বঞ্চিত ডাক কর্মীদের প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ২ জুলাই: রাষ্ট্রপতি স্বাক্ষরিত ০৪/০৫/২০১৫ইং তারিখের এক সরকারি গেজেটের ভিত্তিতে চট্টগ্রাম ডাক বিভাগের এক গ্রেডেশন তালিকা অনুসারে সংশ্লিষ্ট সকল বাতিল ডাক কর্মীদের চাকুরীতে পুনর্বহাল পাওয়ার অধিকার থাকা সত্ত্বেও কোনো কোনো বাতিল ডাক কর্মীদের নামগুলো উক্ত গ্রেডেশন তালিকাতে উল্লেখ না থাকার কারণে বাদপড়া ডাক কর্মীদেরকে বঞ্চনার শিকার থেকে মুক্ত করার জন্য প্রধানমন্ত্রীসহ সচেতনদের হস্তক্ষেপ একান্ত কাম্য। জানা গেছে, ১৯৯৪ইং সনে ও ২০০৭ইং সনে চট্টগ্রাম জেনারেল পোস্ট অফিসে দেলোয়ার, রতন, শ্যামল, অনুতোষ ও উত্তমসহ মোট ৪৫ জনেরও বেশী সংখ্যক ডাক কর্মীকে আত্মপক্ষ সমর্থনের আগাম কোনো সুযোগপত্র না দিয়েই হঠাৎ বাতিল করা হয়। পরবর্তী এক পর্যায়ে পুনর্বহালের পক্ষে রাষ্ট্রীয় নিশ্চয়তা প্রদানকারী উক্ত সরকারি গেজেটের আলোকে বকেয়াসহ পুনর্বহাল ও পদোন্নতির চাকুরীতে যোগদান পাওয়ার আবেদনপত্র ২৯/১১/২০১৫ইং তারিখে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, ডাক প্রতিমন্ত্রী, মন্ত্রী পরিষদ সচিব, ডাক মহাপরিচালক, কেন্দ্রীয় ডাককর্মী ইউনিয়ন সাধারণ সম্পাদক, চট্টগ্রাম পোস্ট মাস্টার জেনারেল ও চট্টগ্রাম ডেপুটি পোস্ট মাস্টার জেনারেল বরাবর রেজিষ্ট্রি এ/ডি ডাকযোগে পাঠানো হয় বলেও জানা গেছে। এমন কি চট্টগ্রাম ডাক বিভাগ থেকে ঢাকা ডাক অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের কাছে পাঠানো উক্ত গ্রেডেশন তালিকাতে কোনো কোনো বাতিল ডাক কর্মীদের নামগুলো উল্লেখ না থাকার কারণ সম্পর্কে জানতে চাইলে অনুরোধপত্র পাওয়ার ৭ দিনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য চট্টগ্রাম ডেপুটি পোস্ট মাস্টার জেনারেল ২৭/১০/২০১৫ইং তারিখে সংশ্লিষ্ট পোস্টমাস্টার ও পোস্ট অফিস পরিদর্শকের কাছে উক্ত অনুরোধপত্র পাঠিয়েছেন বলে সূত্রে প্রকাশ। কিন্তু বছরের পর বছর যাবৎ কাল ও স্রোত কারো জন্য অপেক্ষা না করার মধ্য দিয়ে বিলম্ব বাড়তে থাকলেও এবং উক্ত ৭ দিন শেষ হওয়ার পর ৭ মাস শেষ হওয়ার মধ্য দিয়ে বিচারের বাণীর কান্না বাড়তে থাকলেও ভুক্তভোগী ডাক কর্মীদের বঞ্চনার অবসান কখন হবে তা বুঝা যাচ্ছে না। অবশ্য ১৮/০৬/২০১৬ইং তারিখের newsgarden24.com  পত্রিকার মুক্তমত কলামে প্রচারিত হওয়া ও ২৭/০৬/২০১৬ইং তারিখের www.giridarpon.com পত্রিকার ০৩নং পৃষ্ঠায় প্রকাশিত হওয়া সংবাদে বলা হয়, বহু বছরের অসহনীয় বিলম্বের অবসানের জন্য প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের ডিজিটাল তথ্যসেবা প্রকল্পের নিয়ন্ত্রণাধীন চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের এক সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ আনিসুল ইসলামের এক নির্দেশ বাস্তবায়নের কোনো অগ্রগতিসহ চট্টগ্রাম ডেপুটি পোস্টমাস্টার জেনারেলের উক্ত অনুরোধ বাস্তবায়নের কোনো অগ্রগতি একান্ত কাম্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*