বিএনপি বিনা কারণে মানুষ পুড়িয়ে মারছে : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

নিউজগার্ডেন ডেস্ক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বিনা কারণে মানুষ পুড়িয়ে মারছে বিএনপি-জামায়াত জোট। তাদের কাছে এসব নিরীহ মানুষের Hasinaজীবনের কোন মূল্য নেই। তারা অকারণে সাধারণ মানুষকে পুড়িয়ে মারছে। যারা পুড়ছেন, যারা মারা যাচ্ছেন, তারা সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষ। তাদের জীবনের মূল্য বিএনপির কাছে নেই। হরতাল-অবরোধে এ পর্যন্ত ১০০-এর কাছাকাছি মানুষ মারা গেছেন। বহু মানুষ পেট্রল বোমায় পুড়ে দগ্ধ হয়েছেন। বাংলাদেশে কোন জঙ্গি-সন্ত্রাসীদের স্থান হবে না। দেশের মানুষ যাতে শান্তিতে নিরাপদে থাকতে পারে তা আমাদের নিশ্চিত করতে হবে। আজ সকালে কালিয়াকৈরের সফিপুর আনসার ভিডিপি একাডেমিতে বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর ৩৫তম জাতীয় সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, যখন দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছি ঠিক সেই সময় বিএনপি মানুষকে পুড়িয়ে মারছে। সহিংসমূলক কর্মকাণ্ড চালাচ্ছে। আমরা দেশের ছেলেমেয়েকে শিক্ষিত করতে চাই। বিনা মূল্যে তাদের বই দিচ্ছি। কিন্তু হরতাল-অবরোধের কারণে ছেলেমেয়েরা এসএসসি পরীক্ষা ঠিকমতো দিতে পারছে না। এ সময় সহিংস কর্মকাণ্ড দেশকে ধ্বংসের দিকে ঠেলে দিচ্ছে। তিনি বলেন, কোন বাধা ও ষড়যন্ত্র দেশকে দমিয়ে রাখতে পারবে না। সাধারণ মানুষের জানমাল রক্ষা সরকারের দায়িত্ব। আনসার বাহিনীর সদস্যরা অন্যান্য বাহিনীর সঙ্গে তাল মিলিয়ে কাজ করছে। তারা মহাসড়কে মানুষের জানমাল রক্ষায় দায়িত্ব পালন করেছ। নারীর ক্ষমতায়নেও তারা কাজ করেছে। তিনি আরো বলেন, সাত বছর পর সৌদি আরবে সামান্য খরচে দেশের মানুষ যাচ্ছে। বিদেশে ৮৫ লাখ মানুষ কর্মসংস্থান সৃষ্টি করতে পেরেছে। অর্থনৈতিকভাবে দেশ এগিয়ে গেছে। দেশের মাথাপিছু আয় বেড়েছে। জীবনযাত্রার মান উন্নত হয়েছে। আগামী ৪ বছরের মধ্যে ১০ শতাংশ দারিদ্র্য কমবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন প্রধানমন্ত্রী। এর আগে সকাল ১০টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গাজীপুরের কালিয়াকৈরের সফিপুর আনসার ভিডিপি একাডেমিতে পৌঁছান। সেখানে বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর সমাবেশে উপস্থিত থেকে কুচকাওয়াজে অভিবাদন ও সালাম গ্রহণ করেন। সূত্র :মানবজমিন

Leave a Reply

%d bloggers like this: