাবরের মতো লড়বে আওয়ামী লীগ সমর্থিত নীল দল ও বিএনপি-জামায়াত সমর্থিত সাদা দল।
নির্বাচনে পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে ব্যালট পেপারে প্রার্থীর নামের ডান পাশের খালি ঘরে ক্রস চিহ্ণ দেওয়ার এবং ব্যালট পেপার ভাজ না করার নির্দেশ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন।
নির্বাচন পরিস্থিতি জানিয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক তোফায়েল আহমদ চৌধুরী ঢাকাটাইমসকে বলেন, নির্বাচনে ১৫টি পদে তিনটি দল থেকে মোট ৪৫টি মনোনয়নপত্র জমা পড়েছে। এর মধ্যে সভাপতি পদে তিনজন, সহ-সভাপতি পদে তিনজন, কোষাধ্যক্ষ পদে তিনজন, সাধারণ সম্পাদক পদে তিনজন এবং যুগ্ম সাধারণ-সম্পাদক পদে তিনজন নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন। আর ১০টি সদস্য পদের বিপরীতে তিন দল থেকে মোট ৩০ জন মনোনয়ন জমা দিয়েছে।
বাম মতাদর্শ সমর্থিত শিক্ষকদের গোলাপী দল থেকে সভাপতি পদে প্রার্থী হয়েছেন কমিউনিস্ট পার্টির নেতা ও অর্থনীতি বিভগের অধ্যাপক এম এম আকাশ এবং সাধারণ সম্পাদক পদে অধ্যাপক শেখ হাফিজুর রহমান কার্জন।
সহ-সভাপতি পদে সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক নেহাল করিম, যুগ্ম-সম্পাদক পদে পালি এন্ড বুদ্ধিস্ট বিভাগে অধ্যাপক সুমন কান্তি বড়ুয়া এবং কোষাধ্যক্ষ পদে ব্যবস্থাপনা বিভাগের অধ্যাপক মোহাম্মদ মহিউদদীন লড়ছেন।
সদস্য পদে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন ইংরেজি বিভাগের অধ্যাপক ফকরুল আলম, অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক শফিক উজ জামান, পুষ্টি বিজ্ঞান ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক এম আকতারুজ্জামান এবং দর্শন বিভাগের অধ্যাপক এ কে এম সালাউদ্দিন।
বিগত কয়েক বছরের ধরে শিক্ষক সমিতি নির্বাচনে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সমর্থিত দল নির্বাচিত হয়ে আসছে। তাই এ বছরও নীল দলের প্রার্থীরা আশা করছেন তারাই নির্বাচনে জয় লাভ করবেন। এবার আওয়ামী লীগ সমর্থিত শিক্ষকদের নীল প্যানেল থেকে সভাপতি প্রার্থী হিসেবে বর্তমান কমিটির সাধারণ সম্পাদক মাস্টারদা সূর্যসেন হলের প্রাধ্যক্ষ এ এস এম মাকসুদ কামাল এবং সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী হিসেবে কবি জসিম উদদীন হলের প্রাধ্যক্ষ ও আইন বিভাগের অধ্যাপক রহমত উল্যাহ প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।
সহ-সভাপতি পদে ব্যাংকিং এন্ড ইনসুরেন্স বিভাগের অধ্যাপক ও সিনেট সদস্য শিবলী রুবাইতুল ইসলাম, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক পদে টেলিভিশন ও চলচ্চিত্র বিভাগের চেয়ারম্যান ও সিনেট সদস্য অধ্যাপক আবু জাফর মো. শফিউল আলম ভুঁইয়া এবং কোষাধ্যক্ষ পদে ফলিত গণিত বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক আব্দুস ছামাদ প্রার্থী হয়েছেন।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির বর্তমান কমিটির সভাপতি ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন এবং অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ আসন্ন নির্বাচনে ১ নং সদস্য পদের জন্য লড়বেন। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ও সিন্ডিকেটের সদস্য এবং বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতির দায়িত্বে রয়েছেন।
এছাড়া নীল দলের অন্যান্য সদস্য প্রার্থীরা হলেন- জীব বিজ্ঞান অনুষদের ডিন ও উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. ইমদাদুল হক, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক ও পরিচালক ড. মাহবুবা নাসরীন, খাদ্য ও পুষ্টি বিজ্ঞান ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক ও হাজী মুহাম্মদ মুহসীন হলের প্রাধ্যক্ষ ড. মো. নিজামুল হক ভূঁইয়া, বাংলা বিভাগের অধ্যাপক ও বঙ্গবন্ধু হলের সাবেক প্রাধ্যক্ষ ড. মো. বাইতুল্ল্যাহ কাদেরী, ক্লিনিক্যাল ফার্মেসি ও ফার্মাকোলজির অধ্যাপক ড. এস এম আব্দুর রহমান, সিনেট সদস্য ও ইংরেজি বিভাগের অধ্যাপক তাজিন আজিজ চৌধুরী, লেদার এন্ড টেকনোলজি এবং ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিউটিটের পরিচালক ও সিনেট সদস্য অধ্যাপক ড. মো. আফতাব আলী শেখ, পালি এন্ড বুড্ডিস্ট বিভাগের চেয়ারম্যান ড. বিমান চন্দ্র বড়ুয়া, রোবটিক্স এবং মেকাটনিক্স বিভাগের চেয়ারম্যান ও সহযোগী অধ্যাপক লাফিফা জামাল।
২০১৪ সালের শিক্ষক সমিতি নির্বাচনে সাদা দল ১৫টির মধ্যে ছয়টি আসন পায়। ২০১৫ সালের শিক্ষক সমিতি নির্বাচনে সাদা দল থেকে কোনো প্রার্থীই জয়ী হতে পারেনি। আর ২০১৬ সালের নির্বাচনে তারা মাত্র একটি পদে জয়লাভ করেছিল। এ বছর বিএনপি সমর্থিত শিক্ষকদের সাদা প্যানেলের সভাপতি প্রার্থী হিসেবে ব্যবস্থাপনা বিভাগের অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন। আর সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী হিসেবে লড়ছেন ইন্টারন্যাশনাল হলের প্রাধ্যক্ষ এবং পরিসংখ্যান, প্রাণপরিসংখ্যান ও তথ্যপরিসংখ্যান বিভাগের অধ্যাপক লুৎফর রহমান। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ও সিন্ডিকেটের সদস্য।
সহ-সভাপতি পদে সিনেট সদস্য এবং প্রাণরসায়ন ও অনুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. লায়লা নূর ইসলাম, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক পদে সমাজকল্যাণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক ড. গোলাম রব্বানী এবং কোষাধ্যক্ষ পদে সিনেট সদস্য ও মার্কেটিং বিভাগ অধ্যাপক ড. মো. মোর্শেদ হাসান খান নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন।
এছাড়া সদস্য পদের জন্য লড়ছেন-সিনেট সদস্য এবং প্রাণরসায়ন ও অনুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. ইয়ারুল কবীর, সিনেট সদস্য এবং পদার্থ বিজ্ঞানের অধ্যাপক ড. এ বি এম ওবায়দুল ইসলাম, সিনেট সদস্য এবং প্রাণরসায়ণ ও অনুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. মামুন আহমেদ, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ ছিদ্দিকুর রহমান খান, ফলিত রসায়ন ও কেমিকৌশল বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ কামরুজ্জামান, মৃত্তিকা, পানি ও পরিবেশ বিভাগের অধ্যাপক ড. আখতার হোসেন খান, উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগের অদ্যাপক ড. আবদুল করিম, ফার্মাসিউটিক্যাল কেমিস্ট্রি বিভাগের অধ্যাপক ড. আসলাম হোসেন, পালি ও বুদ্ধিস্ট স্টাডিজ বিভাগের অধ্যাপক ড. সুকোমল বড়ুয়া, শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক ও পরিচালক মিসেস হোসনে আরা বেগম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*