বাংলাদেশের ভোট বিশ্ব গণমাধ্যমে

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮ ইংরেজী, সোমবার: দেশব্যাপী অনুষ্ঠিত হয়েছে ১১তম জাতীয় সংসদ নির্বাচন। নির্বাচনে ইতিহাস গড়ে টানা তৃতীয়বারের মত ক্ষমতায় এসেছে শেখ হাসিনার আওয়ামী লীগ। আওয়ামী লীগ নির্বাচনকে শান্তিপূর্ণ আখ্যা দিলেও বিরোধী ঐক্যফ্রন্ট এই নির্বাচনকে গণতন্ত্রের নামে প্রহসন বলে উল্লেখ করেছে। তারা পুননির্বাচনের দাবি জানিয়েছে। তবে বিদেশী পর্যবেক্ষকরা নির্বাচনের পরিবেশ ও সার্বিক দিককে শান্তিপূর্ণ বলেছেন। বাংলাদেশের জাতীয় নির্বাচন নিয়ে গত কয়েকদিন প্রায় সকল বিশ্ব গণমাধ্যমে ফলাও করে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। নির্বাচন শেষে এর ফল ও সার্বিক দিক নিয়ে প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেও প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে বিশ্বের নামী দামী গণমাধ্যম।
ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, অভাবনীয় জয়ে টানা তৃতীয়বারের মত বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়েছেন শেখ হাসিনা। নির্বাচন কমিশনের ঘোষণা অনুযায়ী মহাজোট পেয়েছে ২৮৮ টি আসন। অন্যদিকে বিরোধী দলীয় জোট ঐক্যফ্রন্ট পেয়েছে সাতটি আসন। তারা নির্বাচনকে তামাশা হিসেবে উল্লেখ করে পুনরায় নির্বাচনের দাবি জানিয়েছ্।ে
মার্কিন গণমাধ্যম সিএনএন নির্বাচন পরবর্তী প্রতিবেদনে জানিয়েছে, সহিংস নির্বাচনে জয়ী হয়ে টানা তৃতীয়বারের মত প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়েছেন শেখ হাসিনা। বিরোধীরা নির্বাচনে জালিয়াতির অভিযোগ এনেছে। জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট পুনরায় নির্বাচনের দাবি জানিয়েছে। দিল্লির বাংলাদেশ হাইকমিশনের বরাত দিয়ে খবর প্রকাশ করেছে সিএনএন।
কাতারভিত্তিক গণমাধ্যম আল জাজিরা ‘বাংলাদেশের নির্বাচনে জয়ী হাসিনা, বিরোধীদের প্রত্যাখ্যান’ শিরোনামে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। সেখানে বলা হয়েছে, নির্বাচন কমিশনের ঘোষণা অনুযায়ী বিপুল জয়ে আবারো বাংলাদেশের ক্ষমতায় এসেছে শেখ হাসিনার আওয়ামী লীগ। অপরদিকে বিরোধী দলীয় জোট জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট এই নির্বাচন প্রত্যাখ্যান করে পুনরায় নির্বাচনের দাবি জানিয়েছে। আল জাজিরা তাদের প্রতিবেদনে রবিবারের নির্বাচনের ফলাফল উল্লেখ করে ২০১৪ সালের নির্বাচনে বিএনপির নির্বাচন বয়কটের তথ্য তুলে ধরেছে।
ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, নিরঙ্কুশ জয়ে ক্ষমতায় এসেছেন শেখ হাসিনা। বিরোধীরা নির্বাচন প্রত্যাখ্যান করেছে। জয়ের ফলে চতুর্থবারের মত প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করবেন হাসিনা। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দেশব্যাপী ১৭ জন নিহত হয়েছে বলেও প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছে এনডিটিভি। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নির্বাচনের আগে বিরোধীদের ওপর দমন পীড়নের অভিযোগ রয়েছে শেখ হাসিনার বিরু্দ্েধ। এছাড়া ক্ষমতাসীনদের হয়ে নির্বাচন কমিশন কাজ করেছে বলেও অভিযোগ করেছে বিরোধী দলগুলো।
ভারতীয় আরেক গণমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া ‘বাংলাদেশের নির্বাচনে বড় জয় হাসিনার, পাতানো নির্বাচন বলে দাবি বিরোধীদের’ এমন শিরোনামে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। প্রতিবেদনে নির্বাচনের ফলাফল এবং শেখ হাসিনার বড় জয়ের কথা বলা হয়েছে। এছাড়া বিরোধীরা ভোট জালিয়াতিসহ যেসব অভিযোগ করেছেন সে বিষয়েও উল্লেখ করা হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে ২০১৪ সালের নির্বাচন বয়কট করা প্রধান বিরোধী দল বিএনপি মাত্র ছয় আসনে বিজয়ী হয়েছে।
পাকিস্তানের অন্যতম গণমাধ্যম ডন নিউজ জানিয়েছে, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রবিবারের সাধারণ নির্বাচনে বিপুল ভোটে জয়ী হয়েছেন। নির্বাচনকে ভোট জালিয়াতি এবং পাতানো নির্বাচন বলে অভিযোগ করেছে বিরোধীরা। এছাড়া ক্ষমতাসীন ও বিরোধী দলের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে ১৭ জন নিহত হয়েছে।
ব্রিটিশ গণমাধ্যম ইন্ডিপেন্ডেন্ট তাদের প্রতিবেদনে জানিয়েছে, ভোট জালিয়াতির অভিযোগের নির্বাচনে বিপুল সংখ্যক ভোটে জয়ী হয়েছে শেখ হাসিনার দল। নির্বাচনের ফলাফল তুলে ধরে শেখ হাসিনার টানা তৃতীয় জয়ের কথা উল্লেখ করেছে ইন্ডিপেন্ডেন্ট।
এছাড়াও এএফপি, রয়টার্স, গাল্ফ নিউজ, সৌদি গেজেট, আনাদুলু এজেন্সিসহ বিশ্বের সকল গণমাধ্যম গুরুত্বসহকারে বাংলাদেশের নির্বাচন নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। এসব গণমাধ্যমে শেখ হাসিনা টানা জয় এবং নির্বাচনের ফলাফল ও বিরোধীদের অভিযোগগুলো গুরুত্বসহকারে তুলে ধরা হয়েছে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: