বিএনপি চেয়ারপারসন আদালতে

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৯ ইংরেজী, বৃহস্পতিবার: গ্যাটকো দুর্নীতি মামলায় হাজিরা দিতে আদালতে নেওয়া হয়েছে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে। বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টার পর তাকে কারাগার থেকে বকশিবাজারের আলিয়া মাদ্রাসার অস্থায়ী বিশেষ জজ আদালতে নেওয়া হয়। সেখানে স্থাপিত বিশেষ জজ ঢাকার ৩ নম্বর আদালতের বিচারক সৈয়দ দিলদার হোসেনের আদালতে আজ মামলাটির অভিযোগ গঠনের শুনানি হওয়ার কথা রয়েছে। এর আগে গত ২৪ জানুয়ারি কারাগার থেকে খালেদা জিয়াকে আদালতে হাজির করে কারা কর্তৃপক্ষ। সেদিন প্রয়োজনীয় নথি না থাকায় মামলাটি শুনানির জন্য আজকের দিন নির্ধারণ করা হয়। খালেদা জিয়ার আদালতে হাজিরা দেয়াকে কেন্দ্র করে বকশিবাজার এলাকায় নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। সকাল থেকে আলিয়া মাদ্রাসার চারপাশে পুলিশের কড়া নিরাপত্তা বেষ্টনী স্থাপন করা হয়েছে। এলাকায় প্রবেশাধিকারে রয়েছে বিশেষ নজরদারি। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে সতর্ক অবস্থানে রয়েছে পুলিশ। লালবাগ জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার (এসি-পেট্রোল) সানোয়ার হোসেন বলেন, খালেদা জিয়ার হাজিরাকে কেন্দ্র করে আইনশৃঙ্খলার যেন কোনো বিঘ্ন না ঘটে সেজন্য চারদিকে কড়া নিরাপত্তার বলয় গড়ে তোলা হয়েছে। ২০১৬ সালের ৫ এপ্রিল এ মামলায় খালেদা জিয়া আত্মসমর্পণ করে জামিন পান। মামলার নথি থেকে জানা যায়, ২০০৭ সালের ২ সেপ্টেম্বর দুদক উপপরিচালক গোলাম শাহরিয়ার ১৩ জনের বিরুদ্ধে বাদী হয়ে তেজগাঁও থানায় গ্যাটকো দুর্নীতি মামলা দায়ের করেন। পরে ২০০৮ সালের ১৩ মে খালেদা জিয়াসহ ২৪ জনের বিরুদ্ধে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিমের (সিএমএম) আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন দুদকের উপপরিচালক মো. জহিরুল হুদা। মামলার ২৪ আসামির মধ্যে খালেদা জিয়ার ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকো, সাবেক অর্থমন্ত্রী সাইফুর রহমান, বিএনপির সাবেক মহাসচিব আবদুল মান্নান ভূঁইয়া ও জামায়াত নেতা মতিউর রহমান নিজামী মারা গেছেন। আসামির সংখ্যা এখন ২০ জন। মামলার অভিযোগে বলা হয়, আসামিরা দরপত্রের শর্ত ভঙ্গ ও ক্ষমতার অপব্যবহার করে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান গ্যাটকোর সঙ্গে চুক্তি সইয়ের ফলে সরকারের ১৪ কোটি ৫৬ লাখ ৩৭ হাজার ৬১৬ টাকার আর্থিক ক্ষতি হয়। এ ছাড়া গ্যাটকোকে ঠিকাদারি কাজ দেওয়ার বিনিময়ে অবৈধভাবে আরাফাত রহমান কোকো ও ইসমাইল হোসেন সায়মন দুই কোটি ১৯ লাখ ৯৯ হাজার ৭৩৬ টাকার আর্থিক সুবিধা নেন বলে অভিযোগপত্রে বলা হয়। গ্যাটকো দুর্নীতির মামলাটি পুরান ঢাকার বকশিবাজারের বিশেষ জজ আদালত-৩ এর বিচারক আবু সৈয়দ দিলজারের আদালতে বিচারধীন রয়েছে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: