বন্দর ব্যবহারকারী প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা কর্মচারীদের মাঝে বোনাস প্রদান কার্যক্রমের উদ্বোধন

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ২২ ডিসেম্বর, বৃহস্পতিবার: চট্টগ্রাম বন্দর এর নির্ধারিত সময়ের পূর্বে ২০ লক্ষ কিউসি হ্যান্ডেলিং করার কারনে সংশ্লিষ্টদের উৎসাহিত করতে নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয় ও বন্দর কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্তে চট্টগ্রাম বন্দর এর নিজস্ব কর্মকর্তা কর্মচারী এবং বন্দর ব্যবহারকারী প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের উৎসাহ বোনাস প্রদান করা হয়। তারই ধারাবাহিকতায় চট্টগ্রাম বন্দরে কর্মরত উইন্সম্যান বা ক্রেন অপারেটর সমন্বয় পরিষদ ও অন্যান্যদের দাবীর প্রেক্ষিতে বন্দর ব্যবহারকারী প্রতিষ্ঠানের মধ্যে বার্থ অপারেটর, শিপ হ্যান্ডেলিং অপারেটর এবং টার্মিনাল অপারেটর প্রায় ৪৫০ জন এর মাঝে জনপ্রতি ৭ হাজার টাকা করে উৎসাহ বোনাস প্রদান করা হচ্ছে। ২২ ডিসেম্বর ২০১৬ খ্রি. বৃহষ্পতিবার, দুপুরে নগরভবনের কেবি আবদুচ ছত্তার মিলনায়তনে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীন বোনাস প্রদান কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন। প্রাথমিক পর্যায়ে মেসার্স সাইফ পাওয়ার টেক থেকে ২ জন, মেসার্স ফোর জুয়েল হতে ২ জন, মেসার্স ওশেন এইড সার্ভিস হতে ২ জন এবং মেসার্স এম এইচ চৌধুরী হতে ২ জন মোট ৮ জনের হাতে জনপ্রতি ৭ হাজার টাকা করে উৎসাহ বোনাস প্রদান করেন মেয়র। বাকী সকলকে স্ব স্ব অফিসের মাধ্যমে উৎসাহ বোনাস প্রদান করা হবে। এ উপলক্ষে অনুষ্ঠিত শ্রমিক কর্মচারী সমাবেশে প্রধান অতিথি চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, আমি শ্রমজীবি মানুষ এর স্বার্থের সাথে আছি। শ্রমিকদের ন্যায় সঙ্গত দাবী বাস্তবায়নে যে কোন ঝুঁকি নিতে প্রস্তুত আছি। তবে প্রত্যেককে মনে রাখতে হবে কর্মস্থল হলো রুটি রুজির ঠিকানা। কর্মস্থলের ক্ষতি সাধন করা নৈতিক দায়িত্ব নয়। মেয়র বলেন, চট্টগ্রাম বন্দর বাংলাদেশ এর হৃদপিন্ড। একে সচল রেখেই অধিকার আদায় করতে হবে। বন্দরের কোন ধরনের ক্ষতি করা মানে নিজের পায়ে নিজেই কুঠারাঘাত করা। তিনি আশা করেন স্বেচ্ছায় বা স্বজ্ঞানে কোন শ্রমিক কর্মচারী নিজের ক্ষতি সাধন করবেন না। দেশের সুনাম ও বন্দরের সুনাম অক্ষুন্ন রেখে শ্রমিক সংগঠন পরিচালনা করার আহবান জানান মেয়র। এসময় জাতীয় শ্রমিকলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব সফর আলী, চট্টগ্রাম মহানগর শাখার সভাপতি বখতেয়ার উদ্দিন খান, চট্টগ্রাম বন্দর ব্যবহারকারী শ্রমিক কর্মচারী লীগ (সিবিএ) এর সভাপতি মো. ইমাম হোসেন, সাধারন সম্পাদক মোহাম্মদ আলমগীর, কার্যকরী সভাপতি উৎপল বিশ্বাস, যুদ্ম সাধারন সম্পাদক মোহাম্মদ হারুন অর রশিদ, মোহাম্মদ দুলাল, মোহাম্মদ শহিদ, শ্রমিক নেতা আবদুল মতিন, নাসির উল্লা, মোহাম্মদ হুমায়ুন করিব, মোহাম্মদ সিরাজ, মোহাম্মদ ইউসুফ, মোহাম্মদ বেলাল, মিজান, আবুল কালাম মুনছুর, সাত্তার, ইমাম হোসেন খোকন, বাচা মিয়া, রহমত উল্লাহ সহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও বন্দর ব্যবহারকারীর পক্ষে শওকত আলী উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*